আচরণ পরিবর্তনে র‍্যাবের নিষেধাজ্ঞা

আগের সংবাদ

আজাদ-সাহেদের বিরুদ্ধে দুদক কর্মকর্তার সাক্ষ্য

পরের সংবাদ

মেয়র তাপসকে হত্যাচেষ্টা, ছুরিসহ আটক ১

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২ , ৩:১৩ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২ , ৩:২৬ অপরাহ্ণ

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপসের পেছনে ব্যাগে সাদা কাপড় ও ছুরি নিয়ে যাওয়া এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সুপ্রিম কোর্ট মিলনায়তনে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেওয়া শেষে তাপস বের হওয়ার সময় তার পেছন পেছন বের হওয়ার চেষ্টা করেন। তখন সন্দেহ হলে অনুষ্ঠানের আয়োজকেরা তাকে তল্লাশি করে ব্যাগে সাদা কাপড় ও দুটি ছুরি খুঁজে পান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদ ওই আলোচনা সভার আলোচনা করেছিল। ওই সভায় ব্যাগে ছুরি রাখা ব্যক্তিকে ছাড়িয়ে নিতে এগিয়ে যান দুই নারীসহ আরও চারজন। পরে ওই পাঁচজনকেই আটক করে শাহবাগ থানা-পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন আইনজীবীরা।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সে সময় ক্ষুব্ধ আয়োজকেরা ওই পাঁচজনকে মারধর করেন। পরে আটক করে শাহবাগ থানা-পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছিল। আটক ব্যক্তিদের একজন ছিলেন ঢাকা আইন জেলা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আসিফ ইকবাল ওরফে রিপন। আটক অন্য চারজন তার কর্মী। অবশ্য গতকাল রাতেই আসিফ ইকবালসহ চারজনকে পুলিশ ছেড়ে দেয়।

তথ্যসূত্র বলছে, ঢাকা জেলার সব আইন কলেজ নিয়ে ছাত্রলীগের ঢাকা আইন জেলা ইউনিটটি গঠিত।

জানা গেছে, আসিফ ইকবাল ছাত্রলীগের এক শীর্ষ নেতার বন্ধু। তাই সংগঠনের দায়িত্বশীল পর্যায় থেকে যোগাযোগ করার পর শুধু ব্যাগ হাতে মেয়র তাপসের পেছন পেছন যেতে চাওয়া ওই ব্যক্তি ছাড়া অন্য চারজনকে থানা থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে দেশের সর্বোচ্চ আদালতে এমন ঘটনায় সংগঠনের এক নেতার নাম আসায় ছাত্রলীগ বিব্রত।

এ বিষয়ে সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবদুন নূর দুলাল সাংবাদিকদের বলেন, ব্যাগসহ আটক ব্যক্তির বক্তব্য ছিল, তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনের কেক কাটার জন্য এখানে এসেছিলেন। তার সঙ্গে বড় ছুরি ছিল। এত বড় ছুরি আনার বিষয়ে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নূর মোহাম্মদ আজ বৃহস্পতিবার সকালে বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে সংশ্লিষ্টতা না পাওয়ায় আসিফ ইকবালসহ চারজনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। শুধু ব্যাগ হাতে যাওয়া ব্যক্তিকে আটক রাখা হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ পেলে এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এমকে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়