রোনালদোকে অবসর নিতে হবে

আগের সংবাদ

২৫ কেজি স্বর্ণসহ ১৫ চোরাকারবারি আটক

পরের সংবাদ

প্রবাসীর সোনা ছিনতাইয়ে দুই পুলিশ

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২ , ১০:৪৪ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২ , ১১:৩১ অপরাহ্ণ

দুবাই ফেরত এক প্রবাসীর মালামাল ছিনতাই মামলার তদন্ত করে পাঁচজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে পুলিশ। তাদের মধ্যে দুজন পুলিশ কনস্টেবল। একজনের নাম মো. সুমন।

তিনি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগে (সিআইডি) কর্মরত ছিলেন। অপরজন সালাউদ্দিন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশে (ডিবি) কর্মরত ছিলেন। বাকি তিন আসামি হলেন পুলিশ কনস্টেবল সালাউদ্দিনের সহযোগী তোফাজ্জল হায়দার, সৈয়দ আলী প্রামাণিক।

জড়িত থাকার অভিযোগে সুমন ও সালাউদ্দিনকে পুলিশের চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলাও হয়েছে। তবে ডাকাতির মামলায় আদালত থেকে জামিনে মুক্ত আছেন সুমন ও সালাউদ্দিন।

জানা গেছে, ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বেরোনোর পথে একজন আবুল কালাম আজাদের মাইক্রোবাসের পথ আটকান। নিজেকে পুলিশ সদস্য পরিচয় দেন তিনি। এরপর দরজা খুললে ওই যাত্রীর মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে আরেক সঙ্গীকে নিয়ে উঠে পড়েন মাইক্রোবাসে। গাড়ি থেকে যাত্রীর ভাইকে নামিয়ে দিয়ে তাঁর কাছ থেকে সোনাসহ ২২ লাখ টাকার মালামাল লুটে নেন তারা।

গত বছরের ১৯ জুনের ছিনতাইয়ের এ ঘটনায় রাজধানীর বিমানবন্দর থানায় মামলা করেন আবুল কালাম আজাদ। এ মামলার তদন্ত করেন বিমানবন্দর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. সাইফুল ইসলাম।

তিনি বলেন, পুলিশ সদস্য সুমন ও সালাহউদ্দিনের কাছ থেকে এই ডাকাতির ঘটনায় লুটে নেওয়া সোনাসহ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। এই দুই পুলিশ সদস্য যে মাইক্রোবাস ভাড়া করে ডাকাতি করতে গিয়েছিলেন, সেটির চালক রানা আহম্মেদ মামলার সাক্ষী হিসেবে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। ডাকাতিতে ব্যবহার করা মাইক্রোবাসটিও জব্দ করা হয়েছে।

এমকে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়