লক্ষ্মীপুরে যুবলীগ নেতাকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা

আগের সংবাদ

জঙ্গিবাদ দমনে সামাজিক জাগরণ জরুরি

পরের সংবাদ

টানা ১০ দিন ছুটির ফাঁদে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর

প্রকাশিত: অক্টোবর ১, ২০২২ , ১২:২৫ পূর্বাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১, ২০২২ , ১২:২৫ পূর্বাহ্ণ

টানা ১০ দিন ছুটির ফাঁদে পড়লো বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর। হিন্দুধর্মাবলীদের শারদীয় দুর্গাপূজা ও মুসলিমদের ঈদে মিলাদুন্নবী এবং সাপ্তাহিক ছুটি সব মিলে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর ১০ দিন বন্ধ থাকবে। এসময় সব ধরনের আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। তবে ইমিগ্রেশন স্বাভাবিক থাকবে।

বাংলাবান্ধা শুল্ক স্টেশন ও স্থলবন্দর এবং ভারতের ফুলবাড়ি স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারকরা যৌথ ভাবে এ সিদ্ধান্ত নেন। আগামী ১০ অক্টোবর থেকে আবার স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চালু হবে।

জানা গেছে, হিন্দু ধর্মালম্বীদের শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে আগামী ১ থেকে ৬ অক্টোবর ৬ দিন ফুলবাড়ি স্থলবন্দরে সব ধরনের আমদানি-রপ্তানি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সে দেশের ব্যবসায়ীরা। শুক্রবার ও শনিবার বাংলাদেশে সাপ্তাহিক ছুটি হলেও শুল্ক স্টেশন ও স্থলবন্দর শনিবার খোলা থাকে। আগামী রোববার ৯ অক্টোবর ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে ব্যবসায়ীরা ৮ ও ৯ অক্টোবর ব্যবসায়িক কার্যক্রম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এসব মিলেই বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর ১০ দিন ব্যবসায়িক কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।

ফুলবাড়ি এক্সপোর্টারস এন্ড ইনপোর্টার অ্যাসোসিয়েশন এবং ট্রাক ওনার্স ওনার অ্যাসোসিয়েশনের যৌথ সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক ৬ দিন বন্দরের কার্যক্রম বন্ধে চিঠি উভয় দেশের শুল্ক স্টেশন কর্মকর্তা, আমদানি-রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশন, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন, ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন, এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশন ও ভুটান এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশনের মধ্যে চালাচালি হয়ে গেছে।

সিএন্ডএফ এজেন্ট জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ফুলবাড়ি স্থলবন্দরের ব্যবসায়ীদের চিঠি ইতোমধ্যে আমরা হাতে পেয়েছি। যেহেতু দু-দেশেই ধর্মীয় উৎসব রয়েছে এবং সাপ্তাহিক ছুটিও রয়েছে তাই স্থলবন্দরটির আমাদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর ইমিগ্রেশনের অফিসার ইনচার্জ নজরুল ইসলাম বলেন, দুর্গাপূজা ও ঈদ-ই মিলাদুন্নবী উপলক্ষে আমাদের বন্দরে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে তবে ইমিগ্রেশনে যাত্রী পারাপার স্বাভাবিক থাকবে।

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর আমাদানি- রপ্তানিকারক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাবান্ধা ইউপি চেয়ারম্যান কুদরত-ই খুদা মিলন জানান, দু’দেশের ব্যবাসায়ীরা আলোচনা করে ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে ৯ অক্টোবর পর্যন্ত উভয় দেশের স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। আগামী ১০ অক্টোবর থেকে বন্দরের কর্যক্রম স্বাভাবিক ভাবে চালু হবে।

এমকে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়