‘সবুজের বুকে মানবতার জননী’

আগের সংবাদ

শেখ হাসিনাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা মোদির

পরের সংবাদ

ফরিদপুরে স্বেচ্ছাসেবক দলের ওপর হামলা, আহত ৪০

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২ , ১১:১১ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২ , ১১:১৫ অপরাহ্ণ

ফরিদপুরে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীদের ওপর ছাত্রলীগ ও যুবলীগের হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে অন্তত ৪০ জন নেতাকর্মী আহত হন। বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জেলা শহরের অম্বিকা হলে স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মীসভায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, জেলা শহরের অম্বিকা হলে স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মীসভা চলছিল। এ কর্মীসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এসএম জিলানী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি ইয়াসিন আলী। এছাড়াও এসময় কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দল ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। বিকেল ৪ টায় স্বেচ্ছাসেবক দলের এ কর্মীসভা শুরু হওয়ার ১৫ মিনিট পরেই যুবলীগ ও ছাত্রলীগের একটি গ্রুপ লাঠিসোঁটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়।

এসময় জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান হাফিজ, সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক একে আজাদ বাদশা, ফরিদপুর পৌরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক রেজাউল তালুকদারসহ অন্তত ৪০ জন নেতাকর্মী আহত হন বলে দাবি করেছেন স্বেচ্ছাসেবকদলের নেতারা।

জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক জিয়াউল হাসান বলেন, দলীয় যেকোনো কর্মসূচির আগে যুবলীগের নেতা-কর্মীরা অম্বিকা হলের সামনে জড়ো হন। পরে এখান থেকে মিছিল নিয়ে অনুষ্ঠানস্থলে যান। আজ প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে প্রেসক্লাবের অনুষ্ঠানে সমবেত হন যুবলীগ কর্মীরা। তার আগে মিছিল বের করার জন্য অম্বিকা হলের সামনে এসেছিলেন। তিনি বলেন, তবে আমরা জানতাম না সেখানে স্বেচ্ছাসেবক দলের সভা চলছে। আমি উপস্থিতি থেকে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাদের হল থেকে বের হতে সাহায্য করেছি, কোনো হামলার ঘটনা ঘটেনি। এ ঘটনায় কেউ আহত বা চেয়ার-সাউন্ডবক্স ভাঙচুর করা হয়েছে কি না, তা আমার জানা নেই।

ফরিদপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক সৈয়দ জুলফিকার হোসেন জুয়েল বলেন, আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। কিছু নেতাকর্মীকে বাড়িতে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম এ জলিল গণমাধ্যমকে বলেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মিসভা চলছিল অম্বিকা মেমোরিয়াল হলের ভেতরে। ওই সভা চলাকালে হামলা চালায় যুবলীগ। ফলে সমাবেশটি পণ্ড হয়ে যায়। তিনি বলেন, হামলার আগে ওই হলরুমের আশপাশে পুলিশ ছিল না। তবে পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

এনজে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়