টাইগারদের লক্ষ্য হোয়াইটওয়াশ

আগের সংবাদ

ফ্রান্সের হারের রাতে ক্রোয়েশিয়া নেদারল্যান্ডসের জয়

পরের সংবাদ

ঘুরে দাঁড়িয়ে ভারতের সিরিজ জয়

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২ , ১০:১১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২ , ১০:১১ পূর্বাহ্ণ

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঘরের মাটিতে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছে ভারত। ৩ ম্যাচের সিরিজে প্রথম ম্যাচে হারলেও শেষের দুই ম্যাচ জিতে সিরিজ নিজেদের করে নেয় স্বাগতিকরা।

টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৮৭ রানের বড় লক্ষ্য দাঁড় করায় অস্ট্রেলিয়া। ১৮৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই আউট হন লোকেশ রাহুল। চতুর্থ ওভারে সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক রোহিত শর্মাও।

তবে ওয়ান ডাউনে নামা কোহলির সঙ্গে দাড়–ন জুটি গড়েন চারে নামা সূর্যকুমার যাদব। ২৯ বলে ছয় মেরে অর্ধশতরান পূর্ণ করেন যাদব। ৩৬ বলে ৬৯ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন তিনি। যাদব সাজঘরে ফিরলে মারমুখি হন কোহলি। ৩৭ বলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অষ্টম অর্ধশতরানের ইনিংস খেলেন তিনি।

৪৮ বলে ব্যক্তিগত ৬৩ রানে কোহলি আউট হলেও দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন হার্দিক। শেষ ওভারে ১১ রান প্রয়োজন ছিল। প্রথম বলে ছক্কা হাকিয়ে পরের বলে আউট হন কোহলি। তবে হার্দিকের ব্যাটে বাউন্ডারি আসতেই সিরিজ জয়ের উল্লাসে মাতে ভারতীয় দল। ১ বল হাতে রেখে ৬ উইকেটে জয় পায় ভারত।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মোহালিতে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটি ২০৮ রান করেও হেরে যায় ভারত। এরপর নাগপুরে বৃষ্টিবিঘ্নিত ৮ ওভারের ম্যাচে দুর্দান্ত জয় তুলে নিয়ে সিরিজে সমতা ফেরায় রোহিত-কোহলিরা। আর হায়দরাবাদের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি শেষ ওভারে ৬ উইকেটে জিতে নিয়ে সিরিজ জিতে নেয় ভারত।

অস্ট্রেলিয়ার শুরুটা বিধ্বংসী হলেও ১৫ ওভারে ১২৩ রানে ৬ উইকেট হারায় তারা। শেষের দিকে টিম ডেভিডের প্রথম অর্ধশতকে ১৮৭ রানের পুঁজি পায় অজিরা। শেষ পর্যন্ত ২৭ বলে ৫৪ রানে ফেরেন টিম। অস্ট্রেলিযার পক্ষে ২১ বলে ৫১ রানের মারমুখী ইনিংস খেলেন ক্যামেরন গ্রিন। ভারতের হয়ে ৪ ওভারে ৩৩ রানে ৩ উইকেট নেন অক্ষর প্যাটেল। নির্বাচিত হন সিরিজসেরা।

অন্যদিকে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সাত ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে নাটকীয় জয় পেয়েছে পাকিস্তান। টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে মোহাম্মদ রিজওয়ানের ৮৮ রানের সুবাদে ১৬৬ রানের লক্ষ্য দাঁড় করায় স্বাগতিকরা।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেম ১১৩ রানের মধ্যে ৬ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে প্রায় ছিটকে যায় ইংলিশরা। শেষ ৪ ওভারে জয়ের জন্য ৪ উইকেট হাতে ৪৫ রান করতে হতো ইংলিশদের। সেখান থেকে দুই ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে ৩৬ রান তুলে পাকিস্তানকেই ম্যাচ থেকে প্রায় ছিটকে দেয় সফরকারীরা।

জিততে হলে পাকিস্তানের বিপক্ষে শেষ ১২ বলে ৩ উইকেটে মাত্র ৯ রান করতে হতো ইংল্যান্ডের। অথচ এই দুই ওভারও পুরোটা খেলতে পারেনি সফরকারীরা। ৬ বলের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয়ে রুদ্ধশ্বাস এক ম্যাচে ৩ রানের অবিশ্বাস্য এক জয় তুলে নেয় পাকিস্তান।

১৯ ওভারে বোলিংয়ে এসে হারিস রউফ ৫ রান দিয়ে ২ উইকেট তুলে নিলে শেষ ওভারে জয়ের জন্য ইংলিশদের লাগতো মাত্র ৪ রান। আর পাকিস্তানের প্রয়োজন ছিল ১ উইকেট। মোহাম্মদ ওয়াসিমের শেষ ওভারের ২য় বলে রান নিতে ছুটলে রিস টপলেকে রান আউটের ফাঁদে ফেলে পাকিস্তানের জয় নিশ্চিত করেন শান মাসুদ।

এই জয়ে সাত ম্যাচের সিরিজটি ২-২ সমতায় থাকল। সিরিজের পরবর্তী ম্যাচ আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর, ৩০ সেপ্টেম্বর ও ২ অক্টেবর অনুষ্ঠিত হবে।

এমকে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়