×

সারাদেশ

নারায়ণগঞ্জে স্ত্রী, সন্তানদের সামনে এক ব্যক্তিকে গুলি ও পিটিয়ে হত্যা

Icon

সোনারগাঁও (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ০৮ জুন ২০২৪, ০৫:০৩ পিএম

নারায়ণগঞ্জে স্ত্রী, সন্তানদের সামনে এক ব্যক্তিকে গুলি ও পিটিয়ে হত্যা

ছবি: ভোরের কাগজ

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে স্ত্রী, সন্তানদের সামনে মনিরুজ্জামান মনু (৪২) নামে একব্যক্তিকে গুলি ও পিটিয়ে প্রকাশ্যে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। যার একটি ভিডিও ফুটেজ সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। 

শুক্রবার (৭  জুন) সকাল ১১টার দিকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের আওতাধীন বন্দর থানার ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের মুরাদপুর এলাকার এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। নিহত মনিরুজ্জামান মনু মুরাদপুর গ্রামের মৃত কামাল উদ্দিনের ছেলে। 

হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গোলাম মোস্তফা। 

নিহতের ভাগিনা মাহমুদুর হাসান রানা জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আমার মামা মনিরুজ্জামান মনুকে সন্ত্রসীরা প্রথমে তার মাথায় গুলি করে এবং পরে তার সমস্ত শরীরে এলোপাতাড়িভাবে পিটিয়ে হত্যা করে । মনু গাজীপুরের কাপাসিয়ায় তার শ্বশুরবাড়িতে বসবাস করতো। তবে গত বৃহস্পতিবার রাতে সোনারগাঁওয়ের কাঁচপুর ইউনিয়নে কুতুবপুর গ্রামে তার মামি মারা গেলে জানাজায় অংশ নিতে রাতে নারায়ণগঞ্জ আসে। জানাজা শেষে বন্দরের মুরাদপুর এলাকায় তার নিজ বাড়িতে স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে অবস্থান করে। বাড়িতে থাকার খবর পেয়ে গত শুক্রবার ১১টার দিকে প্রতিপক্ষ একই গ্রামের নুরা মিয়ার তিন ছেলে মিঠু, টিটু ও মনিরের নেতৃত্বে ১০-১২জন সন্ত্রাসী আগ্নেয়াস্ত্র ও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মনুর বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা মনুর ঘরে ঢুকে তাকে টেনে হেঁচড়ে উঠানে এনে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করে মাটিতে ফেলে এবং একজন তার মাথায় বসে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। এ সময় নিহত মনুর মেয়ে মীম আক্তার মোবাইল দিয়ে একটি ভিডিও ফুটেজ ধারণ করে। যা পরে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

আরো পড়ুন: চাঁদাবাজির জাঁতাকলে অটোচালক

এদিকে নিহত মনিরুজ্জামানের ছেলে মিনহাজ বলেন, এলাকার নুরা মিয়ার তিন ছেলে মিঠু, টিটু ও মনিরের নেতৃত্বে ১০-১২ জনের একটি দল আমার বাবাকে ঘর থেকে টেনে বের করে। এরপর তারা বাবার শরীরে গুলি চালায় ও লাঠিসোঁটা দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। সন্ত্রাসীরা তাকে নিথর অবস্থায় ফেলে যাওয়ার পর ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ২টার দিকে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্থানীয়রা জানায়, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মনিরুজ্জামানের পরিবারের আরও তিন সদস্য প্রতিপক্ষের হামলায় মারা গেছেন। তারা হলেন নিহত মনুর ভাই নুরুজ্জামান নুরা, বাবুল আক্তার ও বড়বোন নিলুফা। এলাকায় সুবিধা করতে না পেরে কয়েক বছর ধরে গাজীপুরের কাপাসিয়া এলাকায় শ্বশুর বাড়িতে সে বসবাস করতেন। 

ওসি গোলাম মোস্তফা বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটিয়েছে একই এলাকার আরেকটি সন্ত্রাসী গ্রুপ। তাদের ধরতে আমাদের অভিযান চলছে।


সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App