মিশেল ব্যাচেলেট আসছেন আজ

আগের সংবাদ

সালমান রুশদি ভালো আছেন, কথাও বলছেন

পরের সংবাদ

দেশজুড়ে আলোচনায় ‘বেহেশত’

প্রকাশিত: আগস্ট ১৪, ২০২২ , ৮:৩৮ পূর্বাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ১৪, ২০২২ , ৮:৩৮ পূর্বাহ্ণ

‘বৈশ্বিক মন্দায় অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের মানুষ ভালো আছে। আমরা সুখে আছি, বেহেশতে আছি। বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা হয়ে যাবে, একটি পক্ষ এমন প্যানিক ছড়িয়ে আতঙ্ক সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে। এটার কোনো ভিত্তি নেই’- পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের এমন মন্তব্যে তোলপাড় চলছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নেটিজেনরা বিরূপ মন্তব্য করেছেন। ব্যাঙ্গাত্মক-রসাত্মক স্ট্যাটাসে ছেয়ে গেছে ফেসবুকের ওয়াল। সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে সুশীল সমাজের সবার মুখে আলোচনা ‘বেহেশত’- এর পরিবেশ নিয়ে। বেহেশতের পরিবেশ এমন হলে কেউ কেউ সেখানে যেতে চান না বলেও মন্তব্য করছেন। বিদ্যুৎ সংকট, জ¦ালানি তেলসহ নিত্যপণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় জনজীবনে নাভিশ্বাসের মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মন্তব্যে সব শ্রেণি-পেশার মানুষ ক্ষুব্ধ হয়েছেন। সরকারের ভেতরেও এ নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। মন্ত্রিসভার অনেক সদস্য নেতাকর্মীদের সামনে এ নিয়ে বিব্রতকর অবস্থায় পড়ছেন। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরাও নানা প্রশ্নের মুখে পড়ছেন।

মন্ত্রীর নাম উল্লেখ না করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক সেলিম রায়হান ফেসবুকে লিখেছেন, ‘দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা দায়িত্বপূর্ণ কথা বলবেন, এই প্রত্যাশা কি আসলেই বেশি? তা না হলে অনেক কথাই তো কাঁটা ঘাঁয়ে নুনের ছিঁটার মতো মনে হতে পারে!’ সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এ আরাফাত তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘যে কথা কোনো সমাধান দেয় না; বরং আরো সমস্যা তৈরি করে, সে কথা বলার দরকার কী?’ তিনি আরো লিখেছেন, ‘পুরো বিশ্ব কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, সঙ্গে আমরাও। সরকার পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে। মানুষের কষ্ট নিয়ে কৌতুক করা আমাদের উচিত হবে না।’

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, মানুষ কষ্টে আছে, আর পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন ‘বেহেশতে আছি’- তার এ উক্তি জনগণের সঙ্গে তামাশা। জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা জি এম কাদের বলেন, দেশের এমপি-মন্ত্রী আর আওয়ামী লীগ কর্মীরাই বেহেশতে আছেন। কারণ, সরকার সমর্থকরা সীমাহীন দুর্নীতির মাধ্যমে টাকার পাহাড় কামিয়েছে। তাদের কোনো অভাব নেই। প্রতি বছর তারা হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করছে। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশবাসীর কাছে কৌতুক অভিনেতায় পরিণত হয়েছেন।

এদিকে শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে সিলেটে এক মতবিনিময় সভা শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের এই মন্তব্যে সমালোচনার ঝড় উঠলে গতকাল শনিবার দুপুরে সিলেট জেলা পরিষদ আয়োজিত শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে আগের দিনের মন্তব্যের ব্যাখ্যা দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। আব্দুল মোমেন বলেন, ‘বেহেশতের কথা আমি বলেছি, কম্পারেটিভ টু আদার কান্ট্রি। আপনারা সব জায়গায় লিখেছেন ‘বেহেশত বলেছেন’, মানে বক্তব্য টুইস্ট করা হয়েছে। বলেন নাই যে আমাদের মূল্যস্ফীতি অন্য দেশের তুলনায় কম। ইংল্যান্ডে মুদ্রাস্ফীতি ১২ ভাগ, টার্কিতে ৬৭, পাকিস্তানে ৩৭, শ্রীলঙ্কায় ১৫০ আর আমাদের ৭ ভাগ। সেই দিক দিয়ে আমরা ভালো আছি।’ সাংবাদিকদের উদ্দেশে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমি বলেছি, অন্য দেশের তুলনায় আমরা অনেক ভালো আছি। তাদের তুলনায় আমরা বেহেশতে আছি, এই কথা বলেছিলাম। কিন্তু আপনারা এক্কেবারে উল্টা।’

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়