দলীয় কর্মীদের রাজপথ দখলের প্রস্তুতির আহ্বান বিএনপির

আগের সংবাদ

‘সুইস ব্যাংকের কাছে অর্থ পাচারের তথ্য চাওয়া হয় একাধিকবার’

পরের সংবাদ

রাজধানীতে নারী চিকিৎসক খুনের ঘটনায় প্রেমিক গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: আগস্ট ১১, ২০২২ , ৮:৪৬ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ১১, ২০২২ , ৯:১০ অপরাহ্ণ

রাজধানীর পান্থপথের একটি আবাসিক হোটেল থেকে গলাকাটা অবস্থায় নারী চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধারের ঘটনার মূল হোতা মো. রেজাউল করিমকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) চট্টগ্রাম মহানগরী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। র্যাব সদরদপ্তরের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, রেজাকে ঢাকা আনা হচ্ছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পরে বিস্তারিত তুলে ধরা হবে।

এর আগে, বুধবার রাতে রাজধানীর পান্থপথে একটি আবাসিক হোটেল থেকে জান্নাতুল নাইম সিদ্দিকা (২৭) নামে এক চিকিৎসকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মরদেহে গলা সহ শরীরে ধারালো অস্ত্রের অসংখ্য আঘাত রয়েছে। এরপর ময়নাতদন্তে জন্য মধ্যরাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) মর্গে পাঠানো হয়।

সুরতহালে কলাবাগান থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নার্গিস আক্তার উল্লেখ করেন, তার থুতনিতে, ঠোঁটে, গলায় সাড়ে ৮ ইঞ্চি, বাম কাধে দেড় ইঞ্চি, দুই বৃদ্ধাঙ্গুলিতে, বুকের মাঝখানে, পেটে ৬টা কাটা জখম রয়েছে। এছাড়া, তার পিঠে একটি, বাম পায়ের হাঁটুর ওপরের ছিলা ও হাঁটুর নিচে কাঁটা জখম রয়েছে।

তিনি অন্তঃসত্ত্বা বা ধর্ষণ হয়েছেন কিনা তাও ময়নাতদন্তের মাধ্যমে ফরেনসিক বিভাগের চিকিৎসকদের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে।

এদিকে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে নিহত জান্নাতুলের বাবা অবসরপ্রাপ্ত চিকিৎসক মো. শফিকুল আলম বলেন, তাদের গ্রামের বাড়ি নরসিংদির মনোহরদি উপজেলার চন্দনবাড়ি গ্রামে। রাজারবাগ ২ নম্বর মোমেনবাগ, দোলনচাপা ভবনে থাকেন। মগবাজার কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ থেকে সদ্য এমবিবিএস পাস করেন জান্নাতুল। এরপর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গাইনি বিষয়ে একটি কোর্সে অধ্যয়নরত ছিলেন।

তিনি বলেন, বুধবার সকাল আটটার দিকে জান্নাতুল বাসা থেকে বের হন ক্লাসের কথা বলে। ১০টার দিকে বাসায় ফিরবেন বলে জানান। তবে বাসায় না ফেরায় ১১টার দিকে তার ফোনে কল করেন। তখন কয়েকবার কল হলেও একটু পর থেকে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। এরপর থেকে আর যোগাযোগ করতে পারেননি।

অভিযুক্ত রেজাউল করিম রেজার পরিচয় সম্বন্ধে তিনি বলেন, একদিন পরিচয় করে দিয়েছিল তার সাথে। বলেছিল তার বন্ধু হয়। তার বাড়ি কক্সবাজার। গাজিপুর জয়দেবপুর একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত। এর বেশি কিছু আর শুনি নাই।

কলাবাগান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান, বুধবার সন্ধ্যার পর পান্থপথে ফ্যামিলি সার্ভিস অ্যাপার্টমেন্ট নামের আবাসিক হোটেলটির ৩০৫ নম্বর রুমে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে রেজাউল করিম রেজা নামের এক ব্যক্তির সঙ্গে উঠেছিলেন জান্নাতুল। এরপর রেজাউল জান্নাতুলকে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যান বলে ধারণা করা হচ্ছে। রেজাউলকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়