ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে চীনা কোম্পানির ক্ষতিপূরণ

আগের সংবাদ

শিবালয়ে চুরি করে ড্রেজার বাণিজ্য

পরের সংবাদ

ডেপুটি স্পীকার

কিশোর-কিশোরীদের স্বাস্থ্য শিক্ষায় পরিবারকে সচেতন করতে হবে

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৩, ২০২৩ , ৯:১০ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৩, ২০২৩ , ৯:১০ অপরাহ্ণ

ডেপুটি স্পিকার মো. শামসুল হক টুকু বলেছেন, কিশোর-কিশোরীদের বয়সের সঙ্গে সঙ্গে শারিরীক ও মানসিক নানা ধরণের পরিবর্তন আসে। জৈবিক বিষয়গুলো কিশোর-কিশোরীরা পরিবারের সঙ্গে নিঃসংকোচে যেন আলোচনা করতে পারে সেই আবহ প্রতিটি ঘরে ঘরে তৈরি করতে হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নারীবান্ধব পরিবেশ তৈরি করে তাদের পাঠদানের কার্যক্রম এগিয়ে নিতে হবে। এছাড়া শিশু কিশোরদের জন্য কোন কোন খাতে বরাদ্দ প্রয়োজন এবং কীভাবে ও কোন মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে খরচ করা হবে সে বিষয়গুলো সুনির্দিষ্ট করা প্রয়োজন।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মোঃ শামসুল হক টুকু সংসদ ভবনস্থ পার্লামেন্ট মেম্বার্স ক্লাবে অপরাজেয় বাংলাদেশ, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল ও সুইডেন ভেরিজের উদ্যোগে আয়োজিত ‘জাতীয় কিশোর-কিশোরী স্বাস্থ্য কৌশল ২০১৭-৩০ এর জাতীয় পরিকল্পনা বাস্তবায়নে বার্ষিক বাজেট বিশ্লেষণ’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহম্মেদ শিমুল, আরমা দত্ত, জাকিয়া পারভীন খানম, সৈয়দা রুবিনা আক্তার ও আদিবা আনজুম মিতা বক্তব্য রাখেন।

ডেপুটি স্পিকার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার পথে দৃঢ় প্রত্যয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন। উন্নত ও স্মার্ট বাংলাদেশের দায়িত্ব আজকের দিনের কিশোর-কিশোরীদের হাতেই একসময় তুলে দিতে হবে। বর্তমান প্রজন্মকে জ্ঞান-বিজ্ঞানে সমৃদ্ধ, অসাম্প্রদায়িক, নারী-পুরুষে বৈষম্যহীন মনোভাবাপন্ন ও স্মার্ট হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

মো. শামসুল হক টুকু বলেন, সরকার প্রতিটি জেলা, উপজেলাসহ সকল পর্যায়ে সম্প্রীতি কমিটি গঠন করেছে। কমিটিগুলোতে জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা সম্পৃক্ত রয়েছে। কমিটি ও কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে কিশোর-কিশোরীদের জৈবিক পরিবর্তন ও প্রয়োজনীয় চাহিদা সম্পর্কে খোলামেলা আলোচনার পরিবেশ তৈরি করতে হবে।

অনুষ্ঠানে অপরাজেয় বাংলাদেশ প্রকল্পের ব্যবস্থাপক ওয়াহিদ নেওয়াজ, নির্বাহী পরিচালক ওয়াহিদা বানু, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর কবিতা বোস, ড. ফেরদৌসী বেগম ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মো. মাহমুদুর রহমানসহ গণমাধ্যমকর্মী ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়