করোনায় আরও একজনের মৃত্যু, শনাক্ত ২১৪

আগের সংবাদ

উন্নয়ন কার্যক্রমে যেন জনদুর্ভোগ না হয়: মেয়র আতিক

পরের সংবাদ

লঞ্চ ভাড়া বাড়াতে ৮ ধরনের প্রস্তাব মন্ত্রণালয়ে

প্রকাশিত: আগস্ট ১১, ২০২২ , ৬:৪৩ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ১১, ২০২২ , ৬:৪৫ অপরাহ্ণ

জ্বালানী তেলের দাম বাড়ানোর পর লঞ্চ ভাড়া বাড়ানোর বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় গঠিত ওয়ার্কিং কমিটি ৮ ধরনের হার প্রস্তাব করেছে। এতে ভাড়া বাড়ানার হার ১৯ দশমিক ৫ শতাংশ থেকে ৫০ শতাংশের মধ্যে রাখা হয়েছে।

ওয়ার্কিং কমিটির সদস্য সচিব বিআইডব্লিউটিএ পরিচালক মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বৃহস্পতিবার জানান, ওয়ার্কি কমিটি ভাড়া বাড়ানোর জন্য ১৯ দশমিক ৫ শতাংশ থেকে ৫০ শতাংশের মধ্যে প্রস্তাব দিয়েছে। এই প্রস্তাব নৌপরিবহন সচিবের দপ্তরে জমা দেয়া হয়েছে। মন্ত্রণালয় এই ৮টি ধাপের মধ্য থেকে কোনো একটি বিবেচনায় নিয়ে ভাড়া বাড়ানোর প্রজ্ঞাপন জারি করতে পারে।

প্রস্তাবে বলা হয়েছে, বর্তমান পরিস্থিতিতে লঞ্চের ভাড়া ১৯ দশমিক ৫ শতাংশ, ২২ শতাংশ, ২৫ শতাংশ, ৩০ শতাংশ, ৩৫ শতাংশ, ৪০ শতাংশ, ৪২ শতাংশ এবং ৫০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানো যেতে পারে।

প্রস্তাবে বলা হয়, ১৯ দশমিক ৫ শতাংশ ভাড়া বাড়লে প্রতি কিলোমিটারে লঞ্চ ভাড়া বাড়বে ৪৫ পয়সা। ২২ শতাংশে বাড়বে ৫১ পয়সা, ২৫ শতাংশে ৫৭ পয়সা, ৩০ শতাংশে ৬৯ পয়সা, ৩৫ শতাংশে ৮০ পয়সা, ৪০ শতাংশে ৯২ পয়সা, ৪২ শতাংশে ৯৬ পয়সা এবং ৫০ শতাংশ হলে প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া বাড়বে ১ টাকা ১৫ পয়সা।

কমিটির প্রস্তাবে আরো বলা হয়েছে, প্রথম ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত দূরত্বের জন্য যে হারে ভাড়া বাড়ানো হবে, ১০০ কিলোমিটারের বেশি দূরত্বের জন্যও একই হারে ভাড়া বাড়ানো যেতে পারে।

কেন ৮ ধরনের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে-জানতে চাইলে রফিকুল ইসলাম বলেন, সড়ক পরিবহনের ভাড়া ২২ শতাংশ বেড়েছে, তেলের দাম বেড়েছে ৪২ শতাংশ। আর মালিক সমিতি ৫০ শতাংশ দাবি করেছে (যদিও মালিক সমিতি ১০০ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছিল)। এই তিনটি বিষয় পর্যালোচনা করে এই ধাপগুলো তৈরি করা হয়েছে। সরকার এখান থেকে উপযুক্ত একটি নির্ধারণ করে গেজেট প্রকাশ করবে।

এতদিন ১০০ কিলোমিটারের কম দূরত্বে প্রতি কিলোমিটারের লঞ্চ ভাড়া ২ টাকা ৩০ পয়সা, দূরত্ব ১০০ কিলোমিটারের বেশি হলে ভাড়া ২ টাকা নির্ধারণ ছিলো। লঞ্চের সর্বনিম্ন ভাড়া ৩০ টাকা ছিলো। গত বছরের নভেম্বরে ডিজেলের দাম ২৩ শতাংশ বাড়ানোর পর লঞ্চের ভাড়া ৩৫ শতাংশের বেশি বাড়ানো হয়।

গত শনিবার সরকার ডিজেলের দাম এক লাফে ৪২ শতাংশ বাড়িয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় বাসের ভাড়া ২২ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এই প্রেক্ষাপটে লঞ্চ মালিকরা লঞ্চ ভাড়া দ্বিগুণ হারে বাড়ানোর জন্য গত রবিবার একটি প্রস্তাব বিআইডব্লিউটিএতে পাঠায়। পরের দিন এই বিষয়ে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ে সচিবের সঙ্গে লঞ্চ মালিকদের বৈঠক হয়। কিন্তু বৈঠকে ভাড়ার বিষয়ে নির্ধারণ না হওয়ায় একটি ওয়াকিং কমিটি গঠন করে দেয়া হয়। নৌ সচিব মো. মোস্তফা কামাল বলেন, মালিকপক্ষের প্রস্তাব তারা ‘যৌক্তিক মনে করছেন না’। সেজন্যই ওয়ার্কিং কমিটি করা হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানায়, নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বর্তমানে দেশের বাইরে আছেন। শুক্রবার রাতে তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে। তিনি গ্রীণ সিগন্যাল দিলেই মন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপন জারি করবে।

ওয়ার্কিং কমিটির আহ্বায়ক হিসেবে ছিলেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এসএম ফেরদৌস আলম, বিআইডব্লিউটিএ পরিচালক মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম ছিলেন সদস্য সচিব। কমিটিতে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের যুগ্ম সচিব মো. আব্দুল মোক্তাদের, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের যুগ্মসচিব মো. হাফিজুর রহমান চৌধুরী, বিআইডব্লিউটিসির পরিচালক এসএম আশিকুজ্জামান, লঞ্চ মালিক সমিতির সহ-সভাপতি সাইদুর রহমান রিন্টু, সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম খান সদস্য হিসেবে রয়েছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়