রেললাইনে কাটা পড়ল মোবাইলে ব্যস্ত তরুণ

আগের সংবাদ

ভারতে দুবছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রের কোন স্থায়ী রাষ্ট্রদূত নেই

পরের সংবাদ

মুশফিককে টপকে সর্বোচ্চ বেতন এখন সাকিবের

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২২, ২০২৩ , ১২:৩৫ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২২, ২০২৩ , ১২:৩৫ অপরাহ্ণ

সব ফরম্যাট মিলিয়ে মোট ৪২৫টি ম্যাচ খেলেছেন মুশফিকুর রহিম। সাকিব আল হাসান খেলেছেন ৩৯৮টি ম্যাচ। ১৭ বছর ধরে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার কারণেই মুশফিকুর রহিম ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরিতে থেকে সবার চেয়ে বেশি বেতন তুলতেন বিসিবি থেকে। কিন্তু গতকাল বিসিবি প্রকাশিত নতুন চুক্তিতে মুশফিকুর রহিমকে টি২০ ফরম্যাটে রাখা হয়নি। আর এ কারণেই এবার তাকে টপকে সর্বোচ্চ বেতন তুলবেন সাকিব আল হাসান।

শুধু তিন ফরম্যাটের চুক্তি নয়, দুই ফরম্যাটের অধিনায়কও এখন সাকিব। বিসিবির নিয়ম অনুযায়ী, অধিনায়ক হিসেবে সাকিব ও তামিম দু’জনই ৪০ হাজার টাকা করে মাসিক ভাতা পাবেন। তাই সব মিলিয়ে সাকিবের বেতন এখন মাসে প্রায় ৮ লাখ ৮০ হাজার টাকা।

সাকিবের পরই সর্বোচ্চ বেতন তামিম এবং মুশফিকের। তাঁরা দু’জনই টেস্ট এবং ওয়ানডেতে রয়েছেন। ওয়ানডে অধিনায়ক তামিমের বেতন হবে প্রায় ৭ লাখ টাকা আর মুশফিকের হবে প্রায় ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

বিসিবির এই নতুন চুক্তিতে গতবারের চেয়ে কারোরই বেতন বাড়ানো হয়নি। তবে তিন ফরম্যাটের ক্যাটাগরি আর গ্রেডিংয়ে কেউ কারও চেয়ে এগিয়ে বা পিছিয়ে রয়েছেন। সে কারণে মুশফিকের মতো মাহমুদউল্লাহ রিয়াদেরও বেতন কমেছে। শুধু ওয়ানডের চুক্তিতে থাকায় মাহমুদউল্লাহ ‘এ’ প্লাস গ্রেডে বেতন তুলবেন ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। ফরম্যাটের চুক্তিতে ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্স বিবেচনায় আনলেও বেতনের গ্রেডে ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা সামনে আনা হয়েছে। তামিম দেশের হয়ে ৩৭৮ ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতায় পড়েছেন ‘এ’ প্লাস গ্রেডে। টেস্টে ‘এ’ প্লাস গ্রেডের বেতন ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা, ওয়ানডেতে ৪ লাখ টাকা আর টি২০তে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

তবে যদি কেউ তিন ফরম্যাটেই ‘এ’ প্লাস গ্রেডে থাকেন, তাহলে প্রথম ক্যাটাগরির পুরো ১০০ শতাংশ বেতনই পাবেন তিনি, পরবর্তী ক্যাটাগরিতে সেই বেতনের ৫০ শতাংশ পাবেন আর তার পরবর্তী গ্রেডে পাবেন ৪০ শতাংশ। যেমন- সাকিব আল হাসান টেস্ট ক্যাটাগরিতে সাড়ে ৪ লাখই পাবেন, ওয়ানডে ফরম্যাটে গ্রেডিংয়ের ৫০ শতাংশ ধরে পাবেন ২ লাখ আর টি২০তে ৪০ শতাংশ ধরে তুলবেন প্রায় দেড় লাখ।

নতুন চুক্তিতে সর্বনিম্ন বেতন ১ লাখ টাকা। নবাগত জাকির হাসান ও হাসান মাহমুদ এই টাকা তুলবেন। আর যাঁরা এই চুক্তির বাইরে রয়েছেন, তাঁরা যদি জাতীয় দলের হয়ে খেলার সুযোগ পান, তাহলে তাকে ওই মাসে ১ লাখ টাকা দেওয়া হবে। এ বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত চুক্তিতে থাকা এই ক্রিকেটারদের বেতন তাঁদের অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে দেবে বিসিবি।

নতুন চুক্তিতে তিন ফরম্যাটে জায়গা হয়েছে সাকিব আল হাসান, লিটন দাস, মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাসকিন আহমেদের। এখানে সাকিব বাদে বাকি তিনজনই ‘এ’ গ্রেডে রয়েছেন। যার অর্থ তাঁরা প্রত্যেকেই প্রায় ৬ লাখ টাকা করে বেতন তুলবেন। এ গ্রেডে রয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান আর আফিফ হোসেন ধ্রুবও। তাঁরা দুই ফরম্যাটের চুক্তিতে থেকে মাসে বেতন পাবেন প্রায় সাড়ে ৪ লাখ টাকা করে।

এসএম

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়