বিজয় কী-বোর্ড নিয়ে যা বললেন মোস্তফা

আগের সংবাদ

নেত্রকোণায় ভারতীয় চিনিসহ ২ চোরাকারবারি আটক

পরের সংবাদ

সরিষাবাড়ীর মেয়ে রাশিদা ফেরদৌসের পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৫, ২০২৩ , ৪:০৫ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৫, ২০২৩ , ৪:০৫ অপরাহ্ণ

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব ও সরিষাবাড়ী উপজেলার কৃতি সন্তান রাশিদা ফেরদৌস এনডিসি পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেছেন। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) সরকার ও রাজনীতি বিভাগের প্রফেসর মো. আবদুল মাননান ও ড. নাসিম আখতার হোসাইনের তত্ত্বাবধানে তিনি গবেষণা করেন। তার অভিসন্দর্ভের বিষয়- ন্যাশনাল উইমেন ডেভেলপমেন্ট পলিসি ইন বাংলাদেশ: অ্যান ইভল্যুশন। গত ২০২২ সালের ৮ ডিসেম্বর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) সিন্ডিকেটের ৩১০তম সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

পারিবারিক সূত্র জানায় ড. রাশিদা ফেরদৌস এনডিসি সরিষাবাড়ী উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের মালীপাড়া গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। আব্দুস সামাদ সরকার ও জরিনা সামাদের মেয়ে তিনি।

ড. রাশিদা ফেরদৌস এনডিসি মালীপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক, পোগলদিঘা উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক ও সরিষাবাড়ি কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেন। এরপর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) থেকে বাংলায় স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন।

২০১২ -১৩ সালে চীনের সরকারি শিক্ষাবৃত্তি (স্কলারশিপ) নিয়ে বেইজিংয়ের কমিউনিকেশন ইউনিভার্সিটি অব চায়না থেকে আন্তর্জাতিক যোগাযোগ বিভাগে দ্বিতীয় মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। ২০০৩ সালে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলবি ডিগ্রি অর্জন ও ২০১৮ সালে ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ থেকে এনডিসি কোর্স সম্পন্ন করেন তিনি।

রাশিদা ফেরদৌস ১১তম বিসিএস এ প্রশাসন ক্যাডারের একজন কর্মকর্তা হিসেবে মাঠ প্রশাসনে সহকারী কমিশনার ও ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে কুমিল্লা, গাজীপুর জেলায় প্রথম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেট ও দ্রুত বিচার আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট ছিলেন। সহকারী কমিশনার (ভূমি) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসক হিসেবে অত্যন্ত দক্ষতা, সততা ও সুনামের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন। মানিকগঞ্জ জেলার জেলা প্রশাসক হিসেবে তিন বছর সফলতা ও দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। এছাড়া, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে দক্ষতা সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক মেয়ে ও এক ছেলের মা। মেয়ে ক্যাপ্টেন ফারিহা বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে কর্মরত এবং রোহান এ লেভেলে অধ্যয়নরত রয়েছেন। এছাড়া, তার স্বামীও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়