৪ ক্যাটাগরিতে অ্যাওয়ার্ড পেল সোনালী লাইফ

আগের সংবাদ

নিখোঁজ মা ও লাশের বয়স বিভ্রান্তি, ডিএনএ পরীক্ষার আবেদন

পরের সংবাদ

‘লাগেজকাণ্ডে’ ক্ষতিপূরণ পেলেন তিন নারী ফুটবলার

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২২ , ৮:১৬ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২২ , ৮:১৮ অপরাহ্ণ

নেপাল থেকে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতে গত বুধবার দেশে ফিরে বাংলাদেশের মেয়েরা। সেদিন স্বপ্নের ছাদ খোলা বাসে যাত্রা করে দেশবাসীর সঙ্গে আনন্দ-উল্লাসে শামিল হন তারা। এরই মধ্যে ঘটে যায় ফুটবলারদের লাগেজ থেকে ডলার চুরির ঘটনা। দেশে ফিরে সংবর্ধনা শেষে ফুটবলাররা যখন লাগেজ হাতে পান, তখন ডলার চুরির বিষয়টি নজরে আসে। সাফজয়ী দলের দুই সদস্য কৃষ্ণা রানি সরকার ও শামসুন্নাহার সিনিয়রের লাগেজ ভেঙে ডলার ও টাকা চুরি হয়। খোয়া যায় দুজনের ১৩০০ ডলার। এছাড়া দলের অন্যান্য সদস্যের লাগেজও পাওয়া যায় ভাঙা অবস্থায়।

চুরি হওয়া অর্থের সন্ধান পাওয়া না গেলে তা ফেডারেশনের পক্ষ থেকেই দেয়া হবে বলে আগেই জানিয়েছিলেন বাফুফের নারী উইংয়ের চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ। অবশেষে সাবিনারা সেই অর্থ হাতে পেলেন।

শনিবার (২৪ নেপ্টেম্বর) কৃষ্ণা, শামসুন্নাহার এবং সানজিদাকে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ক্ষতিপূরণ দিয়েছেন মাহফুজা আক্তার কিরণ। ৪০০ ডলার খোয়ানো শামসুন্নাহার সিনিয়র পেয়েছেন ১ লাখ টাকা। কৃষ্ণা রানী সরকারের ব্যাগ থেকে খোয়া গিয়েছিল ৯০০ ডলার ও ৫০ হাজার টাকা, যার মধ্যে ৪০০ ডলার ছিল সানজিদা খাতুনের। কৃষ্ণা পেয়েছেন দেড় লাখ টাকা এবং আইফোন কেনার জন্য জমানো ৪০০ ডলারের বদলে সানজিদাকে আইফোন থার্টিন প্রো-ম্যাক্স কিনে দিয়েছেন কিরণ।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মেয়েদের টাকা চুরির বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছিলাম এবং আমি বলেছিলাম, বাংলাদেশ বিমান বা সিভিল এভিয়েশনের পক্ষ থেকে এই টাকা যদি না দেয়া হয়, তাহলে বাফুফে বা সভাপতি বা আমার পক্ষ থেকে মেয়েদের টাকাটা দিয়ে দেয়া হবে এবং সেটা আমরা দিয়ে দিয়েছি। সিভিল এভিয়েশন বা বিমানের পক্ষ থেকে তারা জানিয়েছেন, তারা কিছু খুঁজে পাননি। কিছু খুঁজে না পেলে তো আমরা কিছু করতে পারব না।

এর আগে চুরির ঘটনার পর বাফুফের পক্ষ থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস, সিভিল এভিয়েশনকে আনুষ্ঠানিক চিঠি দেয়ার কথা জানান কিরণ। এছাড়া মতিঝিল থানা সাধারণ ডায়েরি করা হয়। অনুসন্ধান শেষে এক বিজ্ঞপ্তিতে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেন, নারী খেলোয়াড়দের নেপাল থেকে বাংলাদেশ বিমানবন্দরে ভিআইপি প্রোটোকল মেনে আনা হয়েছে। এখানে এমন কোনো ঘটনা (চুরি) ঘটতে পারে না।

বাফুফের নারী উইংয়ের চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণের সঙ্গে ক্ষতিপূরণ পাওয়া তিন নারী ফুটবলার

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, লাগেজগুলো বুঝে নেয়ার সময় লাগেজ থেকে কোনো কিছু খোয়া যাওয়ার বিষয়ে তখন কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। এছাড়া এয়ারপোর্টের বিভিন্ন এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষা করে লাগেজে চুরির বিষয়ে তোলা অভিযোগের সত্যতাও পাওয়া যায়নি।

এদিকে হারানো অর্থ ফিরে পেয়ে খুব খুশি খেলোয়াড়রা। আইফোন হাতে নিয়ে হাসি মুখে সন্তৃষ্টির কথা জানান মিডফিল্ডার সানজিদা, আমি খুব খুশি, আমার খুব ভালো লাগছে। আমার স্বপ্ন ছিল আমার যে প্রাইজমানি সেটার সঙ্গে আরও কিছু টাকা যোগ করে আইফোন কিনব, এখন সেটা পেয়ে গেছি। মায়ের জন্য স্বর্ণালঙ্কার কিনতে চেয়েছিলেন কৃষ্ণা, সেই টাকা হারিয়ে মুষড়ে পড়েছিলেন এই ফরোয়ার্ড। খোয়া যাওয়া টাকা ফিরে পেয়ে খুশি ফাইনালে জোড়া গোল করা কৃষ্ণা, টাকাটা ফিরে পেয়ে খুশি। আমি আজকেই দোকানে যাব এবং মায়ের জন্য যে মালাটা দেখেছিলাম, সেটা কিনব। শাসুন্নাহারের কণ্ঠেও আনন্দের জোয়ার, আমরা যতটুকু হারিয়েছি, তার চেয়ে বেশি পেয়েছি। আমরা আসলেই খুশি।

এদিকে শনিবার আনুষ্ঠানিকভাবে লিগ কমিটির দায়িত্ব নিয়েছেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাহউদ্দীন। এক যুগেরও বেশি সময় লিগ কমিটির দায়িত্বে ছিলেন সালাম মুর্শেদি। তার পদত্যাগর পর নিজেই এই দায়িত্ব নিয়েছেন বাফুফে সভাপতি।

এ বিষয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে কৃষ্ণাদের হারানো টাকার ক্ষতিপূরণ দেয়া প্রসঙ্গে সালাউদ্দীন বলেন, বাচ্চা মেয়েদের টাকা হারিয়ে গেছে। আমরা যারা এখানে চেয়ারে বসে আছি আমাদের তো ব্যক্তিহত একটা কর্তব্য আছে। এই কর্তব্যের কারণে আমি টাকাটা দিয়ে দিয়েছি যেন ওরা খুশি থাকে। এটা বাফুফের ফান্ড থেকে দেওয়া হচ্ছে না। এটা ব্যক্তিগত ফান্ড থেকে দেওয়া হচ্ছে। আর এটা আমার ব্যাক্তিগত ফান্ড থেকে দেওয়া হয়নি। মাহফুজা আক্তার কিরণের ব্যক্তিগত ফান্ড থেকে দেওয়া হচ্ছে। বাফুফের মিডিয়া এক্সিকিউটিভ খালেদ মাহমুদ নওমি জানান, ওদের ক্ষতিপূরণ বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে।

এমকে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়