এশিয়া কাপে সাকিবের ডেপুটি আফিফ

আগের সংবাদ

আমারে দেবো না ভুলিতে

পরের সংবাদ

হাইভোল্টেজ ম্যাচে আজ মুখোমুখি ভারত-পাকিস্তান

প্রকাশিত: আগস্ট ২৮, ২০২২ , ১:১১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ২৮, ২০২২ , ৭:৪৩ অপরাহ্ণ

পাক-ভারত ক্রিকেট ম্যাচ মানেই টান টান উত্তেজনা। দুই দলের সমর্থকদের কাছেও এ ম্যাচ ঘিরে বাড়তি উন্মোদনা কাজ করে। এশিয়াকাপের লিগ পর্বে আজ রবিবার (২৮ আগস্ট) বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় দুদলের লড়াই উপভোগ করবে গোটা বিশ্বের ক্রিকেটপ্রেমীরা।

রাজনৈতিক অস্থিরতার জন্য দুদলের মধ্যে কম ম্যাচ হয় বলে ক্রিকেটপ্রেমীদের নজর থাকে এশিয়া কাপে ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচগুলোতে। এ ম্যাচে অনফিল্ড আম্পায়ার থাকবেন বাংলাদেশের মাসুদুর রহমান মুকুল। আর ফোর্থ আম্পায়ার থাকবেন গাজী সোহেল।

১৯৮৪ সাল থেকে শুরু হওয়া এশিয়া কাপে এখন পর্যন্ত তিনটি দেশ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ৭ বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারত। এরপর শ্রীলঙ্কার হাতে এই ট্রফি উঠেছে পাঁচবার এবং পাকিস্তান জিতেছে দুইবার।

রোহিত শর্মা

আজ চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে নামলেই অন্যরকম সেঞ্চুরি করবেন ভারতের তারকা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি। তিনি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে ম্যাচের সেঞ্চুরি করবেন। এখন পর্যন্ত সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে ৯৯টি ম্যাচ খেলেছেন কোহলি। ভারত-পাকিস্তান সর্বশেষ ২০১২ সালে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলেছিল। তাই একে অন্যের মুখোমুখি হতে ভারত-পাকিস্তানের অপেক্ষা করতে হয় আইসিসির ইভেন্ট বা এশিয়া কাপের জন্য। এবার এশিয়া কাপের মঞ্চে লড়বে ভারত ও পাাকিস্তান।

এর আগে সর্বশেষ গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দেখা হয়েছিল ভারত-পাকিস্তানের। এরপর থেকে দুদল আর কোনো ম্যাচে মুখোমুখি হয়নি। তাছাড়া এশিয়া কাপের মঞ্চে মোট ১৫ বার মুখোমুখি হয়েছে ভারত-পাকিস্তান। এতে জয়ের পাল্লা ভারী ভারতেরই। ৮ বার জয় পেয়েছে টিম ইন্ডিয়া। ৫ বার জিরেতছে পাকিস্তান। আর ২টি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়। ২০১৬ সালের এশিয়া কাপ হয়েছিল টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। ওই আসরে ভারত ৫ উইকেটে হারিয়েছিল পাকিস্তানকে। এবারো সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে হবে এশিয়া কাপ। তাই দুদলের ম্যাচের আগে অনেক হিসাব-নিকাশ হচ্ছে। কে কার চেয়ে এগিয়ে, কার জয়ের সম্ভাবনা বেশি, সেসব নিয়ে চলছে জোর জল্পনা-কল্পনা।

তবে ভারতের সাবেক অধিনায়ক এবং বর্তমান বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি অবশ্য ভারত-পাকিস্তান মহারণের আগে কাউকেই এগিয়ে রাখছেন না। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের সহজাত অনিশ্চয়তার বিষয়টিকে সামনে এনে তিনি বলেন, ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ আর যে কোনো ম্যাচের মতোই। এটা ঠিক যে একটা আলাদা চাপ থাকে। তবে রোহিত শর্মা, লোকেশ রাহুল, বিরাট কোহলিরা ভালোই জানে কীভাবে চাপ সামলাতে হয়। এগিয়ে-পিছিয়ে কেউ নেই। টি- টোয়েন্টিতে যা খুশি হতে পারে।

ম্যাচের আগে এসব নিয়ে ভাবতে নারাজ ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা বলেন, গত বিশ্বকাপে আমরা হেরেছিলাম। সেই ম্যাচে আমরা দল হিসেবে মোটেও ভালো খেলতে পারিনি। এ ধরনের ম্যাচে নিজেদের সেরাটা দিতে হয়। তবে অতীতে কী হয়েছে, তা নিয়ে এখন আর আমরা ভাবছি না। শূন্য থেকে আবার এশিয়া কাপে শুরু করতে চাই। অতীতে কবার দুই দেশ মুখোমুখি হয়েছে এবং কে বেশি জিতেছে, এ ধরনের পরিসংখ্যান থাকবে। কিন্তু ম্যাচের দিন দুদলকেই প্রথম থেকে শুরু করতে হবে। আমার মতে, সবাই এই ম্যাচের দিকে তাকিয়ে থাকে। খুব চাপের ম্যাচ এটি, তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। তবে দলের পরিবেশ হালকা পরিবেশ রাখতে চাই।

এছাড়া ভারত-পাকিস্তানের লড়াইকে একটি ম্যাচ বলেই মনে করেন দুদলের বর্তমান ও সাবেক ক্রিকেটাররা। তবে চাপ অনুভব করেন দলে থাকা ক্রিকেটাররা। বাড়তি চাপ থাকায়, মর্যাদার লড়াইয়ে জিততে মরিয়া ভারত ও পাকিস্তান। এর আগে গত টি-টোয়েন্টি বিশ^কাপে ভারতকে উড়িয়ে দিয়ে পাকিস্তান ১০ উইকেটে বিশাল জয় পায়। বিশ্বকাপের মঞ্চে প্রথমবারের মতো জয়ের দেখা পায় পাকিস্তান। এই সর্বশেষ জয়ে পাকিস্তানের আত্মবিশ্বাস অনেক বেশি এবং কিছুটা হলেও দল এগিয়ে থাকবে বলে মনে করেন অধিনায়ক বাবর।

তিনি বলেন, আমরা সর্বশেষ ম্যাচে জিতেছিলাম। যেভাবে ভারতকে হারিয়েছিলাম সেটি প্রশংসা করার মতোই ছিল। ওই জয় আমাদের বাড়তি অনুপ্রেরণা দিচ্ছে। তবে আমার মতে, অন্য ম্যাচের মতো হলেও, ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে বাড়তি চাপ এমনতিতেই চলে আসে। এই চাপকে সামলেই লড়াই করতে হয় ক্রিকেটারদের। কারণ সবাই জানে, এমন ম্যাচের গুরুত্ব কত বেশি। তাই জয়ের জন্য মুখিয়ে থাকে ক্রিকেটাররা। এবারও আমরা জয়ের জন্য মাঠে নামবো।

এদিকে এশিয়া কাপে ফর্মে ফেরার পরীক্ষায় আজ মাঠে নামছেন কোহলি। পাকিস্তানের ম্যাচের আগে নিজের মানসিক অবস্থা নিয়ে কথা বলেছেন ভারতীয় তারকা। বাজে ফর্মে, চারপাশের নানা আলোচনা-সমালোচনার মধ্য দিয়ে সময় পার করেছেন এই ক্রিকেটার। তাছাড়া এশিয়া কাপের আগে চোটের তালিকা বড় হচ্ছে পাকিস্তানের। ছিটকে গেছেন মূল পেসার শাহীন আফ্রিদি। গত পরশু ছিটকে গেলেন আরেক পেসার মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়রও। এই অবস্থায় নতুন করে বিকল্প খুঁজতে হয়েছে তাদের। ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথের আগে হাসান আলীকে বদলি হিসেবে দলভুক্ত করা হয়েছে। যা আবার ইভেন্ট টেকনিক্যাল কমিটির অনুমতি সাপেক্ষে চূড়ান্ত হবে। যাইহোক এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ১৫তম আসরের সবচেয়ে হাইভোল্টেজ ম্যাচে আজ মুখোমুখি হচ্ছে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও পাকিস্তান। দুই দেশের লড়াইটা বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে মর্যাদাকর হিসেবেই পরিচিতি লাভ করেছে। তাই প্রতিবারই ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে থাকে বাড়তি উন্মোদনা। এবারও এর ব্যতিক্রম নয়।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়