শিক্ষার্থীকে বলাৎকার: মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেপ্তার

আগের সংবাদ

স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

পরের সংবাদ

সম্প্রীতির নিদর্শন

দেয়ালের এক পাশে মসজিদ, অন্য পাশে মন্দির

প্রকাশিত: অক্টোবর ৩, ২০২২ , ৭:৪২ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ৩, ২০২২ , ৭:৪৪ অপরাহ্ণ

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে দেয়ালের একপাশে মোয়াজ্জিনের কণ্ঠে মিষ্টি আজান ও মুসল্লিদের নামাজ শেষ হলেই দেয়ালের অন্য পাশে মন্দিরে সুর উঠে উলুধ্বনির। যুগে পর যুগ ধরে এমনই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক অনন্য নিদর্শন বহন করছে কুলিয়ারচর সদর বাজারে অবস্থিত সাব রেজিস্টার জামে মসজিদ ও কালী দুর্গামন্দির।

শুধু তাই নয়, কুলিয়ারচর মৎস্য আড়ৎ গিয়ে দেখা মিলেছে আরেক সম্প্রীতির নিদর্শন। কুলিয়ারচরের প্রাচীন এ মৎস্য আড়তের একটি আড়ত ঘরে গিয়ে দেখা যায়, ঘরে এক পাশে ‘আল্লাহ ভরসা মৎস্য আড়ৎ’ এবং অন্য পাশে ‘শ্রী ভক্ত ফিস ট্রেডার্স’ নামের দুটি আলাদা আলাদা মৎস আড়ৎ একই রুমে পাশাপাশি বসে তাদের ব্যবসা পরিচালনা করছেন। প্রায় এক যুগ ধরে সম্প্রীতি নিদর্শন হিসেবে একই রুমে পাশাপাশি ব্যবসায় করে যাচ্ছে তারা।

একই চিত্র দেখা যায়, কুলিয়ারচর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে গিয়েও। মসজিদ আঙিনায় দিন রাত হিন্দু মুসলিমসহ সকল ধর্মের মানুষের আনাগোনা। মসজিদের বাথরুম, ওয়াশরুম সকল ধর্মের মানুষরা ব্যবহার করছে কোনো রকম বাধা ছাড়াই।

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে মৎস্য আড়তে সম্প্রীতির নিদর্শন। একটি ঘরের এক পাশে ‘আল্লাহ ভরসা মৎস্য আড়ৎ’ এবং অন্য পাশে ‘শ্রী ভক্ত ফিস ট্রেডার্স’ নামের দুটি আলাদা আলাদা মৎস আড়ৎ একই রুমে পাশাপাশি বসে তাদের ব্যবসা পরিচালনা করছেন। ছবি: ভোরের কাগজ

কথা হয় একই দেয়ালে নির্মিত সাব রেজিস্টার মসজিদের ইমাম মাওলানা হোসাইন আহমদের সাথে। তিনি জানান, প্রায় ১৯ বছর যাবত তিনি এ মসজিদে ইমামের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। মসজিদ ও লাগোয়া মন্দিরে উভয় ধর্মের মানুষজন তাদের নিজেদের মত ধর্ম পালন করে যাচ্ছেন। এতে কখনও কোনোদিন সমস্যা হয়নি। এই সময়ে কোনদিনও তাদের মধ্যে মনোমালিন্য হওয়ার কোন ঘটনা ঘটেনি।

প্রায় একই কথা জানান, মসজিদ লাগোয়া বাজার কালী দুর্গামন্দিরের সভাপতি দিলীপ কুমার সাহা। তিনি বলেন, একই আঙ্গিনায় অবস্থিত এ মসজিদ ও মন্দিরে নানা ধর্মীয় আনুষ্ঠান পালন হয়ে আসছে যুগ যুগ ধরে।

তিনি বলেন, আমি প্রায় ৩২ বছর ধরে এ মন্দিরের সভাপতির দায়িত্বে আছি। কিন্তু মন্দির লাগোয়া মসজিদ হওয়ার সত্ত্বেও কখনোই কোনো সমস্যা সৃষ্টি হয়নি। নির্বিঘ্নে আমরা আমাদের ধর্মীয় উৎসব পালন করে আসছি।

একই রুমে পাশাপাশি দুটি ভিন্ন ধর্মাবলম্বী ব্যবসা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ‘আল্লাহ ভরসা মৎস্য আড়ৎ’ এর মালিক মোঃ মিশু মিয়া বলেন, আমরা দু’জন আল্লাহ ভরসা মৎস্য আড়ৎ ও শ্রী ভক্ত ফিস ট্রেডার্স নামে একই ঘরে মিলেমিশে ব্যবসা করছি। দু’জন দুজনের ভাই-ভাইয়ের মতো একে অপরের কাজে সহযোগিতা করি।

শ্রী ভক্ত ফিস ট্রেডার্সের মৎস্য আড়তের মালিক যতীন্দ্র ভক্ত দাস বলেন, ঐতিহ্যবাহী কুলিয়ারচর মৎস্য আড়তে একই ছাদের নিচে একই ঘরে হিন্দু-মুসলমান মিলে ব্যবসা করে আসছি। এতে কখনোই কোনো ভেদাভেদ আমাদের মনেই আসেনি। একই ঘরে দু’জন দু’জনের ধর্মীয় অনুষ্ঠান করছি, প্রয়োজনে একে অপরের জিনিসপত্র ব্যবহার করে আসছি একটি পরিবারের মতই। আমরা দু’জন ভিন্ন ধর্মাবলম্বী বিষয়টি কখনোই মাথায় আসে না।

এ বিষয়ে কুলিয়ারচর সুশীল সমাজের প্রতিনিধি শেখ জহির উদ্দিন বলেন, এ সময়ে এসে এমন সম্প্রীতির বন্ধন দেখে মনে সাহস পাই। এমন সম্প্রীতির বন্ধন গোটা দেশসহ সকল মানুষে মাঝে ছড়িয়ে পড়ুক এই কামনা করি।

এমকে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়