বঙ্গবন্ধু হত্যার সুবিধাভোগীদের সৃষ্ট উপজাত হচ্ছে বিএনপি: তথ্যমন্ত্রী

আগের সংবাদ

জাতীয় শোক দিবসে বঙ্গভবনে দোয়া মাহফিল

পরের সংবাদ

জাতীয় শোক দিবস

এক হাজার দুঃস্থ মানুষের মাঝে ঢাকা ক্লাবের খাবার বিতরণ

প্রকাশিত: আগস্ট ১৫, ২০২২ , ৮:০৪ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ১৫, ২০২২ , ৮:০৪ অপরাহ্ণ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদনসহ নানা আয়োজনে জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি পালন করেছে ঢাকা ক্লাব। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে দরিদ্র ও দুঃস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ।

সোমবার (১৫ আগস্ট) বিকেলে ক্লাব প্রাঙ্গণে খাবার বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ক্লাব সভাপতি খন্দকার মশিউজ্জামান রোমেল, দৈনিক ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, ক্লাব পরিচালনা পর্ষদের সদস্য তানবির আজিজ খান, খোজেস্তা নূরয়ী নাহারীন মুন্নী, মাজাহারুল হক শহীদ, এস এম সাজ্জাত হোসেন, নাজমা আক্তার ও রেজাউল করিম।

এছাড়া খেতাবপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা, গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব, সুধীজন ও ক্লাবের অন্যান্য সদস্যরা। সরকারি শিশু পরিবার এতিমখানা ও রাজধানীর একটি সামাজিক সংস্থা ‘ভালো কাজের হোটেল’ এর সহযোগিতায় এক হাজার দুঃস্থ মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।

এসময় ক্লাব সভাপতি খন্দকার মশিউজ্জামান বলেন, জাতির পিতা শেখ মুজিব আমাদেরকে বাংলাদেশ নামক একটি রাষ্ট্র উপহার দিয়ে গেছেন। ১৯৭৫ সালের আজকের এই দিনে অত্যন্ত নির্মমভাবে বাংলাদেশ বিরোধী চক্র এবং কিছু বিপথগামী সামরিক বাহিনীর সদস্য ৭১ এর পরাজয়ের প্রতিশোধ নিতেই ইতিহাসের একটি জঘন্যতম হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছিল। আজকে সেই মহান নেতা বঙ্গবন্ধুর অনুপস্থিতি আমরা হাড়ে হাড়ে উপলব্ধি করছি।

ঢাকা ক্লাব প্রাঙ্গণে খাবার বিতরণ অনুষ্ঠানে ক্লাবের সভাপতি খন্দকার মশিউজ্জামান রোমেলসহ অতিথিরা। ছবি: ভোরের কাগজ

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে গেছে। সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে জাতির পিতার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন। স্বাধীনতা বিরোধী চক্র উন্নয়ন কাজগুলোকে থমকে দেয়ার জন্য তাদের পরবর্তী প্রজন্মকে নিয়ে আবারও আরেকটি নতুন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। তাই সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে আমাদের সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত বলেন, আজ ইতিহাসের সবচেয়ে বর্বরতম দিন। একটি পরিবারকে নিশ্চিহ্ন করার জন্য যেভাবে একটি রক্তক্ষয়ী হত্যাকাণ্ড ঘটনা ঘটেছিল। বঙ্গবন্ধু বরাবরই বলেছেন আমার একটি স্বপ্ন হচ্ছে দারিদ্র্যমুক্ত, ক্ষুধামুক্ত বাংলাদেশ গড়া। সেই লক্ষ্যে ঢাকা ক্লাব সবসময়ই কাজ করে আসছে। করোনার মধ্যে এ ক্লাব ভালো কাজের হোটেল, বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন, লিজার মেহমানখানার মাধ্যমে গরীব-দুঃখীদের মাঝে খাদ্য বিতরণ করেছে। পাশাপাশি যখন অক্সিজেনের চরম সংকট তখন বিভিন্ন হাসপাতালে ক্লাবের সহযোগিতা নিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা ক্লাব একটি অভিজাত ক্লাব। এটি দেশের জনগণের মধ্য থেকে কাজ করে যাচ্ছে। ঢাকা ক্লাব মনে করে তাদের দায়িত্ব এদেশের অগ্রগতির সঙ্গে সংযুক্ত থাকা, এদেশের অগ্রযাত্রার সঙ্গে নিজেদের যুক্ত করা এবং সেই লক্ষ্যে ঢাকা ক্লাব কাজ করে যাচ্ছে। এ ক্লাব সমাজের দরিদ্র দুঃস্থদের পাশে সবসময়ই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়। শীতকালে গরীব-দুঃখীদের মাঝে কম্বল বিতরণ করা, রমজান মাসে ইফতার বিতরণসহ নানান সামাজিক দায়িত্ব পালন করে থাকে ঢাকা ক্লাব।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়