মাঙ্কিপক্সের নাম পরিবর্তনের পরিকল্পনা

আগের সংবাদ

বিশ্বকাপের মঞ্চে ছোট দলের বড় চমক

পরের সংবাদ

ইংল্যান্ডকে অনেক দূর নিয়ে যাবেন সাকা

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৩, ২০২২ , ১০:৪৬ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৩, ২০২২ , ১০:৪৬ পূর্বাহ্ণ

যে কোনো বড় টুর্নামেন্টের আগে ইংল্যান্ড ফুটবল শিবিরে স্লোগান থাকে ইটস কামিং হোম। কাতার বিশ্বকাপে বড় জয়ে অভিযান শুরু করল ইংল্যান্ড। এশিয়ার দেশ ইরানকে ৬-২ ব্যবধানে হারায় তারা। দলের হয়ে জোড়া গোল করেন তারকা খেলোয়াড় বুকায়ো সাকা। তাকে নিয়েই স্বপ্ন বুনছে ইংল্যান্ড।

ইংল্যান্ড জাতীয় দলে সাকার অভিষেক হয় ২০২০ সালে। জাতীয় দলের হয়ে এর আগে গোল ছিল মাত্র ৪টি। তবে ইংলিম প্রিমিয়ার লিগে দরুন ছন্দে ছিলেন আর্সেনালের এই তারকা। যে কারণে হ্যারি কেনদের সঙ্গে বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ হয় বিশ্বকাপে মঞ্চে। বিশ্বকাপ অভিষেকে আলো কাড়ার ব্যাপারটা কিন্তু মোটেও সহজ কোনো কাজ নয়। বড় মঞ্চের অনভিজ্ঞতা আর বিশ্বকাপের চাপ এই দুই মিলে নতুনদের জন্য বিষয়টিকে করে তোলে বেশ কঠিন।

তবে এসব কোনো কিছুকেই পাত্তা দিলেন না ইংলিশ ফরোয়ার্ড বুকায়ো সাকা। বিশ্বকাপ অভিষেকেই জোড়াগোল করে ইরানকে গোলবন্যায় ভাসানোয় বিরাট অবদান রাখলেন ২১ বছর বয়সি এ ফরোয়ার্ড। দল ও নিজের এমন সাফল্যে উচ্ছ¡সিত সাকা ম্যাচশেষে বলেন, এই অনুভূতি বলে বোঝাতে পারব না। অসাধারণ। আমি খুব খুশি। অনেক গর্বিত, জয়ও পেয়েছি আমরা। আমাদের ভালো শুরুর প্রয়োজন ছিল। টুর্নামেন্টে আসার আগে আমরা সেরাটা খেলতে পারিনি। এখানে আমরা সবাইকে দেখিয়েছি, আমাদের মান কী এবং আমরা কী করতে পারি।

ম্যাচের শুরু থেকে আক্রমণাত্মক খেললেও ৩৫ মিনিটে এসে গোলের দেখা পায় ইংল্যান্ড। দুর্দান্ত হেডে ইরানের গোলের তালা খোলেন জুড বেলিংহ্যাম। ৪৩ মিনিটে গোল করে ব্যবধান বাড়ান বুকায়ো সাকা। প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে তৃতীয় গোল করেন রাহিম স্টার্লিং। ম্যাচের ৬২ মিনিটে জোড়াগোল পূর্ণ করেন সাকা। রহিম স্টার্লিং থেকে বল পেয়ে দ্বিতীয় গোল করতে ভুল করেননি তিনি। ডি বক্স থেকে দারুণ দক্ষতায় বাঁ দিক দিয়ে নিচু শটে লক্ষ্যভেদ করে। এ গোলে হালি পূর্ণ করে ইংলিশরা।

৬৫ মিনিটে ইংলিশদের জালে বল জড়ান মেহদি তারেমি। ম্যাচের ৭১ মিনিটে গোল করেন র‌্যাশফোর্ড। ম্যাচের ৮৯ মিনিটে খেলার ব্যবধান ৬-১ করেন গ্রেলিশ। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ের ১৩ মিনিটে ইরানের হয়ে ব্যবধান কমান মেহদি তারেমি। পেনাল্টি থেকে নিজের দ্বিতীয় গোল পূর্ণ করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ৬-২ ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে হ্যারি কেনের দল। মাঠের ফুটবলে সাম্প্রতিক সময়টা তেমন ভালো কাটছিল না ইংল্যান্ডের। কিন্তু বিশ্বকাপের শুরুতেই সেই হতাশা ঝেড়ে ফেলল হ্যারি কেনের দল।

এর আগে ২০২০ ইউরো কাপের ফাইনালে পেনাল্টি মিস করে খলনায়ক বনে যান সাকা। তবে কীভাবে ফিরে আসা যায় সেটাই বিশ্বকাপের মতো বড় মঞ্চে প্রমাণ করলেন তিনি। সাকার নৈপুণ্যে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে তার ক্লাব আর্সেনাল রয়েছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। নিয়মিত গোল করে যাচ্ছিলেন এই ফরোয়ার্ড। তবে বিশ্বকাপে খেলা অনেকটাই অনিশ্চিত ছিল এই তারকার। প্রিমিয়ার লিগে নটিংহ্যাম ফরেস্টের বিপক্ষে দলের ৫-০ গোলে জয়ের ম্যাচে শুরুর একাদশে ছিলেন আর্সেনাল ফরোয়ার্ড সাকা।

তবে ম্যাচ চলাকালে গোড়ালিতে চোট পান তিনি। তবে ২৬তম মিনিটে ফের পড়ে গেলে তাকে তুলে নেন কোচ মিকেল আর্তেতা। শঙ্কা নিয়েও বিশ্বকাপ খেলতে এস জয়ের নায়ক বনে যান এই তরকা। ইংল্যান্ডকে অনেক দূর নিয়ে যাবেন এই তারকা এমনটাই আশা করছেন ইংল্যান্ড সমর্থকরা।

কেএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়