×

বিনোদন

কঠিন রোগে ভুগছেন এই অভিনেত্রী, ভক্তদের সাহায্য চাইলেন

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ১৬ মার্চ ২০২৪, ১১:০২ এএম

কঠিন রোগে ভুগছেন এই অভিনেত্রী, ভক্তদের সাহায্য চাইলেন

ভারতীয় টেলিভিশন অভিনেত্রীদের মধ্যে হিনা খানের সাজপোশাক নিয়ে চর্চা লেগেই থাকে। সামাজিক যোগাযোগা মাধ্যমে তার ভক্তদের সংখ্যা পাল্লা দিতে পারে যেকোনো বলিউড নায়িকাকেও। হিনা কী পরছেন, কেমন ভাবে চুল কাটছেন, কোন পোশাকের সঙ্গে কোন গয়না পরছেন, কোন জুতা পরছেন- যাবতীয় খুঁটিনাটি তিনি মাঝেমাঝেই ভক্তদের জানিয়ে থাকেন ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে। 

ভক্তদের কাছে হিনা এখন ‘স্টাইল আইকন’। রমজান মাস শুরু হয়েছে। রোজা রাখছেন হিনা। সম্প্রতি একটি পোস্টে অভিনেত্রী তার ভক্তদের জানিয়েছেন তিনি ‘গ্যাস্ট্রোইসোফেজিয়াল রিফ্লাক্স ডিজিজ’-এ ভুগছেন। ভক্তদের কাছে তিনি জানতে চেয়েছেন, এই কঠিন রোগ থেকে কীভাবে রেহাই পাবেন তিনি।

হিনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ছবি ভাগ করেছেন। ছবিতে দেখা যাচ্ছে তার হাতের তালুতে একটি খেজুর রাখা। অভিনেত্রী লেখেন, ‘‘আমি ‘গ্যাস্ট্রোইসোফেজিয়াল রিফ্লাক্স ডিজিজ’ (জিইআরডি)-এ ভুগছি। রমজানের উপোস করলে সমস্যা আরো বেড়ে যাচ্ছে। মা বলল, খেজুর খেলে আমি উপকার পাব। আপনারা আমায় কয়েকটি ঘরোয়া দাওয়াই বলতে পারেন?’’

চিকিৎসকেরা বলছেন, যখন গ্যাস্ট্রিক অ্যাসিড পাকস্থলী থেকে খাদ্যনালির মধ্য দিয়ে উল্টো দিকে প্রবাহিত হয়, তখন ‘গ্যাস্ট্রোইসোফেজিয়াল রিফ্লাক্স’-এর সমস্যা দেখা যায়। এর ফলে জ্বালার অনুভূতি সৃষ্টি হয়। এই অংশের পেশির বলয়কে বিজ্ঞানের ভাষায় ‘লোয়ার ইসোফেজিয়াল স্ফিঙ্কটার’ বা ‘এলইএস’ বলা হয়। এটি সাধারণত বন্ধ থাকে। শুধুমাত্র খাদ্যবস্তু গলাধঃকরণ করার সময়েই এই পেশি শিথিল হয় এবং খুলে যায়। 

ফলে খাবার প্রবেশ করতে পারে খাদ্যনালিতে। গ্যাস্ট্রোইসোফেজিয়াল রিফ্লাক্স রোগে আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রে এটি খাবার খাওয়ার সময় ছাড়া অন্যান্য সময়ও খুলে যায়। ফলে পাকস্থলী থেকে খাদ্যবস্তু এবং পাকরসে উপস্থিত বিভিন্ন অ্যাসিড খাদ্যনালীর উপরের দিকে উঠে আসতে চায়। তেলমশলা দেয়া ভারী খাবার খাওয়ার পর শুয়ে পড়লেও অনেক সময়ে এই সমস্যা দেখা দেয়। তবে অনেক সময়ে হাইটাল হার্নিয়ার কারণেও জিইআরডি হতে পারে।

হিনার আবেদনে সাড়া দিয়েছেন তার ভক্তরা। রোগ থেকে রেহাই পেতে নানা ধরনের টোটকা বলে দিয়েছেন তারা প্রিয় অভিনেত্রীকে। কেউ লিখেছেন, ‘‘ইফতারির সময় ৪টি খেজুর এক গ্লাস পানিতে ডুবিয়ে রাখুন, সকালে উঠে সেহরির সময় ওই খেজুর ভেজানো পানি খেয়ে ফেলুন। সব ধরনের পেটের সমস্যার দাওয়াই এই পানীয়।’’ আর একজন লিখেছেন, ‘‘দইয়ের সঙ্গে গুড় দিয়ে খান এবং খাবার খুব ভাল করে চিবিয়ে খান।

আরো পড়ুন:  ঈদে ছুটি নিয়ে সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য সুখবর

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App