ভারতের শুভ সূচনা

আগের সংবাদ

সুখবর দিলেন অপু বিশ্বাস

পরের সংবাদ

বিএনপির ‘৩০ আসনে’র বক্তব্য তাদের বেলাতেই প্রযোজ্য : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: অক্টোবর ১, ২০২২ , ৭:৩৬ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১, ২০২২ , ৭:৩৬ অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপির ‘৩০ আসনে’র বক্তব্য তাদের বেলাতেই প্রযোজ্য, ইতিহাস তার সাক্ষী।

তিনি বলেন, ২০০৬ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত খালেদা জিয়া বলেছিলেন, সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ৩০টি আসনও পাবে না। অথচ ২০০৮ সালে দেশের ইতিহাসে অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে বিএনপিই ২৯টি আসন পেয়েছিল, ৩০টিও পূর্ণ হয়নি। সুতরাং মির্জা ফখরুল সাহেব যে কথাটি বলেছেন, সেটি বিএনপির বেলাতেই প্রযোজ্য। আগামীতে যে নির্বাচন হবে, আওয়ামী লীগ আবারও ধস নামানো বিজয় অর্জন করে সরকার গঠন করবে ইনশাআল্লাহ।
শনিবার (১ অক্টোবর) মোহাম্মদপুরে ইউল্যাব বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে শুক্রবার গাজীপুরে বিএনপি মহাসচিব বলেন ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ৩০টির বেশি আসন পাবে না।

তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া বিএনপি নির্বাচন হতে দেবে না- মির্জা ফখরুলের এমন বক্তব্যের জবাবে ড. হাছান বলেন, উনারা স্বপ্ন দেখতে পারেন, স্বপ্ন দেখতে দোষ নেই। তবে এই স্বপ্ন তাদের জন্য দুঃস্বপ্ন। আইন অনুযায়ী তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থায় ফিরে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। অন্যান্য গণতান্ত্রিক দেশেও নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচন হয়। আমাদের দেশেও সেভাবেই নির্বাচন হবে।

সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, বিএনপি সংঘাত চায়। তারা রাজনীতিকে সংঘাতের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। মুন্সিগঞ্জে নিজেদের কর্মীকে নিজেরা মেরেছে, ভবিষ্যতেও মারবে এবং সরকারের ওপর দায় চাপানোর চেষ্টা করবে। তারা তো এই রাজনীতিই করে। তারা তো হত্যার রাজনীতিই করে।

এর আগে ইউনিভার্সিটি অভ লিবারেল আর্টস বাংলাদেশের (ইউল্যাব) অষ্টাদশ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন তিনি। এসময় বিশ্ববিদ্যালয় মানুষকে পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার কারখানা হিসেবে বর্ণনা করে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তথ্যমন্ত্রী বলেন, জীবন একটি যুদ্ধক্ষেত্র, উজান ঠেলে পাড়ি দেয়া, শ্রোতের বিপরীতে এগিয়ে চলা। জীবন চলার পথে অনেক প্রিয়জনকে হারাতে হতে পারে, খানিক থমকে গেলেও যুদ্ধ বন্ধ করা যাবে না। ভারতের প্রয়াত রাষ্ট্রপতি এপিজে আবদুল কালামকে উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, জীবনযুদ্ধে জয়ী হতে যেমন স্বপ্ন থাকতে হবে, তেমনি স্বপ্নের সঙ্গে যুক্ত করতে হবে প্রচেষ্টা। ঘুমিয়ে স্বপ্ন নয়, যে স্বপ্ন ঘুমুতে দেয় না সেই স্বপ্ন আর প্রচেষ্টা মিলে এক ধরনের ইলেকট্রোম্যাগনেটিক ফোর্স তৈরি হবে, যা মানুষকে জীবনে জয়ের পথে এগিয়ে নেবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ইমরান রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, ট্রাস্টি বোর্ডের ভাইস প্রেসিডেন্ট কাজী আনিস আহমেদ এতে বক্তব্য রাখেন।
তোয়াব খানের মৃত্যুতে তথ্যমন্ত্রীর শোক : দৈনিক বাংলার প্রথম সম্পাদক, বঙ্গবন্ধুর প্রেস সচিব, একুশে পদকপ্রাপ্ত বরেণ্য সাংবাদিক তোয়াব খানের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখপ্রকাশ করে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘তায়াব খানের মৃত্যু এক কিংবদন্তি সাংবাদিকের জীবনাবসান, যিনি জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত সাংবাদিকতায় নিয়োজিত থেকেছেন। এসময় তিনি প্রয়াতের আত্মার শান্তি কামনা করেন ও তার শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়