আন্তর্জাতিক সিডও দিবস আজ

আগের সংবাদ

ভারতে ‌ভুয়া খবর প্রচারে শীর্ষে পশ্চিমবঙ্গ

পরের সংবাদ

লড়াইয়ে ৩ প্যানেল

বায়রার নির্বাচন আজ

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৩, ২০২২ , ৯:০৫ পূর্বাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ৩, ২০২২ , ৯:০৫ পূর্বাহ্ণ

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সির (বায়রা) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আজ শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর)। সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলবে। এবারের বায়রার নির্বাচনে তিনটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। প্রতিটি প্যানেলই ভোটারদের কাছে টানতে মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুরের শ্রমবাজারকে ইস্যু বানিয়ে প্রচারণা চালিয়ে আসছে বলে জানা গেছে। এর আগে, গত ১৭ আগস্ট নির্বাচন বোর্ড ১৮২ জন প্রার্থীর বৈধ তালিকা প্রকাশ করে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদ্ব›দ্বী তিনটি প্যানেলের মধ্যে একটি নেতৃত্ব দিচ্ছেন বায়রার সাবেক সভাপতি এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বেনজির আহমেদ ও বায়রার সাবেক মহাসচিব রুহুল আমিন স্বপন। আরেকটি গ্রুপের নেতৃত্ব দিচ্ছেন বায়রার সাবেক সভাপতি মো. নুর আলী ও সাবেক সভাপতি আবুল বাশার। অন্য প্যানেলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন বায়রার সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি মো. ফারুক ও সাবেক মহাসচিব রিয়াজ উদ্দিন।

ভোটাররা বলছেন, এবারের নির্বাচন ঘিরে নানামুখী আলোচনা-সমালোচনা চলছে। একাধিক গ্রুপে বিভক্ত নির্বাচনের প্রার্থী এবং পছন্দের ভোটাররা প্রতিনিয়ত পৃথক ঘরোয়া বৈঠক করছেন। প্রচারণায় একে অপরের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগও করছেন। এবারের নির্বাচনে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার ঘিরে গড়ে ওঠা ২৫ সিন্ডিকেটের সদস্যের সঙ্গে যেসব রিক্রুটিং এজেন্সির মালিক যোগ দিয়েছেন তাদের একটি পক্ষ বানানো হয়েছে। অপর দিকে এই সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে বায়রার যেসব সাধারণ সদস্য রয়েছেন তাদের প্রতিপক্ষ গ্রুপ বলা হচ্ছে। সাধারণ ভোটারদের বক্তব্য- এবারের নির্বাচনে ভোটারদের টার্গেট সিন্ডিকেট ভাঙা আর ‘বৈধ লাইসেন্স যার ব্যবসা তার’ নিশ্চিত করা।

এদিকে এবারের বায়রার নির্বাচনে সঙ্গে মানবপাচার প্রতিরোধ আইনে রিক্রুটিং এজেন্সিগুলোকে হয়রানি করার বিষয়টিকে ইস্যু করা হয়েছে। এই আইনটিকে ব্যবসায়ীদের জন্য কালো আইন বলে আখ্যায়িত করেছেন প্রার্থীরা। অভিযোগ আছে, মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে শ্রমিক পাঠানোর সুযোগ দেয়ার কথা বলে বায়রার একটি গ্রুপ কৌশলে ২৫০ রিক্রুটিং এজেন্সি মালিক মিলে একটি সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছে। এই ভোটগুলো একটি পক্ষ পাবে বলে প্রচার করা হচ্ছে।

তাদের বক্তব্য মালয়েশিয়াসহ পুরো জনশক্তি খাতকে কব্জায় নিতে এই সিন্ডিকেট গড়ে তোলা হয়েছে। এ অবস্থায় মাফিয়াদের হাতে জিম্মি হয়ে পড়ার শঙ্কায় বায়রার সাধারণ সদস্যরা। বিদেশ যেতে ইচ্ছুক কর্মীরাও রয়েছেন আতঙ্কে।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়