ভক্তদের সুসংবাদ দিলেন পেলে

আগের সংবাদ

মিরপুরে ব্যাট-বলে দুর্দান্ত সাকিব

পরের সংবাদ

রোড সেফটি ফাউন্ডেশন

নভেম্বরে ৪৬৩ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫৫৪

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৫, ২০২২ , ৯:১৪ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ৫, ২০২২ , ৯:১৪ পূর্বাহ্ণ

নভেম্বরে সারাদেশে ৪৬৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৫৫৪ জন নিহত ও ৭৪৭ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে ১৯৪টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ২২৯ জন। দুর্ঘটনা বেড়েছে ৮ দশমিক ৪৩ শতাংশ এবং প্রাণহানি ১৪ দশমিক ৯৩ শতাংশ। এর আগে গত অক্টোবরে ৪২৭টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৪৮২ জন নিহত হয়েছিল। সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে ঢাকা বিভাগে। এই বিভাগে ১৪২টি দুর্ঘটনায় ১৭৪ জন নিহত হয়েছেন। একই সময়ে ৩টি নৌদুর্ঘটনায় ৫ জন নিহত, ৭ জন আহত এবং ২ জন নিখোঁজ রয়েছেন। ৮টি রেলপথ দুর্ঘটনায় ১১ জন নিহত ও ৪ জন আহত হয়েছেন।

গতকাল রবিবার রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। সংগঠনের পক্ষ থেকে বলা হয়, দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে ‘সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮’ বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আন্তরিকভাবে উদ্যোগী হতে হবে। দুর্ঘটনা ঘটছে মূলত সড়ক পরিবহন খাতের নৈরাজ্য ও অব্যস্থাপনার কারণে। এ অবস্থার উন্নয়নে টেকসই গণপরিবহন কৌশল প্রণয়ন করতে হবে। এ জন্য সরকারের রাজনৈতিক সদিচ্ছা প্রয়োজন বলে মনে করে সংগঠনটি।

সংগঠনটির নির্বাহী পরিচালক সাইদুর রহমান স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত নভেম্বরে দেশে ৪৬৩টি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। এসব দুর্ঘটনায় ৫৫৪ জন নিহত ও ৭৪৭ জন আহত হয়েছেন। নিহতের মধ্যে ৭৮ নারী ও ৭১ শিশু রয়েছে। ১৯৪টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ২২৯ জন, যা মোট নিহতের ৪১ দশমিক ৩৩ শতাংশ। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার হার ৪১ দশমিক ৯০ শতাংশ। দুর্ঘটনায় ১২৩ জন পথচারী নিহত হয়েছে, যা মোট নিহতের ২২ দশমিক ২০ শতাংশ। যানবাহনের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন ৭৯ জন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দুর্ঘটনাগুলোর মধ্যে ১৯২টি জাতীয় মহাসড়কে, ১৪৮টি আঞ্চলিক সড়কে, ৭৪টি গ্রামীণ সড়কে, ৪৩টি শহরের সড়কে এবং অন্যান্য স্থানে ৬টি দুর্ঘটনা সংঘটিত হয়েছে। দুর্ঘটনার মধ্যে ৮১টি মুখোমুখি সংঘর্ষ, ২০৬টি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে, ১২৬টি পথচারীকে চাপা/ধাক্কা দেয়া, ৩৮টি যানবাহনের পেছনে আঘাত করা এবং ১২টি অন্যান্য কারণে ঘটেছে। ত্রæটিপূর্ণ যানবাহন, বেপরোয়া গতি, চালকদের বেপরোয়া মানসিকতা, অদক্ষতা ও শারীরিক-মানসিক অসুস্থতা, তরুণ ও যুবকদের বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালানো, জনসাধারণের মধ্যে ট্রাফিক আইন না জানা ও না মানার প্রবণতার কারণে এসব দুর্ঘটনা সংঘঠিত হয়েছে।

কেএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়