ক্যামেরুনে ভূমিধসে ১৪ জনের মৃত্যু

আগের সংবাদ

নোয়াখালী জেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু

পরের সংবাদ

সাদুল্লাপুরের ৩ ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ চলছে

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৮, ২০২২ , ১১:২৬ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৮, ২০২২ , ১১:২৬ পূর্বাহ্ণ

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার স্থগিতকৃত বনগ্রাম, জামালপুর ও কামারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) সকাল আটটা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত তিন ইউনিয়নের ২৯টি কেন্দ্রে ইভিএম এ ভোট গ্রহণ করা হবে। এই ৩ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ১৩ জন, সাধারণ সদস্য পদে ১৬৬ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৪৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এই তিনটি ইউনিয়নে মোট ভোটারের সংখ্যা ৬৮ হাজার ২৪৮ জন।

রিটানিং অফিসার ও গাইবান্ধা সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুল লতিফ বলেন, বনগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. মোখলেছুর রহমান (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. ফজলুল কাইয়ুম হুদা (আনারস), মো. শাহীন সরকার (চশমা) ও এটিএম শরিফুল আলম মিয়া উজ্জল (ঘোড়া)। এছাড়া এই ইউনিয়নে সাধারণ সদস্য পদে ৬৯ জন ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ১৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সাদুল্লাহপুর হাইস্কুল ভোটকেন্দ্রে উৎসবমুখর পরিবেশে চলছে ভোটগ্রহণ। ছবি: ভোরের কাগজ

কামারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী সুবল চন্দ্র সরকার (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. তাজুল ইসলাম (ঘোড়া), শাহ শওকত হোসেন মানিক (মোটরসাইকেল), মো. হাফিজার রহমান (আনরস), মো. লুৎফর রহমান (চশমা), মো. তরিকুল ইসলাম বংকু (অটোরিকশা) ও এআরএম মাহফুজার রহমান রাশেদ (টেবিল ফ্যান)। এছাড়া এই ইউনিয়নে সাধারণ সদস্য পদে ৫৩ জন ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ১২ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী জাহিদ হাসান শুভ ওরফে কাওছার মণ্ডল (ঘোড়া) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. রেজাউল করিম রেজা (আনারস)। এছাড়া এই ইউনিয়নে সাধারণ সদস্য পদে ৪৪ জন ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ১৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সাদুল্লাহপুর হাইস্কুল ভোটকেন্দ্রে নারীদের অংশগ্রহণে চলছে ভোটগ্রহণ উৎসব। ছবি: ভোরের কাগজ

সাদুল্লাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার রায় জানান, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য প্রতিটি কেন্দ্রে তিনজন পুলিশ কর্মকর্তাসহ পাঁচজন পুলিশ সদস্য ও ১৭ জন আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া পুলিশের ১৪টি মোবাইল টিম, তিনটি স্ট্রাইকিং ফোর্স, ২ প্লাটুন বিজিপি ও কয়েক প্লাটুন র‌্যাব নির্বাচনের দিন ভোটারদের নিরাপত্তা দিতে দায়িত্ব পালন করছেন।

সাদুল্লাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোছা. রোকসানা বেগম বলেন, নির্বাচনের দিন প্রতি ইউনিয়নে একজন করে মোট তিনজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন।

প্রসঙ্গত, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ষষ্ঠ ধাপে সাদুল্লাপুর উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করা হয়। কিন্তু সাদুল্লাপুর উপজেলা সদরকে পৌরসভা গঠন করার জন্য এই ৩ ইউনিয়নের কিছু এলাকাকে শহর ঘোষণার প্রাথমিক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এ কারণে এই তিন ইউনিয়নের নির্বাচন স্থগিত হয়। ফলে চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারি উপজেলার মাত্র আটটি ইউনিয়নের নির্বাচন সম্পন্ন হয়। পরবর্তীতে গত ১৭ অক্টোবর এই তিন ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠানের তফসিল ঘোষনা করা হয়।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়