নাগরপুরে কাভার্ডভ্যান ও ইজিবাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ১

আগের সংবাদ

বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ

পরের সংবাদ

গ্যাঞ্জাম লাগিয়ে ছিনতাই করে তারা

প্রকাশিত: অক্টোবর ৫, ২০২২ , ১:১৮ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ৫, ২০২২ , ১:২০ অপরাহ্ণ

উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকা থেকে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা হলো- মো. আল রাজু (২৫) ও মো. সুমন খান (২৯)। গ্রেপ্তারকৃতরা গ্যাঞ্জাম পার্টির সদস্য। গ্যাঞ্জাম লাগিয়ে ছিনতাই করে থাকে তারা।

বুধবার (৫ অক্টোবর) ভোরের কাগজকে বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন উত্তরা পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মহসীন। গ্রেপ্তারকৃতরা রাতে পথচারী কিংবা গাড়িচালকদের সঙ্গে পরিকল্পিতভাবে ঝগড়া লাগান। এরপর কৌশলে তাদের টাকা, পয়সা, মোবাইল, ল্যাপটপ ছিনিয়ে পালিয়ে যান।

ইচ্ছাকৃতভাবে ঝগড়া লাগিয়ে ছিনতাই করে বলে স্থানীয়দের কাছে তারা ‘গ্যাঞ্জাম পার্টি’ নামেই পরিচিত পেয়েছেন। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে একই অভিযোগে দুইটি মামলা রয়েছে। গ্রেপ্তার হয়ে জেলও খেটেছেন। তবে বেরিয়ে একই কাজে ফের জড়িয়ে পড়েন তারা।

ওসি মো. মহসীন জানান, গ্রেপ্তার রাজু ঢাকা জেলার তুরাগ থানার ভাবনারটেক এলাকার নুর আলমের ছেলে। তিনি একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। অপর আসামি সুমন পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার রুস্তম আলী খানের ছেলে। গ্যাঞ্জাম পার্টির হোতা রাজুর ৮-১০ জনের একটি গ্রুপ আছে। তারা রাতে উত্তরাসহ ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় আড্ডা দেন। এরপর কোন পথচারীকে একা পেলে তার সঙ্গে একজন পরিকল্পিতভাবে ধাক্কা খেয়ে, এই আমারে ধাক্কা দিলি ক্যান বলে ঝগড়া লাগিয়ে দেয়। এসময় বাকিরাও আশপাশ থেকে এসে তাকে মারধর শুরু করে। এরপর তার কাছে থাকা টাকা, পয়সা, মোবাইল হাতিয়ে পালিয়ে যায়। কোন গাড়িচালককে একা দেখলেও একজন ইচ্ছাকৃতভাবে গাড়ির সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে ‘আমাকে ধাক্কা দিলি ক্যান’ বলে ঝগড়া লাগিয়ে দেয়। এরপর মারধর করে সব হাতিয়ে নেয়।

তিনি আরো বলেন, গতকাল মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) গভীর রাতে একই কায়দায় উত্তরা পশ্চিম থানার ১৩ নং সেক্টরের ১৩ নং রোডে রাজু ও সুমন ঝগড়া লাগায় লুৎফুর রহমান নামে এক গাড়ি চালকের সঙ্গে। গাড়ি চালিয়ে আসার সময় হঠাৎ-ই তার গাড়ির সামনে এসে রাজু বলে উঠেন, আমাকে গাড়ি দিয়ে ধাক্কা দিলি ক্যান। এ সময় তারা লুৎফুরকে মারধর করে টাকা, মোবাইল ছিনিয়ে নিতে চাইলে তিনি চিৎকার শুরু করেন। কিছু দূরে থাকা পুলিশের টহল টিম চিৎকার শুনে ঘটনাস্থলে যায় ও দুইজনকে আটক করে।

তাদের বিরুদ্ধে এর আগেও একই অভিযোগে দুইটি মামলা রয়েছে বলেও জানান ওসি।

এমকে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়