‘পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞা ইউরোপের জীবনযাত্রায় প্রভাব ফেলছে’

আগের সংবাদ

তিস্তা চুক্তি বাস্তবায়নের পথে একমাত্র বাধা মমতা

পরের সংবাদ

বর্ণিল সাংস্কৃতিক উৎসবের পর্দা উঠল শিল্পকলায়

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৭, ২০২২ , ১০:১০ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ৭, ২০২২ , ১০:১০ অপরাহ্ণ

উত্তরাধিকার সূত্রেই সমৃদ্ধ বাংলার শিল্প ও সংস্কৃতি। শিল্পের শাণিত শক্তিতে সৃজনশীল দেশ গড়ার প্রত্যয়ে আয়োজন করা হয় নানা সাংস্কৃতিক আয়োজন। তারই ধারাবাহিকতায় দশ দিনব্যাপী বর্ণিল এক সাংস্কৃতিক উৎসবের পর্দা উঠল বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে।

বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় একাডেমির জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তনে একাডেমির প্রযোজনা বিভাগের ব্যবস্থাপনায় এ উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। সাংস্কৃতিক আয়োজনে বাংলাদেশের ঐতিহ্য ও স্বদেশ প্রেম উঠে এসেছে শিল্পীদের পরিবেশনায়।

ছবি: ভোরের কাগজ

একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন একাডেমির প্রযোজনা বিভাগের পরিচালক সোহাইলা আফসানা ইকো। বিশিষ্ট শিল্পীদের সঙ্গে প্রতিশ্রুতিশীল ও শিশু শিল্পীদের পরিবেশনায় সাজানো এ উৎসব চলবে ১৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন সন্ধ্যায় একাডেমির সঙ্গীত ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে বৈচিত্র্যময় পরিবেশনা পর্ব।

দেশাত্মবোধক গানের সুরে প্রথম শুরু হয় প্রথম দিনের উৎসব। শুরুতে অনন্যা প্রজ্ঞা পরিবেশন করেন দেশাত্মবোধ গান সুন্দর সুবর্ণ লাবন্য। অণ্বেষা রওশনের কণ্ঠে লোকনৃত্য কান্দুরী, অপূর্বা ইসলাম পরিবেশন করেন ভরতনাট্যম গোকূল, হিয়া মেহজাবীন প্রজাপতি সেদিন আর কত দূরে এবং টাপুর সাহা পরিবেশন করেন একক শিশু নৃত্য ভরতনাট্যম শিবকৃত্ত নাম।

ছবি: ভোরের কাগজ

শিবস্তুতি শিরোনামে মনিপুরী নাচের পরিবেশনায় মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন ওয়ার্দা রিহাব, দেশাত্মবোধক গান দিয়ে শুরু করেন শিল্পী অনন্যা প্রজ্ঞা। তিনি শোনান আমার দু’চোখ ভরা স্বপ্ন/ও দেশ তোমারই জন্য …। অন্বেষা রহমান গেয়ে শোনান কান্দুরী শিরোনামের লোকনৃত। হিয়া মেহজাবিনের শোনান সেদিন আর কত দূরে/যখন প্রাণের সৌরভে/সবার গৌরবে ভরে/রবে এ দেশ ধন ধান্যে …। গোকূল শীর্ষক ভরতনাট্যম পরিবেশন করেন অপূর্বা ইসলাম। এরপর মঞ্চে আসে শিশু শিল্পী টাপুর সাহা। উপস্থাপিত হয় ভরতনাট্যমের আশ্রয়ে শিবকৃত্ত নাম শীর্ষক নাচ।

ভরনাট্যম পরিবেশন করেন অমিত চৌধুরী। মোর বীণা ওঠে কোন সুরে বাজি শিরোনামের গানের সুরে দেশাত্মবোধক নৃত্য পরিবেশন করেন অনিক বোস। রাফিয়া খন্দকাার রোজার পরিবেশনায় দর্শকরা দেখেছে ওড়িষি নাচের নৃত্যশৈলী। ঝর ঝর বরিষে বারিধারা গানের সুরে সৃজনশীল নাচ নিয়ে মঞ্চে আসেন কস্তুরী মুখার্জী। আরিবা ইবনাত পরিবেশন করেন মনিপুরী নাচ। নাচে গ্রাম বাংলার জীবন তুলে ধরেন মেহবুবা চাঁদনী। এছাড়াও সমকালীন, লোকনৃত্যের সঙ্গে শাস্ত্রীয় আঙ্গিকের গৌড়ীয়সহ বিভিন্ন ধারার নৃত্য পরিবেশন করেন মৌসুমী রানী বর্মণ, হেনা হোসেন, অনিন্দিতা খান, সোহেল ভূঁইয়া ও দিশা মনি পাল।

এনজে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়