দুপুরের নিউজ ফ্ল্যাশ

আগের সংবাদ

তদন্তের ভিত্তিতে ঠিকাদারের শাস্তি হলে আপত্তি নেই চীনের

পরের সংবাদ

টাকা আত্মসাতের অভিযোগে কুড়িগ্রামে দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

প্রকাশিত: আগস্ট ১৮, ২০২২ , ৪:০১ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ১৮, ২০২২ , ৪:০১ অপরাহ্ণ

রংপুর সমবায় অফিসের উপসহকারী নিবন্ধক রোজিনা সুলতানা (৪৩) ও রংপুর সমবায় অফিসের অবসরপ্রাপ্ত বিভাগীয় যুগ্মনিবন্ধক আমির হামজার (৬১) বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এক কোটি টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগে কুড়িগ্রাম দুদক সমন্বিত কার্যালয়ে মামলা দায়ের করেছে।

রোজিনা সুলতানা ইতিপূর্বে কুড়িগ্রামের ভারপ্রাপ্ত জেলা সমবায় কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করা কালীন এ দুর্নীতির ঘটনা ঘটে।

বুধবার (১৭ আগস্ট) বিকেলে দুদক রংপুর আঞ্চলিক অফিসের সহকারি পরিচালক হোসেন শরীফ বাদী হয়ে কুড়িগ্রাম দুদক সমন্বিত কার্যালয়ে মামলাটি দায়ের করেন ।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বিগত ২০১৮ সালের ৭ মে রুপালী ব্যাংক কুড়িগ্রাম শাখা থেকে এক কোটি টাকার একটি চেক সোনালী ব্যাংক কুড়িগ্রাম শাখায় জেলা সময়বায় অফিসের হিসেব নম্বরে জমা হয়। পরবর্তীতে টাকা জমা হওয়ার চার মাস পর ওই বছরের ৯ সেপ্টেম্বর তারিখে আসামী রোজিনা সুলতানা বাহকের মাধ্যমে প্রথমে ২০ লক্ষ টাকা উত্তোলন করেন। পরবর্তীতে আরো ৫টি চেকের মাধ্যমে ব্যাংকে এক হাজার টাকা রেখে বাহক দিয়ে উত্তোলন করে নিজের হেফাজতে নিয়ে নেন।

তিনি তার ব্যক্তিগত নামে সোনালী ব্যাংকে পরিচালিত হিসেব নম্বরে একই বছরের ৯ সেপ্টেম্বর থেকে ১৬ সেপ্টেম্বর মধ্যে তিনটি চেকে ৭৪ লক্ষ ৯৯ হাজার টাকা জমা করেন।

পরবর্তীতে বাহক আরিফুল ইসলাম ও বাহক সাজেদুর রহমানের নামে উপরোক্ত টাকা বিভিন্ন চেকের মাধ্যমে তুলে নেন। টাকা আত্মসাতের বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর রোজিনা সুলতানা গত ২০১৯ সালের ৮ জুলাই থেকে ১৭ জুলাই পর্যন্ত ৮টি চেকের মাধ্যমে আত্মসাৎ করা ৯৯ লক্ষ ৯৯ হাজার টাকা পূণরায় সোনালী ব্যাংক কুড়িগ্রাম শাখায় জেলা সমবায় কর্মকর্তা নামীয় একাউন্টে জমা করেন।

অনুসন্ধান ও কাগজপত্র পর্যালোচনা করে এবং সাক্ষীদের বক্তব্যে দুদকের কাছে প্রতীয়মান হয় যে , সাবেক ভারপ্রাপ্ত জেলা সমবায় কর্মকর্তা রোজিনা সুলতানা ভুল পোস্টিং এর মাধ্যমে জমাকৃত সরকারী টাকা আত্মসাতের উদ্দেশ্যে নিজ হিসেব নম্বরে জমা করেন। তার এই অসৎ উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে রংপুর সমবায় অফিসের অবসরপ্রাপ্ত সাবেক বিভাগীয় যুগ্ম নিবন্ধক আমির হামজা সহযোগিতা প্রদান করেন।

টিএপি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়