অস্ত্র হাতে যুবলীগ নেতার ছবি ভাইরাল

আগের সংবাদ

আবারো চালের দাম বৃদ্ধি : নিত্যপণ্যের দাম সহনীয় রাখতে হবে

পরের সংবাদ

সব ধরনের জ্বালানির তেলের দাম বাড়ল

প্রকাশিত: আগস্ট ৫, ২০২২ , ১০:৫০ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ৬, ২০২২ , ১২:৪৬ পূর্বাহ্ণ

সকালে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নজরুল হামিদ জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর ইঙ্গিত দেয়ার ৮ ঘন্টার মধ্যেই সব ধরনের জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে । শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টার পর থেকে নতুন দাম কার্যকর হবে।

এক লাফে ডিজেল ও কেরোসিনে লিটারে বেড়েছে ৩৪ টাকা। নতুন করে ডিজেল ও কেরোসিন এখন ভোক্তাকে কিনতে হবে ১১৪ টাকায়। অন্য দিকে অকটেনে প্রতি লিটারে বাড়ানো হয়েছে ৪৬ টাকা। এখন প্রতি লিটার অকটেন ১৩৫ টাকা হয়েছে। পেট্রোল ৪৪ টাকা বেড়ে হয়েছে ১৩০ টাকা লিটার।
জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ এই দাম নির্ধারণ করেই ঘোষণা দিয়েছে। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে জ্বালানি বিভাগের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই ঘোষণা দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ২৪ এপ্রিল জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয় করা হয়। এরপর ২০২১ সালের ৩ নভেম্বর দেশে জ্বালানি তেলের দাম আরো এক দফা সমন্বয় করে সরকার। সে সময় ডিজেল ও কেরোসিনের দাম বাড়ানো হয় লিটারে ১৫ টাকা করে। তখন দাম বেড়ে হয় ৮০ টাকা লিটার।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের মূল্য বাংলাদেশের তুলনায় অনেক বেশি হওয়ায় বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি), ইস্টার্ণ রিফাইনারি লিমিটেড (ইআরএল)-এ পরিশোধিত এবং আমদানি/ক্রয়কৃত ডিজেল, কেরোসিন, অকটেন ও পেট্রোলের মূল্য সমন্বয় করে ভোক্তা পর্যায়ে এই দাম পুনঃনির্ধারণ করা হলো।

এর আগে শুক্রবার সকালে বিদ্যুৎ জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের বারিধারার বাসায় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি গ্যাস ও জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর ইঙ্গিত করে বলেছেন, গ্যাস, ডিজেল ও পেট্রোলের দাম বাড়ানো উচিত। বিশ্ববাজারে দাম বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে ডিজেল, পেট্রোল, অকটেন, গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়িয়ে যৌক্তিক পর্যায়ে নিয়ে আসার সময় এসেছে। বিশ্ব বাজারের সঙ্গে এখন দাম সমন্বয় না করলে অনেক ক্ষতি হয়ে যাবে।
তিনি বলেন, বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর ব্যাপারে বিইআরসি সিদ্ধান্ত নেবে।

এদিকে, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর ফলে পরিবহন এবং পণ্যের উপরে এর বড় প্রভাব পড়বে। সব ধরনের পরিবহনের ভাড়া বেড়ে যাবে। পরিবহনের ভাড়া বাড়ানোর কারণে পণ্যের দাম বেড়ে যাবে। বক্তারা সবচেয়ে বড় সংকটে পড়বে।

কনজিউমার এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ ক্যাবের জ্বালানি উপদেষ্টা অধ্যাপক ডক্টর এম শামসুল আলম বলেন, বৈশ্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে এই মুহূর্তে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর সরকারের সিদ্ধান্ত সঠিক হয়নি। সরকার আরো কিছুদিন ভর্তুকি দিতে পারতো। দাম বাড়ানোর ফলে সব ক্ষেত্রে এর প্রভাব পড়বে। জীবনযাত্রার ব্যয় এবং দ্রব্যমূল্য বেড়ে গেলে সারাদেশে জনজীবনে একটি অস্থিতিশীল পরিবেশের সৃষ্টি হবে।
তিনি বলেন, সাধারণ মানুষের ব্যয় আরো বেড়ে যাবে। তারাই সবচেয়ে বড় সংকটের মধ্যে পড়বেন।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়