তোয়াব খান : কীর্তিমান এক সাংবাদিক

আগের সংবাদ

বড় জয় দিয়েই সিরিজ ইংল্যান্ডের

পরের সংবাদ

কুমিল্লায় মণ্ডপের নিরাপত্তায় সক্রিয় আওয়ামী লীগ

প্রকাশিত: অক্টোবর ৩, ২০২২ , ১:০৯ পূর্বাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ৩, ২০২২ , ১:০৯ পূর্বাহ্ণ

এবারের দুর্গাপূজার নিরাপত্তায় কুমিল্লাতে নিয়োজিত আছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। গেল বছরের নাশকতার পর এবারের দুর্গোৎসবে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। উদ্‌যাপন নিয়ে শঙ্কা কাটাতে তৎপর রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও।

জানা গেছে, প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিনিধিদের সহযোগিতায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মনে এবার সহিংসতার শঙ্কা নেই বললেই চলে।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন এলাকা ও জেলার ১৭টি উপজেলায় ৭৯৪টি মণ্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। উৎসবের আমেজ ফিরে এসেছে প্রতিটি মণ্ডপে।

কুমিল্লার পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের নেতারা ব্যবস্থাপনা নিয়ে সন্তুষ্ট বলে জানান। তারা বলছেন, এবার আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রশাসনের বাড়তি তৎপরতা দেখছেন তারা। এতে অনেকটা ‘স্বস্তিতেই’ পূজা উদ্‌যাপনের প্রস্তুতি শেষ করেছেন। শনিবার মহাষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে সারা দেশের মতো কুমিল্লায় শুরু হয় হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ৫ দিনের সর্বজনীন শারদীয় দুর্গোৎসব।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি নগরীর ঋষি পট্রি কালিবাড়ি মণ্ডপের নিরাপত্তায় রয়েছেন কুমিল্লা নগরীর ৫ নম্বর ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ কে সামাদ সাগর ও একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কুমিল্লা মহানগর এর সাধারণ সম্পাদক যুবলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন মিঠু কর্মীদের নিয়ে পালা করে মণ্ডপের নিরাপত্তা দিচ্ছেন।

এ প্রসঙ্গে এ কে সামাদ সাগর বলেন, অসাম্প্রদায়িক চেতনা নিয়েই বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। সব ধর্মাবলম্বীরা নির্বিঘ্নে তাদের ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান পালন করবে, সম্প্রীতি বজায় থাকুক তাই আমরা মণ্ডপগুলোতে অবস্থান করছি। নাশকতা এড়াতে আমরা মন্দির পাহারা দিচ্ছি।

পূজা মণ্ডপের নিরাপত্তায় এমপি বাহারের নির্দেশনায় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্যদের দিয়ে প্রতিটি মণ্ডপের পাহারায় কমিটি করে দিয়েছেন।

তিনি এরই মধ্যে ঘোষণা দিয়েছেন এ বছর নানুয়ার দিঘির পাড়ের ওই মণ্ডপসহ প্রতিটি স্থানে সর্বোচ্চ সতর্কতায় পূজা উদ্‌যাপন করা হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এমপি বাহার বলেন, এ বছর আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক আছি। নানুয়ার দিঘির পাড়ে এবার অবশ্যই জাঁকজমক ভাবে পূজা হবে। এবার যদি কেউ কোনো পূজা মণ্ডপে নাশকতা করার চেষ্টা করে, সে পালিয়ে বাঁচতে পারবে না। এবার কোনো ষড়যন্ত্র হলে ষড়যন্ত্রকারীদের কঠোর হাতে দমন করা হবে। আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের পক্ষ থেকে কুমিল্লা নগরীর প্রতিটি পূজামণ্ডপ এলাকায় স্বেচ্ছাসেবী কাজ করবে।

এমকে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়