তাজরীন ট্র্যাজেডির ১০ বছর

আগের সংবাদ

ঝিকরগাছায় ১৯ শিক্ষক ও ১০ কর্মচারীকে সরকারীকরণ

পরের সংবাদ

জিরুডের অন্যরকম হাফসেঞ্চুরি

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৪, ২০২২ , ১২:০১ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৪, ২০২২ , ১২:০১ অপরাহ্ণ

কাতার বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে জয় পেয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। অস্ট্রেলিয়াকে ৪-১ ব্যবধানে হারিয়ে শুভ সূচনা করেছে দিদিয়ে দেশমের শিষ্যরা। দলের হয়ে জোড়া গোল করেন অলিভার জিরুড। জোড়া গোলের সুবাদে জিরুড ছুঁয়ে ফেলেন ফ্রান্সের সর্বোচ্চ গোলদাতা থিয়েরি অঁরিকে। এতেই গোলের অন্যরকম হাফসেঞ্চুরি করেন এই এসি মিলান তারকা।

১৯৯৭ থেকে ২০১০ পর্যন্ত ১২৩ ম্যাচে ৫১ গোল করে এতদিন ফ্রান্সের হয়ে সবচেয়ে বেশি গোলের রেকর্ড ছিল অঁরির। জিরুড ভাগ বসালেন ১১৫ ম্যাচ খেলে। ফ্রান্সের মূল একাদশে খেলারই কথা ছিল না জিরুডের। ব্যালন ডি’অর জয়ী করিম বেনজেমাই ছিলেন ফ্রান্সের প্রধান স্ট্রাইকার। তবে ইনজুরির কারণে বেনজেমা বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ায় মূল একাদশে জায়গা হয় জিরুডের। বিশ্বকাপের আগে জাতীয় দলের হয়ে তার গোল ছিল ৪৯টি। হাফসেঞ্চুরির জন্য দরকার ছিল ১ গোল আর অঁরিকে ছুঁতে তার দরকার ছিল মাত্র দুটি গোল। এদিকে এই ম্যাচে জোড়া গোল করে জিরুড ছুঁয়ে ফেলেন ফ্রান্সের সাবেক তারকা থিয়েরে অঁরিকে। যৌথভাবে হয়ে যান জাতীয় দলের সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা। অঁরি ফ্রান্সের জার্সি গায়ে সর্বোচ্চ ৫১ গোল করেছিলেন। এবারের বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচেই জোড়া গোল করে জিরুড স্পর্শ করলেন তাকে। এখন তার সামনে এগিয়ে যাওয়ার পালা।

গতবার বিশ্বকাপ জিতলেও আলো ছড়াতে পারেননি ফ্রান্সের ফরোয়ার্ড অলিভার জিরুড। তবে এবারের বিশ্বকাপটা দারুণভাবে শুরু করলেন এই ফরাসি তারকা। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামলে ফ্রান্স ৯ মিনিটেই গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়ল। পিছিয়ে পড়া সেই ম্যাচে জোড়া গোল করে আগের বিশ্বকাপে গোল না পাওয়া জিরুড হয়ে গেলেন হিরো। ১৬ বছর পর চ্যাম্পিয়ন দল হিসেবে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে জয় তুলে নেয়ার কৃতিত্ব দেখায় তারা। এর আগে ২০০৬ সালে ব্রাজিল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন হিসেবে প্রথম ম্যাচ জিতেছিল। ২০১০ সালে ইতালি, ২০১৪ সালে স্পেন ও ২০১৮ সালে জার্মানি চ্যাম্পিয়ন হিসেবে প্রথম ম্যাচ হেরেছিল। ২০১১ সালে জাতীয় দলের হয়ে অভিষেক হয় জিরুডের। ২০১৮ বিশ্বকাপ ছাড়াও তিনি ২০১২ উয়েফা ইউরো, ২০১৪ ফিফা বিশ্বকাপ এবং ২০১৬ উয়েফা ইউরো, ২০২০ উয়েফা ইউরো, ২০২২ উয়েফা ইউরোর মতো প্রতিযোগিতায় ফ্রান্সের হয়ে খেলেছেন। কাতার বিশ্বকাপের ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শুরুতেই ৯ মিনিটে গোল খেয়ে বসে বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স।

কিন্তু তারা যে ২০২২ বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট তা বুঝিয়ে দিল। আল ওয়াকরার আল জানোব স্টেডিয়ামে অস্ট্রেলিয়াকে ৪-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে দুর্দান্ত সূচনা করল দিদিয়ের দেশমের দল। ফ্রান্সের হয়ে জোড়া গোল করেন জিরুড। ১টি করে গোল করেন এমবাপ্পে ও র?্যাবিয়ট এবং সকারুদের পক্ষে গুডউইন। ইনজুরিতে জর্জরিত দলটি ম্যাচের শুরুর দিকে ছিল ছন্দহীন। ম্যাচের ৯ মিনিটে ক্রেইগ গুডউইনের গোলে লিড নেয় অস্ট্রেলিয়া। তবে তারা গোল পরিশোধ করে ম্যাচের ২৭ মিনিটে। কর্নার থেকে হার্নান্দেজের বাড়ানো বল হেড করে জালে জড়ান র‌্যাবিয়ট। সমতায় ফেরার পর অপ্রতিরোধ্য হয়ে ওঠে ফ্রান্স। এরপর খেলার গতি বাড়িয়ে দেয় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। ম্যাচের ৩২ মিনিটে এগিয়ে যায় ফ্রান্স। আর প্রথম গোলের দেখা পান জিরুড। এটিই ছিল এই তারকার জাতীয় দলের হয়ে ৫০তম গোল। ২-১ গোলের লিড নিয়ে প্রথমার্ধ শেষ করে ফ্রান্স। বিরতির পর খেলার গতি আরো বাড়িয়ে দেয় ফ্রান্স। দ্বিতীয়ার্ধে আরো দুটি গোলের দেখা পায় তারা। ম্যাচের ৬৮ মিনিটে দলের হয়ে ৩য় গোলটি করেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। অস্ট্রেলিয়ার জালে শেষ গোলটিও করেন জিরুড। ম্যাচের ৭১ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোলের দেখা পান এই তারকা। এতেই ছুঁয়ে ফেলেন ফ্রান্সের সাবেক কিংবদন্তী অঁরিকে। শেষ পর্যন্ত ৪-১ গোলের ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে দিদিয়ে দেশমের শিষ্যরা।

কাতার বিশ্বকাপে ফ্রান্সের দ্বিতীয় ম্যাচ আগামী ২৬ নভেম্বর। বিপক্ষ ডেনমার্ক। আর গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে আগামী ৩০ নভেম্বর তারা খেলবে তিউনিসিয়ার বিপক্ষে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়