সার পরিস্থিতি মনিটরিংয়ের জন্য নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে

আগের সংবাদ

১৯তম অধিবেশন শুরু, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য হলেন যারা

পরের সংবাদ

ডেপুটি স্পিকার হলেন শামসুল হক টুকু

প্রকাশিত: আগস্ট ২৮, ২০২২ , ৫:২০ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ২৮, ২০২২ , ৮:০১ অপরাহ্ণ

নতুন ডেপুটি স্পিকার নির্বাচিত হলেন পাবনা-১ আসনের সংসদ সদস্য শামসুল হক টুকু। রবিবার (২৮ আগস্ট) বিকালে জাতীয় সংসদে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। প্রয়াত ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার স্থলাভিষিক্ত হলেন তিনি। ডেপুটি স্পিকার হিসেবে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী টুকুর নাম প্রস্তাব করেন প্রধান হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী। সেই প্রস্তাব সমর্থন করেন সাবেক আইন প্রতিমন্ত্রী কামরুল ইসলাম।

টুকু একমাত্র প্রার্থী হওয়ায় তার নির্বাচিত হওয়ার পথে কোনো বাধা ছিল না, ডেপুটি স্পিকার হিসেবে অন্য কোন নাম না আসায় তিনিই মনোনীত বলে গণ্য হন। তবে সংসদীয় রীতি অনুযায়ী ৮ ও ৯ বিধিতে ডেপুটি স্পিকার নির্বাচনের জন্য ভোটে দেবার বিধান রয়েছে সে কারণে স্পিকার প্রস্তাবটি ভোটে দেন। এবং কন্ঠ ভোটে তা পাশ হয়ে যায়। এর পরে সংসদে টেবিল চাপড়ে ডেপুটি স্পিকার শামসুল হক টুকুকে সর্বসম্মতিক্রমে স্বাগত জানান। স্পিকার বলেন, ‘মাননীয় সদস্য শামসুল হক টুকু জানিয়েছেন, তিনি নির্বাচিত হলে ডেপুটি স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।’

রবিবার সন্ধ্যা সাতটায় নতুন ডেপুটি স্পিকারকে শপথ বাক্য পাঠ করান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। সংসদ ভবনে রাষ্ট্রপতির চেম্বারে এই শপথ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, চিফ হইপ নূর ই আলম চৌধুরীসহ আরো দু তিনজন উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে, ২০১৯ সালের ৩০ জানুয়ারি ফজলে রাব্বী মিয়া একাদশ জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার নির্বাচিত হয়েছিলেন। দীর্ঘদিন চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় গত ২২ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রে তিনি মারা যান। তার মৃত্যুতে ডেপুটি স্পিকারের পদ এবং গাইবান্ধা-৫ আসন শূন্য হয়।

নিয়ম অনুযায়ী, স্পিকার বা ডেপুটি স্পিকারের পদ শূন্য হলে ওই সময় যদি সংসদের অধিবেশন থাকে, তবে সাত দিনের মধ্যে নির্বাচনের বিধান রয়েছে। আর অধিবেশনে না থাকলে পরের অধিবেশনের প্রথম দিন নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

শামসুল হক টুকু পাবনা-১ আসনের সংসদ সদস্য। বর্তমানে তিনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। পেশায় আইনজীবী টুকু ডেপুটি স্পিকার পদে নির্বাচিত হলেন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র টুকু মুক্তিযুদ্ধের সময় মুজিব বাহিনীর সদস্য ছিলেন। পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের এই নেতা প্রথমবার ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর নির্বাচনের মাধ্যমে সংসদে বসেন। প্রথমে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয় টুকুকে। পরে দেওয়া হয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব। পরপর তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত টুকু বর্তমানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন। ১৯৪৮ সালের ৩১ মে পাবনার বেড়া উপজেলায় বৃশালিখা গ্রামে জন্মগ্রহন করেন শামসুল হক টুকু। তিন পুত্র সন্তানের জনক তিনি।

এনজে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়