×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

অর্থনীতি

অগ্রণী ব্যাংকের কর্মীদের ই-মেইল হ্যাক করে তথ্য বেহাত

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ২৯ জুন ২০২৪, ০৯:৪৭ এএম

অগ্রণী ব্যাংকের কর্মীদের ই-মেইল হ্যাক করে তথ্য বেহাত

ছবি : সংগৃহীত

রাষ্ট্রমালিকানাধীন অগ্রণী ব্যাংকের কিছু কর্মীর ই-মেইল হ্যাক করে তথ্য ফাঁসের ভয় দেখিয়ে টাকা চেয়েছিল একটি হ্যাকার গ্রুপ। টাকা না পেয়ে তারা সেসব তথ্য ফাঁস করে দিয়েছে। তবে, হ্যাকের কোনো ঘটনা ঘটেনি বলে জানিয়েছে অগ্রণী ব্যাংক। শুধুমাত্র কয়েকজন কর্মীর ই-মেইল আইডি হাতছাড়া হয়েছিল বলে জানায় প্রতিষ্ঠানটি।

গত ১৭ মে ‘কিল সিকিউরিটি’ নামে একটি হ্যাকার গ্রুপ টেলিগ্রামের মাধ্যমে জানিয়েছিল, অগ্রণী বাংকের ১২ হাজারের বেশি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চুরি করেছে তারা। অগ্রণী ব্যাংকের ই-মেইল সার্ভার হ্যাক করে এসব তথ্য তারা পেয়েছে। তথ্য ফাঁসের হুমকি দিয়ে বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে পাঁচ হাজার ইউরো (৬ লাখ ২৮ হাজার টাকা) দাবি করেছিল গ্রুপটি। 

৬ জুন নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দাবিকৃত টাকা না পেয়ে এই হ্যাকার গ্রুপ ডার্ক ওয়েবে তথ্যগুলো ফাঁস করে দেয়।

আরো পড়ুন : রেমিট্যান্সের তিনগুণ অর্থ নিয়ে যাচ্ছে বিদেশি কর্মীরা

ডার্ক ওয়েব থেকে পাওয়া সেসব তথ্য ঘেঁটে দেখা যায়, ব্যাংকের বিভিন্ন অফিস আদেশ, কর্মীদের ভবিষ্য তহবিলের (প্রভিডেন্ট ফান্ড) তথ্য, বিভিন্ন শাখায় হিসাবধারীদের ঋণের তথ্য, দ্রুত অর্থ ছাড়ের বার্তাসহ বিভিন্ন তথ্য রয়েছে। এসব তথ্য তারা পেয়েছে অগ্রণী ব্যাংকের ই-মেইল সার্ভার হ্যাক করে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সাইবার অপরাধ, র‍্যানসমওয়ারের আক্রমণ ও তথ্য ফাঁসের মতো বিষয় নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে ‘ডেইলি ডার্ক ওয়েব’ নামের একটি পোর্টাল। সেখানেও ১৭ মে অগ্রণী ব্যাংকের তথ্য ফাঁস বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

সরকারের সাইবার নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করা আইসিটি বিভাগের প্রকল্প বিজিডি ই-গভ সার্টের পরিচালক মোহাম্মদ সাইফুল আলম খান জানান, অগ্রণী ব্যাংকের বিষয়টি তাদের নজরে এসেছিল। তাদের একটি দল ব্যাংকে গিয়েছিল। সমস্যার সমাধান হয়েছে।

ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. মুরশেদুল কবীর জানান, তাদের ব্যাংকে কোনো হ্যাকের ঘটনা ঘটেনি। সরকারের বিভিন্ন সংস্থা পরীক্ষা করে তাদের নিরাপত্তাব্যবস্থার কোনো দুর্বলতা পায়নি।

রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়, জন্ম ও মৃত্যুনিবন্ধনের তথ্যভান্ডার থেকে গত বছর জুলাইয়ে লাখো মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস হয়। গত অক্টোবরে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) তথ্য পাওয়া যাচ্ছিল একটি টেলিগ্রাম চ্যানেলে। এসবের বাইরেও তথ্য ফাঁসের ছোট ছোট কিছু ঘটনা ঘটেছে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App