খল অভিনেতা মুকুল তালুকদার আর নেই

আগের সংবাদ

আগামী বছর ভারত থেকে তেল আমদানি শুরুর আশা

পরের সংবাদ

দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় দুরন্ত বিপ্লবের, পিবিআইয়ের পর ডিবি

প্রকাশিত: নভেম্বর ২০, ২০২২ , ১:৫০ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২০, ২০২২ , ১:৫০ অপরাহ্ণ

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পর ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখাও জানালো জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাবেক জিএস দুরন্ত বিপ্লবের মৃত্যু দুর্ঘটনাজনিত কারণে। মর্নিং সান-৫ নামে একটি লঞ্চ আরোহী বিপ্লবের নৌকায় ধাক্কা দিলে তিনি ডুবে গিয়ে মারা যান। এ ঘটনায় লঞ্চের ৬ জনকে গ্রেপ্তার করে ডিএমপির গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। তারা হলেন, ওই লঞ্চের মাস্টার হাফেজ মো. সাইদুর রহমান (৩৮) ও আলামিন (৩৫), ইঞ্জিন ড্রাইভার মো. মাসুদ রানা (৩৮) এবং ইমন হোসেন (২৩), সুকানি মো. সালমান (২১) ও সুপারভাইজার ইব্রাহীম (২৯)।

রবিবার (২০ নভেম্বর) দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া এন্ড পাবলিক রিলেশন্স সেন্টারে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। ডিবি লালবাগ বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) মশিউর রহমান বলেন, গত ৭ নভেম্বর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র ও ছাত্রলীগের জিএস দুরন্ত বিপ্লব ঢাকা জেলাধীন কেরানীগঞ্জ থানার কোনাখোলা এলাকা থেকে জিনজিরা- সোয়ারিঘাট হয়ে ঢাকায় আসার পথে নিখোঁজ হন। পাঁচ দিন পর নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বুড়িগঙ্গা নদীতে ভাসমান অবস্থায় একজনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। সেদিন রাতে মরদেহটি নিখোঁজ দুরন্ত বিপ্লবের বলে নিশ্চিত করেন তার আত্মীয় স্বজন। এই নিখোঁজ সংক্রান্তে প্রথমে একটি সাধারন ডায়েরি ও পরে মৃত্যু সংক্রান্ত নিয়মিত মামলা হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় ডিএমপির ডিবি লালবাগ বিভাগ মামলাটির ছায়া তদন্ত শুরু করে। তদন্তকালে একাধিক টিম ঢাকা মহানগরী ও কেরানীগঞ্জের বিভিন্ন জায়গায় ধারাবাহিক অভিযান চালিয়ে মৃত্যুর ঘটনায় জড়িত ৬ জনকে কেরানীগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তারে সমর্থ হই আমরা।

তিনি আরো বলেন, দুর্ঘটনার দিন দুরন্ত বিপ্লব তার কর্মচারী হেলালকে সাথে নিয়ে বিকেল চারটা ৪৪ মিনিটের দিকে দিকে কুরিয়ার সার্ভিস বয় গোলাম রাব্বানীর কাছে কিছু সবজির প্যাকেট হস্তান্তর করে বিকেল ৫টা ৫৫ মিনিটের দিকে নূর ফিলিং স্টেশনের কাছাকাছি রাস্তায় ঢাকা থ ১১-৫৮৭৩ সিএনজি অটোরিকশাতে উঠে। ৩-৪ জন যাত্রী নিয়ে শেয়ারে চলা অটো ড্রাইভার বিল্লালের ভাষ্যমতে সন্ধ্যার দিকে জিনজিরা ঘাটে নামিয়ে দেয়া হয় তাকে।

সিসিটিভি ফুটেজ ও ডিজিটাল মুভমেন্ট বিশ্লেষণ করে গোয়েন্দা পুলিশ নিশ্চিত হয়, জিনজিরাঘাট কামরাঙ্গীরচরের মুসলিমবাগ এলাকার নদীর পাড় এলাকাতে ভিক্টিম বিপ্লবের সর্বশেষ অবস্থান ছিল। এখানে অবস্থান করেও সে কুরিয়ার সার্ভিসবয় গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে প্রেরিত সবজি সম্পর্কে একাধিকবার কথা বলেছে।

ডিসি মশিউর বলেন, জিনজিরা ঘাট থেকে সোয়ারীঘাটে চলাচলকারী খেয়া নৌকার মাঝি শামসু মিয়ার তথ্য মতে মাগরিব নামাজের আগে/পরে ৫ জন যাত্রীকে নিয়ে তার নৌকা মাঝ নদীতে আসলে ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া মর্নিং সান-৫ নৌকাকে ধাক্কা দেয়। এতে নৌকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে তলিয়ে যায়। যাত্রীরা পানিতে নিমজ্জিত হয়। কিছুক্ষণের মধ্যে অন নৌকা এসে কয়েকজনকে উদ্ধার করতে পারলেও একজন ডুবে যায়। ডুবে যাওয়া এই যাত্রীই নিহত ভিকটিম দুরন্ত বিপ্লব বলে জানা যায়। সব কিছু বিশ্লেষণ করে নিশ্চিত হওয়া গেছে দুর্ঘটনাতেই তার মৃত্যু হয়।

এনজে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়