শেরপুরে বিএনপির ৪ নেতাকে কারাগারে প্রেরণ

আগের সংবাদ

কুড়িগ্রামে প্রতিপক্ষের আঘাতে নিহত ১

পরের সংবাদ

সীমান্তে মাদকপাচার বন্ধে বিজিবি মহাপরিচালকের হুঁশিয়ারি

নিরাপত্তায় গুরুত্ব পাবে সীমান্তের অরক্ষিত স্থান

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৩০, ২০২৩ , ৭:৩২ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ৩০, ২০২৩ , ৭:৩২ অপরাহ্ণ

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) নবনিযুক্ত মহাপরিচালক মেজর জেনারেল একেএম নাজমুল হাসান বলেছেন, সীমান্ত দিয়ে দেশে মাদক প্রবেশ শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনা হবে। এজন্য যেসব করণীয়, তা অব্যাহত থাকবে। মিয়ানমার সীমান্তে বান্দরবান এলাকায় এখনো কিছুটা উত্তেজনা রয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবেলায় বিজিবি সদস্যরা সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করছে। সীমান্তের অরক্ষিত স্থান যদি থেকে থাকে তাহলে দুর্বল দিক চিহ্নিত করে নিরাপত্তায় গুরুত্ব দেয়া হবে।

সোমবার (৩০ জানুয়ারি) দুপুরে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

সীমান্ত পেরিয়ে মাদক আসা বন্ধে কি ব্যবস্থা নেয়া হবে- এমন প্রশ্নের উত্তরে নবনিযুক্ত মহাপরিচালক বলেন, সীমান্ত পেরিয়ে দেশে নিয়মিত মাদক বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হবে। মাদকের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি অনুসরন করতে নির্দেশ দিয়েছেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থেকে শুরু করে আমরা সবাই এই নীতিতে একমত হয়ে কাজ করছি। বাইরে থেকে মাদক এসে দেশের পরবর্তী প্রজন্মকে নষ্ট করে দেবে, এটি আমরা কখনোই চাই না।

তিনি বলেন, দেশের অখন্ডতা রক্ষায় বিজিবির ওপর যে বিশাল দায়িত্ব দেয়া হয়েছে তা সব সময় নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করে আসছে ও ভবিষ্যতেও করবে। বিজিবি সবসময়ই জ্বলন্ত অগ্নিকুন্ডের ওপর দিয়ে দায়িত্ব পালন করে। সীমান্তে কখন কি হবে তা আগেই বলা যায় না। মিয়ানমার সীমান্তে বান্দরবান এলাকায় কিছুটা উত্তেজনা রয়েছে। বিজিবি সদস্যরা সেখানে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করছে। সীমান্তের পরিস্থিতি আমরা পর্যবেক্ষণ করছি। এখন যে পরিস্থিতি রয়েছে তা আমাদের নিয়ন্ত্রণেই আছে এবং সুন্দরভাবে ট্যাকেল করতে আমরা সক্ষম।

বিজিবি মহাপরিচালক হিসেবে জাতির পিতার সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে পেরে আমি নিজেকে অত্যন্ত সৌভাগ্যবান মনে করছি।

বিজিবির মতো ঐতিহাসিক ও ঐতিহ্যবাহী বাহিনীর মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বিজিবি মহাপরিচালক নাজমুল হাসান আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানই আমাদের সব কাজের অনুপ্রেরণা। জাতির পিতার পদাঙ্ক অনুসরণ করে তাঁরই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিজিবিকে একটি বিশ্বমানের আধুনিক সীমান্তরক্ষী বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে ‘বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ আইন-২০১০’ প্রণয়নসহ ‘বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ ভিশন-২০৪১’ এর পরিকল্পনা করেন। এরই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী বিজিবিকে একটি আধুনিক ত্রিমাত্রিক সীমান্তরক্ষী বাহিনী হিসেবে গড়ে তুলেছেন। দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় ও দেশের মানুষের কল্যাণে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে একসঙ্গে কাজ করবো।

টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিস্থলে পৌঁছলে নবনিযুক্ত মহাপরিচালককে বিজিবি’র একটি সুসজ্জিত দল ‘গার্ড অব অনার’ দেয়। এরপর তিনি ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাত করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যদের রূহের মাগফেরাত কামনা করেন। এর আগে সোমবার সকালে বিজিবি মহাপরিচালক পিলখানাস্থ বিজিবি সদর দপ্তরের ‘সীমান্ত গৌরব’ এ মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের প্রতি এবং ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ জানুয়ারি নাজমুল হাসান বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্বভার নিয়েছেন।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়