ওয়াজ শুনে বাড়ি ফেরার পথে প্রাণ গেল ২ জনের

আগের সংবাদ

বিএনপিকে প্রতিহত করার আহ্বান তথ্যমন্ত্রীর

পরের সংবাদ

বেজার সঙ্গে ৪ গ্রুপের ৬ প্রতিষ্ঠানের চুক্তি

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২ , ৫:৩৭ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২ , ৫:৪২ অপরাহ্ণ

৪৫৭ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগে জমি বরাদ্দ পাচ্ছে ৬ প্রতিষ্ঠান। এ কোম্পানিগুলোর মাধ্যমে ৮,২১৯টি কর্মসংস্থান তৈরি হবে বলে আশা করা হচ্ছে। বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) সাথে ভূমি ইজারা চুক্তিতে স্বাক্ষর করবে ছয়টি কোম্পানি।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, প্রায় ৪৫৭ মিলিয়ন বিনিয়োগ করবে তারা। পাঁচটি প্রতিষ্ঠানকে সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে এবং একটি প্রতিষ্ঠানকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরে প্লট বরাদ্দ দেয়া হবে। বেজা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্লটগুলো মোট ১৭ একর জুড়ে বিস্তৃত। এ কোম্পানিগুলোর মাধ্যমে ৮ হাজার ২১৯টি কর্মসংস্থান তৈরি হবে বলে আশা করছেন তারা।

৬টি কোম্পানির মধ্যে রয়েছে ইফাদ অটোস, যারা সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে একটি ৩-তারকা হোটেল এবং রিসোর্ট নির্মাণের জন্য প্লট পাবে। ১৬ দশমিক ২০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে তারা। ইফাদের বিনিয়োগ প্রস্তাব অনুযায়ী, ১০ তলা বিশিষ্ট হোটেলটিতে ৩৭০টি কক্ষ থাকবে। এছাড়াও থাকবে অবসর স্থান, বিনোদনের স্থান, একটি সম্মেলন কেন্দ্র এবং পর্যটক পরিবহন।

ইফাদ গ্রুপের একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান ইফাদ অটোস। ইফাদ গ্রুপের চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ টিপু বলেন, তাদের উদ্যোগে একটি মিনি-অ্যামিউজমেন্ট পার্কও থাকবে। তিনি আরও বলেন, আমরা আন্তর্জাতিক মানের আতিথেয়তার সুযোগ মানুষের খরচের নাগালের মধ্যে রাখার ওপর জোর দিচ্ছি।

দীপ্ত গ্রুপের তিনটি সংস্থা – ডিআইআরডি কম্পোজিট টেক্সটাইল লিমিটেড, দীপ্ত গার্মেন্টস লিমিটেড এবং ডিআইআরডি গার্মেন্টস লিমিটেডও সাবরাং এ প্লট পাবে। বিনিয়োগ প্রস্তাব অনুযায়ী, দীপ্ত গ্রুপ মোট ৩৮.২১ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগে কটেজ, রিসোর্ট, হোটেল এবং মোটেল নির্মাণ করবে। নতুন ব্যবসায় কমপক্ষে ৬৬৯ জন লোক নিযুক্ত হবে বলে আশা করছে তারা।

১৯৮৪ সালে প্রতিষ্ঠিত ডিআইআরডি গ্রুপ গার্মেন্টস ম্যানুফ্যাকচারিং, টেক্সটাইল, ইঞ্জিনিয়ারিং, সফটওয়্যার এবং কৃষি খাতের সাথে জড়িত। পঞ্চম কোম্পানি ইস্ট ওয়েস্ট ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস লিমিটেডও সাবরাং-এ ১ একর জমিতে একটি হোটেল নির্মাণ করবে। ১৯৮৮ সালে প্রতিষ্ঠিত ইস্ট ওয়েস্ট ট্রাভেলস বাংলাদেশে একটি ট্রাভেল এজেন্সি এবং পর্যটন ব্যবসা পরিচালনা করে। সাবরাং পর্যটন পার্কটি কক্সবাজার জেলার প্রথম পর্যটন পার্ক হবে যার আয়তন ১০২৭ একর। অন্যদিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরে ১০ একর জমি পেতে যাচ্ছে হেলথকেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড।

বেজা ইতোমধ্যে বঙ্গবন্ধু শিল্প নগরে হেলথকেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালসকে ৩০ একর জমি বরাদ্দ দিয়েছে। ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থাটি বলছে, সক্রিয় ফার্মাসিউটিক্যাল উপাদান এবং ফর্মুলেটেড ফার্মাসিউটিক্যালস পণ্যতে ব্যবসা সম্প্রসারণের জন্য আরও ১০ একর জমি প্রয়োজন। হেলথকেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড বাংলাদেশের নেতৃস্থানীয় স্থানীয় ওষুধ প্রস্তুতকারকদের মধ্যে একটি। নতুন প্ল্যান্ট স্থাপন করতে তারা ৪০০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে।

বেজা চট্টগ্রামের মিরসরাই ও সীতাকুণ্ড উপজেলা এবং ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় ৩০,০০০ একর জমির উপর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগর বাস্তবায়ন করছে। ২০৩০ সালের মধ্যে সারা দেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কাজ করছে তারা। এতে ১০ মিলিয়ন স্থানীয় লোকের কর্মসংস্থান তৈরি হবে।

এনজে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়