তুরস্কে বাংলাদেশি স্টুডেন্টস কমিউনিটির সভাপতি মোবাশ্বেরা জাহান

আগের সংবাদ

শার্শা সীমান্তে ৭০টি স্বর্ণের বারসহ আটক ২

পরের সংবাদ

স্পিকার

স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে জেলা প্রশাসকদের ভূমিকা অনন্য

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৫, ২০২৩ , ১০:০০ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৫, ২০২৩ , ১০:০০ অপরাহ্ণ

আধুনিক, তথ্যনির্ভর, জনসম্পৃক্ত ও স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে জেলা প্রশাসকদের ভূমিকা অনন্য। বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় জ্ঞান ও দক্ষতার বিকাশ ঘটিয়ে আইন অনুযায়ী জেলা প্রশাসকদের নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে যেতে হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

বুধবার (২৫ জানুয়ারি) বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের কেবিনেট কক্ষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উদ্যোগে ‘জেলা প্রশাসক সম্মেলন ২০২৩’ উপলক্ষে জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন তিনি। এসময় বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের যুগ্মসচিব ও স্পিকারের একান্ত সচিব এমএ কামাল বিল্লাহের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব কেএম আব্দুস সালাম। এ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন, হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান ও বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার মো. আমিন উল আহসানও বক্তব্য রাখেন।

স্পিকার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারাবিশ্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় জেলা প্রশাসকগণ যেভাবে করোনা অভিঘাত মোকাবেলা করেছেন, সরকারের নীতি ও উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নেও তারা নিবেদিত হলে দেশ সকল প্রতিকূলতা দূর করে সামনে এগিয়ে যাবে।

শিরীন শারমিন চৌধুরী আরো বলেন, সংবিধান দেশের সর্বোচ্চ আইন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের পর দ্রুততম সময়ে সংবিধান দিয়েছেন। নারীদের জন্য সংরক্ষিত আসন জাতির পিতার স্বপ্নের প্রতিফলন। এসময় তিনি জনগণের নিকট সরকারের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণে প্রধানমন্ত্রী অধিবেশন চলাকালীন প্রতি বুধবার প্রশ্নোত্তর পর্বে ত্রিশ মিনিটব্যাপী উত্তর প্রদান করেন বলে উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, জাতীয় সংসদের জনপ্রতিনিধিগণ মাই কন্সটিটিউয়েন্সি অ্যাপের সাহায্যে স্বীয় নির্বাচনী এলাকার সকল তথ্যাদি সঙ্গে সঙ্গে জানতে পারছেন, যা এসডিজি সূচক উন্নয়নে সহায়ক। তিনি বলেন, জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে জেলা প্রশাসকগণ মাদক সমস্যা রোধ, বাল্যবিবাহ দূরীকরণ ও দুর্নীতি প্রতিরোধে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করলে দেশে অচিরেই আর্থ সামাজিক উন্নয়নে গতিশীলতা আসবে।

এ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়