অনেক কিছু এখনো শেখার বাকি: রুনা লায়লা

আগের সংবাদ

সরকার হটানোই বিএনপির মূল চ্যালেঞ্জ

পরের সংবাদ

সাহিত্যিককে হেয় করে প্রশ্ন

কারিগরি বোর্ডের ৩ শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৭, ২০২২ , ৮:১১ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ১৭, ২০২২ , ৮:১৬ অপরাহ্ণ

এবারের এইচএসসি-সমমান পরীক্ষায় কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের বাংলা-২ পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে জনপ্রিয় সাহিত্যিক ও সাংবাদিক আনিসুল হককে হেয় করার ঘটনায় প্রশ্নপ্রয়ণকারী ও মডারেটরদের সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পেয়েছে তদন্ত কমিটি। বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) জড়িতদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করেছে কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের গঠিত তদন্ত কমিটি।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, বোর্ডের আর কোনো কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত না রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী সপ্তাহে এই চিঠি পাঠানো হতে পারে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন তদন্ত কর্মকর্তা বলেন, প্রশ্নপত্রটি প্রণয়নকারী ময়মনসিংহের মহাকালী গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক সাখাওয়াত হোসেন এবং পরিশোধন বোর্ডের সভাপতি নাটোরের সিংড়া উপজেলার টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক পারভীন আক্তার ও সদস্য ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার কারিগরি স্কুল অ্যান্ড কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক শিউলী বেগমকে আমরা শোকজ করেছিলাম। এর মধ্যে সাখাওয়াত হোসেন তদন্ত কমিটিকে জানিয়েছেন, তিনি আমিনুল হক লিখতে চেয়েছিলেন, ভুলক্রমে আনিসুল হক লিখে ফেলেছেন। উদ্দীপকে যেহেতু নাম লিখতে হয়, সেই হিসেবে তিনি নামটি লিখেছেন। এজন্য তিনি ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন।

তিনি জানান, মডারেটরদের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল তারা কেন প্রশ্নটি ঠিকভাবে দেখেননি। জবাবে দুই মডারেটরই জানিয়েছেন, তারাও বিষয়টি সেইভাবে খেয়াল করেননি। এজন্য তারা ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন। অভিযুক্তদের জবানবন্দি যাচাই-বাছাইসহ বিভিন্ন দিক বিবেচনা করে আমরা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সুপারিশ করেছি।

এ বিষয়ে কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান আলী আকবর খান জানান, অভিযুক্ত শিক্ষকরা খুবই মর্মাহত। তারা তাদের ভুলের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। তবে তদন্ত কমিটি সুপারিশ করেছে এবং আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি তাদের আর বোর্ডের কোনো কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত রাখব না। এ ছাড়াও তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আমরা মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করব। মন্ত্রণালয় বাকি ব্যবস্থা নেবে। আমাদের তদন্ত কমিটি আমার কাছে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিয়েছে। আমি আগামী সপ্তাহেই রিপোর্টটি মন্ত্রণালয়ে পাঠাবো।

এমকে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়