প্রধানমন্ত্রীর জাপান সফর স্থগিত

আগের সংবাদ

ট্রাম্পকে ট্যাক্স রিটার্ন জমা দেয়ার নির্দেশ

পরের সংবাদ

শেখ কামাল সার্ক স্নুকার চ্যাম্পিয়নশীপ শুরু ২৬ নভেম্বর

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৪, ২০২২ , ৪:৪০ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৪, ২০২২ , ৫:২৩ অপরাহ্ণ

সম্প্রীতি, সৌহার্দ ও বন্ধুত্বের বন্ধনকে সুদৃঢ় করতে ঐতিহ্যবাহী ঢাকা ক্লাব ২য় বারের মত আয়োজন করতে যাচ্ছে ‘২য় শেখ কামাল সার্ক স্নুকার চ্যাম্পিয়নশীপ-২০২২’। আগামী ২৬ নভেম্বর থেকে ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ঢাকা ক্লাবে টুর্ণামেন্টটি অনুষ্ঠিত হবে। টুর্ণামেন্টটিতে বাংলাদেশের ৪ জনসহ মোট ১৪জন খেলোয়ার অংশগ্রহণ করবেন।

বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) দুপুরে টুর্ণামেন্ট উপলক্ষে ক্লাবের স্যামসন এইচ চৌধুরী সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। ঢাকা ক্লাব ও বাংলাদেশ বিলিয়ার্ডস এন্ড স্নুকার ফেডারেশন যৌথভাবে টুর্ণামেন্টটি আয়োজন করবে। টুর্ণামেন্টটির সহযোগী পৃষ্ঠপোষক হিসাবে থাকছে ডাচ বাংলা ব্যাংক লি: এবং শিপার্স কাউন্সিল অব বাংলাদেশ।

সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা ক্লাবের সভাপতি খন্দকার মশিউজ্জামান (রোমেল), পরিচালনা পর্ষদের সদস্যবৃন্দ, দৈনিক ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, বিলিয়ার্ডস সাব-কমিটির সদস্য, বাংলাদেশ বিলিয়ার্ডস এন্ড স্নুকার ফেডারেশনের সাধারন সম্পাদক সৈয়দ মাহবুব, টুর্নামেন্ট ডিরেক্টর আসফারুল ইসলাম, ডিরেক্টর ইনচার্জ আশরাফুর রহমান ও অন্যান্য সদস্য এবং বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, পাকিস্তান, আফগানিস্থান ও শ্রীলংকার অংশগ্রহণকারী দেশের কর্মকর্তা ও খেলোয়াড়বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ছবি: ভোরের কাগজ

এসময় কাব সভাপতি খন্দকার মশিউজ্জামান বলেন, ঢাকা কাব লিমিটেড বাংলাদেশের একটি ঐতিহ্যবাহী এবং প্রাচীনতম সামাজিক ক্লাব। ভবিষ্যতে ত্রিয়াঙ্গনে ঢাকা ক্লাবের অংশগ্রহণ এবং পৃষ্ঠপোষকতা অব্যাহত থাকবে। দ্বিতীয় সার্ক স্নুকার চ্যাম্পিয়নশিপ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ এবং সার্কভুক্ত দেশ ভারত, আফগানিস্তান, নেপাল, পাকিস্তান এবং শ্রীলঙ্কার নেতৃস্থানীয় স্নুকার খেলোয়াড়রা অংশগ্রহণ করবেন। আমরা বিশ্বাস করি শেখ কামাল সার্ক স্নুকার চ্যাম্পিয়নশিপ ইনডোর গেইম হিসেবে ক্রিয়া অঙ্গনে বিশেষ ভাবে স্বীকৃতি পাবে।

ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত বলেন, ক্রিয়া ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অনেক অগ্রগতি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগ্রহ আমাদের স্পোর্টস এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার। শেখ কামাল শুধু ক্রিয়া অঙ্গন না সংস্কৃতিক অঙ্কনেও উজ্জ্বল নত্র ছিলেন। ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট আমরা তাকে হারিয়েছি। তিনি থাকলে হয়তো বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন আজকে অনন্য উচ্চতায় পৌঁছে যেত।

আগামী ২৬ নভেম্বর টুর্নামেন্টের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। আগামী ১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৭ টায় পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে টুর্নামেন্টের সমাপ্তি হবে। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির উপস্থিত থাকবেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়