মহিলা সমিতিতে ‘আওরঙ্গজেব’

আগের সংবাদ

তহশিলদার-ইউপি সচিবরা ক্ষমতাধর ও দুর্নীতিবাজ: পরিকল্পনামন্ত্রী

পরের সংবাদ

প্রধানমন্ত্রীর উপহৃত বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি নিদর্শন জাদুঘরে হস্তান্তর

প্রকাশিত: আগস্ট ১৩, ২০২২ , ৮:৫৪ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ১৩, ২০২২ , ৮:৫৪ অপরাহ্ণ

বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপহৃত স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ব্যবহৃত চারটি স্মৃতি নিদর্শন (পাঞ্জাবী, পায়জামা, মুজিব কোট এবং টোবাকো পাইপ) জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘরের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস ২০২২ পালন উপলক্ষে গতকাল শনিবার বিকালে জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে জাতির পিতার স্মৃতি নিদর্শনসমূহ হস্তান্তর করা হয়।

স্মৃতি নিদর্শন হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি সচিব মোঃ আবুল মনসুর। স্মৃতি নিদর্শন হস্তান্তরকারী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘরের কিউরেটর নজরুল ইসলাম খান ও সহকারী কিউরেটর কাজী আফরিন জাহান জুলি এবং উপহৃত নিদর্শন গ্রহণ করেন বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক মোঃ কামরুজ্জামান।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর পর্ষদের সভাপতি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। স্বাগত বক্তব্য দেন জাদুঘরের মহাপরিচালক মোঃ কামরুজ্জামান।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কে এম খালিদ বলেন, বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের জন্য আজকের দিনটি একটি অসাধারণ দিন। বঙ্গবন্ধুর এসব মহামূল্যবান স্মৃতি নিদর্শনগুলো সংরক্ষণের জন্য বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে।

মোঃ আবুল মনসুর বলেন, আজকের এই অর্জন বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের জন্য মাইলফলক হয়ে থাকবে। বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তিত্ব, মহত্ব, ত্যাগ সবই জানা যায় বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি নিদর্শন থেকে।

অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, বঙ্গবন্ধুর প্রত্যেকটা নিদর্শন জাতির জন্য অমুল্য সম্পদ। বঙ্গবন্ধুর মহামূল্যবান নিদর্শনগুলো ঘটনাবহুল এই আগস্ট মাসে সংগ্রহ করতে পেরে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর আনন্দিত। বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি নিদর্শনগুলো নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরলে ইতিহাস সম্পর্কে অনেক অজানা কথা জানতে পারবে।

বঙ্গবন্ধুর জন্য পৃথক গ্যালারি করার কথা উল্লেখ করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, বঙ্গবন্ধুর আরো স্মৃতি নিদর্শন দেয়ার আশা রয়েছে। যাতে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি নিদর্শনগুলো আরও বেশি মানুষ দেখতে পারে এবং বঙ্গবন্ধুকে জানতে পারবে।

মোঃ কামরুজ্জামান বলেন, আগস্ট মাস শোকের মাস, ঘটনাবহুল মাস। এই মাসে জাদুঘর নানা কর্মসূচি পালন করে। এই কর্মসূচির একটি অংশ আজকের এই বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি নিদর্শন হস্তান্তর অনুষ্ঠান। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘর থেকে বঙ্গবন্ধুর ব্যবহৃত পাঞ্জাবী, পায়জামা, মুজিব কোট এবং টোবাকো পাইপ স্থায়ীভাবে আমরা পেলাম। যেটা জাদুঘরের সংগ্রহকে আরও সমৃদ্ধ করলো।

সকালে বঙ্গবন্ধুর ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মিলনায়তন লবিতে শিক্ষার্থীদের রচনা প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হয়।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়