দাম্পত্য কলহ নাকি সিনেমার প্রচারণা কৌশল!

আগের সংবাদ

পাঠকের ভালোবাসায় জীবন্ত হুমায়ূন আহমেদ

পরের সংবাদ

ফরিদপুরের গণসমাবেশ

সভাস্থলে জড়ো হচ্ছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা

প্রকাশিত: নভেম্বর ১১, ২০২২ , ৯:১৯ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ১১, ২০২২ , ৯:১৯ পূর্বাহ্ণ

ফরিদপুরে ১২ নভেম্বরের বিভাগীয় সমাবেশে অংশ নিতে প্রথম দল হিসেবে শরিয়তপুর থেকে বিএনপির কয়েকশ নেতাকর্মী জনসভাস্থল আব্দুল আজিজ ইনস্টিটিউট মাঠে জড়ো হয়েছেন। বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহগণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খোকন তালুকদারের নেতৃত্বে বুধবার রাত ১০টার দিকে তারা সমাবেশস্থলে পৌঁছান। এই নেতাকর্মীরা জনসভাস্থলেই রাত যাপন করেন।

শরিয়তপুর জেলা বিএনপির সদস্য গাউসুর রহমান জানান, রাত ৮টার দিকে তারা চারটি ট্রাকযোগে শরিয়তপুর থেকে রওনা দিয়ে রাত ১০টার দিকে গণসমাবেশস্থলে এসে পৌঁছান। তাদের সঙ্গে খোকন তালুকদার ছাড়াও শরিয়তপুর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব জাহানদার আলী ও নেতাকর্মীরা রয়েছেন। এছাড়া ফরিদপুরের পার্শ্ববর্তী রাজবাড়ী, মাগুরা, ঝিনাইদহ, গোপালগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জ জেলা থেকে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ফরিদপুরে এসেছেন।

বিএনপি নেতা খোকন তালুকদার জানান, প্রথম দল হিসেবে বুধবার রাতে শরিয়তপুর থেকে নেতাকর্মীদের একটি মাত্র অংশ যোগ দিয়েছেন। প্রায় ৫-৬ হাজার নেতাকর্মী শরিয়তপুর জেলা থেকে এই গণসমাবেশে যোগ দেবেন।

ফরিদপুরের এই বিভাগীয় গণসমাবেশের সমন্বয়ক শামা ওবায়েদ ইসলাম জানান, সরকার এই গণসমাবেশে আসা জনস্রোত বাধাগ্রস্ত করতে নানাভাবে বাধা দিচ্ছে। এজন্য নেতাকর্মীরা আগেভাগেই সমাবেশস্থলে আসছেন।

সারাদেশে বিভাগীয় গণসমাবেশের প্রধান সমন্বয়ক বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন এর আগে সাংবাদিকদের জানান, ১২ নভেম্বর বেলা ১১ টায় গণসমাবেশ শুরু হবে। তবে যেহেতু পথে পথে নানা বাধা এবং গণসমাবেশে জনসমাগম সংকুচিত করতে সরকার বিঘœ ঘটাচ্ছে তাই নির্ধারিত সময়ের আগে থেকেই এই গণসমাবেশ শুরু হবে।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার পর্যন্ত চলবে ফরিদপুরের এই বিভাগীয় গণসমাবেশ। এরপর প্রথম ধাপের কর্মসূচি শেষে ১০ ডিসেম্বর ঢাকার মহাসমাবেশের মাধ্যমে দ্বিতীয় ধাপের কর্মসূচি শুরু হবে।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন রঞ্জন সরকার জানান, সমাবেশকে ঘিরে পুলিশের তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষা, জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিতে পুলিশ কাজ করছে।

এদিকে আজ শুক্রবার বিকেলে ফরিদপুর শহরে মিছিল করার ঘোষণা দিয়েছে জেলা আওয়ামী লীগ। বিএনপির গণসমাবেশের আগেই সরকারের শান্তি ও উন্নয়নের বার্তা ছড়িয়ে দিতে মিছিলটি বের হবে বলে জানানো হয়েছে। মিছিলটি আলীপুর এলাকার শেখ রাসেল স্কয়ার থেকে শুরু হয়ে রাজেন্দ্র কলেজ মাঠে গিয়ে শেষ হবে। ফরিদপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. ইশতিয়াক আরিফ বলেন, বিএনপি সমাবেশ ও আন্দোলনের নামে দেশের বিভিন্ন স্থানে হামলা, ভাংচুর, জ্বালাও পোড়াও করছে। এতে জনগণের ভোগান্তি হচ্ছে। গণতন্ত্র হুমকির মুখে পড়ছে। এ অবস্থায় আমরা চুপ করে বসে থাকতে পারি না।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়