বিএনপির টাকা পাচার খতিয়ে দেখছেন প্রধানমন্ত্রী

আগের সংবাদ

নতুন ধরণের রাজনীতির প্রচলন করতে চাই

পরের সংবাদ

সাশ্রয়ী ও নান্দনিক হবে ঢাবি ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলন

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১, ২০২২ , ৩:৩৫ অপরাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ১, ২০২২ , ৩:৫২ অপরাহ্ণ

আগামী ৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছাত্রলীগের সম্মেলনটিতে আনুষ্ঠানিকতা ও নান্দিনকতা বজায় রেখে ব্যয় সাশ্রয়ী করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন।

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) দুপুর ১২টায় রাজনীতির আতুড়ঘরখ্যাত মধুর ক্যান্টিনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক সম্মেলন-২০২২ উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই কথা বলেন তিনি।

এ সময় তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুতনয়া দেশরত্ন শেখ হাসিনার অনুশাসনের আলোকে একটি নানন্দিক, ব্যয় সাশ্রয়ী ও সার্থক সম্মেলন আয়োজনের মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রত্যাশার প্রতিফলন প্রমাণ করতে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। সম্মেলনকে ঘিরে কনসার্ট হওয়ার কথা ছিল কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর ব্যয় সংকোচনের কথা বলেছেন সেই বিষয়টি মাথায় রেখে আমরা নান্দনিকতা বজায় রেখে করার চেষ্টা করছি।

সাদ্দাম হোসেন আরও বলেন, একটি সম্মেলনের মাধ্যমে একদিকে যেমন নতুন নেতৃত্ব আসে অন্যদিকে সংগঠনের আদর্শ ও নীতিকে শিক্ষার্থীদের মাঝে ছড়িতে দিতে পারি। আগামী ৩ ডিসেম্বর অপরাজেয় বাংলার পাদদেশ থেকে যে স্লোগান ও হুঙ্কার উঠবে যা আগামী দিনে জাতীয় নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুতনয়া শেখ হাসিনার নিরন্তন ভূমিকাকে নিশ্চিত করবে।

আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনাকে নির্বাচিত করা শিক্ষার্থী ও তরুণ সমাজের কাছে দেশপ্রেমের দায়িত্ব ও পবিত্র আমানত উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের যে কোন আন্দোলনে যেমন, ডাকসু নির্বাচন, শিক্ষার পরিবেশ সমুন্নত রাখা, প্রশ্নফাঁস রোধ, আবাসন সংকট নিরসন, কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সমস্যাসমূহ নিরসন, খাদ্যের মানোন্নয়ন, প্রশাসনিক সেবাসমূহকে অটোমেশনের আওতায় আনাসহ বিভিন্ন শিক্ষার্থীবান্ধব বিষয়গুলো প্রমাণ করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শিক্ষার্থীদের আশা আকাঙ্ক্ষাকে বাস্তবায়নে চেষ্টা করে।

দীর্ঘ সাড়ে চার বছরের অধিক সময় ধরে পথচলায় গণমাধ্যম কর্মী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতিকে গঠনমূলক ও যৌক্তিক সমালোচনা করে ভুলগুলো দেখিয়ে পরামর্শ প্রদানে সহযোগিতা করায় তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস বলেন, ২০১৮ সালের ঢাবি শাখার বার্ষিক সম্মেলনের মাধ্যমে সেবছরের ৩১ জুলাই আমরা দায়িত্ব লাভ করি। দায়িত্ব গ্রহণের পর হতে আমাদের সকল মনোযোগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদেরকে আবর্তিত করে পরিচালিত হয়েছে। বঙ্গবন্ধুতনয়া শেখ হাসিনার অনুশাসনের সুচারু প্রতিপালনের মাধ্যমে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পবিত্র গঠনতন্ত্রের অনুসরণে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা এবং দলীয় ঘোষণাপত্রের আলোকে ছাত্রসমাজের প্রতি অঙ্গীকারসমূহ বাস্তবায়ন আমাদের পথচলাকে আলোকিত করেছে।

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের নেতৃবৃন্দ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত হল, অনুষদ ও ইনস্টিটিউট শাখাসমূহের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, আগামী ৩ ডিসেম্বর ঢাবির অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে বিকেলে ঢাবি ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

কেএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়