বিএনপিকে ডিসেম্বরে কোনো ছাড় নয়

আগের সংবাদ

দেশ ও জনগণের প্রশ্নে আ. লীগ অবিচল

পরের সংবাদ

বিএনপির মহাসমাবেশ শেষ

বরিশালে যানবাহন চলাচল শুরু

প্রকাশিত: নভেম্বর ৫, ২০২২ , ৮:৪৯ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ৫, ২০২২ , ৯:০২ অপরাহ্ণ

বিএনপির মহাসমাবেশ শেষ হওয়ার পর বরিশাল-ঢাকা রুটে লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে। ভোলা-বরিশাল রুটে চলাচল শুরু করেছে স্পিডবোড। তবে অভ্যন্তরীণ রুটে এখনো লঞ্চ চলাচল শুরু হয়নি। অন্যদিকে বরিশাল কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল নথুল্লাবাদ থেকে অভ্যন্তরীণ ও দুরপাল্লার বাস রাত ১০টা থেকে চলাচল করবে বলে জানা গেছে। এছাড়া নগরীতে সকল ধরনের যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। বিকাল থেকে ভোলার ভেদুরিয়া-বরিশাল রুটে চলেছে স্পিডবোট।

বিআইডব্লিউটিএ বরিশালের নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের পরিদর্শক কবির হোসেন জানান, বরিশাল নদী বন্দর থেকে ঢাকার উদেশ্যে সুন্দরবন-১১, পিন্স আওলাদ ও পারবত-১৮ লঞ্চ যাত্রী নিয়ে যথাসময় ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে।

এদিকে বরিশাল থেকে অভ্যন্তরীণ ও দুরপাল্লা রুটের বাস চলাচল শনিবার রাতে শুরু হয়নি। নগরীর নথুলতাবাদ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল কেন্দ্রিক বরিশাল বাস মালিক গ্রুপের সভাপতি গোলাম মাশরেক বাবলু শনিবার রাত ৮টায় বলেন, আমাদের ধর্মঘটে আল্টিমেটাম ছিল রোববার সকাল ৬টা পর্যন্ত। তাই রোববার সকালের আগে বাস চলাচলের কোনো সম্ভাবনা নেই।

রূপাতলী বাস টার্মিনাল কেন্দ্রিক বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাওছার হোসেন শিপন জানান, আমরা মালিকরা সভা করেছি। সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে, বরিশাল বিভাগের দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলের ১৭ রুটে আমরা রবিবার সকাল থেকে যাত্রী পরিবহন শুরু করবো।

এর আগে বিএনপির সমাবেশ ঘিরে ধর্মঘটের কারণে বরিশালে খেয়া পারাপারের ট্রলার, লঞ্চ, বাস, মাইক্রোবাস, মাহিন্দ্রা টেম্পু, সিএনজি চালিত অটোরিকশা চলাচল বন্ধ থাকে। ফলে বিএনপির সমাবেশে আগত নেতাকর্মীদের সঙ্গে সাধারণ মানুষও ভোগান্তিতে পরেন। বাধ্য হয়ে অটোভ্যান, অটোরিকশা, বাইসাইকেল, মোটরসাইকেল, ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে সড়ক-মহাসড়ক হয়ে সাধারণ মানুষ গন্তব্যে যায়।

অপরদিকে খেয়া পারাপারের নৌকা-ট্রলার বন্ধ হয়ে যাওয়ায় নদী পথেও মানুষের ভোগান্তিতে পড়ে। অনেকেই বাধ্য হয়ে জেলেদের নৌকায় নদী পাড়ি দেয়। আর নদীবেষ্টিত বরিশালের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশে আসা মানুষ ঝুঁকি নিয়ে বিশাল বিশাল নদী পাড়ি দেন ট্রলার, বাল্কহেডে। নিয়মিত গণপরিবহনগুলো বন্ধ থাকায় এসব যানবাহনের চালকদের বিরুদ্ধে বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ তোলেন যাত্রীরা।

এনজে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়