প্রধান আসামি কেন্দ্র সচিবের তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর

আগের সংবাদ

বাংলাদেশে ৩০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে তুরস্ক

পরের সংবাদ

পুঁজিবাজারে ক্রেতা সংকট কাটছেই না!

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২২ , ৯:৩২ পূর্বাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২২ , ৯:৩২ পূর্বাহ্ণ

ক্রেতা সংকটে ভুগছে দেশের পুঁজিবাজার। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস গতকাল বৃহস্পতিবার দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্যসূচক বাড়লেও কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। সেই সঙ্গে লেনদেনে অংশ নেয়া যে কয়কটি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে বা কমেছে, তার থেকে বেশি প্রতিষ্ঠানের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। এর আগে সপ্তাহের প্রথম তিন কার্যদিবস পুঁজিবাজারে টানা দরপতন হয়। এতে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে কিছুটা আতঙ্ক দেখা দেয়। তবে সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবস বুধবার টানা পতন থেকে বেরিয়ে পুঁজিবাজার ঊর্ধ্বমুখীতার দেখা পায়। তবে গতকাল সূচক বাড়লেও বিপুলসংখ্যক কোম্পানির শেয়ারের কার্যত কোনো ক্রেতা ছিল না। এর মধ্যে আছে বহুজাতিক শক্তিশালী মৌলভিত্তির কোম্পানি, যেগুলো প্রতিবছরই আকর্ষণীয় হারে লভ্যাংশ দিয়ে থাকে।

গতকালের বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু হয় বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বাড়ার মাধ্যমে। লেনদনের শুরুতে দেখা দেয়া এ ঊর্ধ্বমূখী প্রবণতা শেষ পর্যন্ত অব্যাহত থাকে। তবে লেনদেনের শেষদিকে বেশকিছু প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম কমে যায়। এতে একদিকে দাম বাড়ার তালিকা ছোট হয়, অন্যদিকে সূচকের ঊর্ধ্বমুখিতাও কমে। লেনদেনের শুরুর দিকে ডিএসইতে প্রায় দেড়শ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বাড়লেও লেনদেন শেষে ৯৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৮৫টির।

আর ১৮৬টির দাম অপরবর্তিত রয়েছে। এতে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ১৬ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৫১২ পয়েন্টে উঠে এসেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে বাছাই করা ভালো ৩০টি কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক আগের দিনের তুলনায় ৭ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ৩৩০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ আগের দিনের তুলনায় ৪ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৪১৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

সবকটি মূল্যসূচক বাড়লেও ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণ কিছুটা কমেছে। দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ২১৬ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ১ হাজার ৪৮৪ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। সে হিসেবে লেনদেন কমেছে ২৬৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা। ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ১১০ কোটি ৭২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ওরিয়ন ফার্মার ৯৯ কোটি ১০ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৬৬ কোটি ৫২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইস্টার্ন হাউজিং।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেম, শাহিনপুকুর সিরামিকস, জেএমআই হসপিটাল এন্ড রিকুইজিট ম্যানুফ্যাকচারিং, বিডিকম অনলাইন, বাংলাদেশ মনোস্পুল পেপার প্রসেসিং, বসুন্ধরা পেপার এবং এডিএন টেলিকম।

দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৯ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৮৭ কোটি ২৫ লাখ টাকা। লেনদেন অংশ নেয়া ২৪৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৫৮টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৭৬টির এবং ১১১টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

ব্লক মার্কেটে লেনদেন ৮৮ কোটি টাকা : ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল বৃহস্পতিবার ব্লক মার্কেটে মোট ৪৬টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মোট ১ কোটি ১০ লাখ ৫৬ হাজার ৬৯৬টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার আর্থিক মূল্য ৮৮ কোটি ৬২ লাখ টাকা। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ব্লক মার্কেটে সবচেয়ে বেশি টাকার লেনদেন হয়েছে বিডিকম অনলাইন লিমিটেডের। কোম্পানিটি ২০ কোটি ৫২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন করেছে।

সোনালী পেপার লিমিটেড ১০ কোটি ৪০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন করে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। ইন্ট্রাকো রি-ফুয়েলিং স্টেশন ১০ কোটি ৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন করে তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে।

ব্লক মার্কেটে লেনদেন করা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে- আলহাজ টেক্সটাইল, বিকন ফার্মা ১ কোটি ১৩ লাখ টাকা, ফরচুন সুজ ৯ কোটি ৯৮ লাখ টাকা, আইপিডিসি ফিন্যান্স ৭ কোটি ২৯ লাখ টাকা, ম্যারিকো ১ কোটি ৯৬ লাখ টাকা, মেট্রো স্পিনিং ৪ কোটি ২৬ লাখ টাকা, ওরিয়ন ইনফিউশন ২ কোটি ৯৪ লাখ টাকা, প্রাইম ইন্স্যুরেন্স ২ কোটি ১৫ লাখ টাকা, রেনেটা ৭ কোটি ৯১ লাখ টাকা, সি পার্ল বিচ ১ কোটি ৭৪ লাখ টাকা লেনদেন করেছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়