নেপালকে মোংলা ও চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর ব্যবহারের প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর

আগের সংবাদ

অস্ত্র হাতে যুবলীগ নেতার ছবি ভাইরাল

পরের সংবাদ

ওয়ানডেতে ৯ বছর পর জিম্বাবুয়ের কাছে হারল বাংলাদেশ

প্রকাশিত: আগস্ট ৫, ২০২২ , ৯:৩১ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ৫, ২০২২ , ১০:২৩ অপরাহ্ণ

ওয়ানডেতে ৯ বছর পর জিম্বাবুয়ের কাছে হারল বাংলাদেশ। পাঁচ উইকেটে জিতল জিম্বাবুয়ে।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ব্যাট হাতে ভালই লড়াই করে টাইগাররা। লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা বল হাতে ছিল নিস্প্রভ। টাইগারদের জয়ের আনন্দ উপভোগ করার উপলক্ষ্যটা গড়ে দিতে ব্যর্থ হন তাসকিন-শরিফুলরা।

শুক্রবার (৮ আগষ্ট) টস হেরে লিটন-তামিমের ব্যাটে ৫০ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ৩০৩ রান তুলে সফরকারীরা। জবাবে ৬ উইকেটে হেসে খেলে জিতেছে জিম্বাবুয়ে। এছাড়া এই ম্যাচে তামিম রেকর্ড গড়লেও সেঞ্চুরির আক্ষেপে পুড়ছেন লিটন। প্রথম বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ানডে সংস্করণে হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন তামিম। তবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে শেষ হওয়ার আগেই জানা গেছে, হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট পাওয়া লিটন দাস তিন ম্যাচের সিরিজ থেকেই ছিটকে পড়েছেন। এমনকি শঙ্কা আছে তার এশিয়া কাপে খেলা নিয়েও।

এদিকে ৩০৪ রানের জবাবে শুরুটা ভালো করতে পারেনি স্বাগতিকরা। তবে টাইগারদের মিসফিল্ডিংয়ের ফায়দা লুটেছে জিম্বাবুয়ে। প্রথম ওভারেই আঘাত হানেন মোস্তাফিজুর রহমান। কাটার মাস্টারকে কাট করতে গিয়ে স্টাম্পে বল টেনে আনলেন জিম্বাবুইয়ান অধিনায়ক রেগিস চাকাভা। ২ রান করেই ফিরলেন বোল্ড হয়ে। এর পরের ওভারে বল হাতে নিয়ে উইকেট তুলে নেন শরিফুল ইসলামও।

এবার তারিসাই মুসাকান্দা কভারে বল আকাশে তুলে দিয়ে হন মোসাদ্দেক হোসেনের সহজ ক্যাচ। ৬ রানে ২ উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। তৃতীয় উইকেট হারানোর পর জুটি গড়েন কাইয়া-রাজা। দুজনে এগিয়ে নিতে থাকেন দলকে। ১২২ বলে ১১ চার ২ ছক্কায় ১১০ রান করে আউট হন কাইয়া। তিনি আউট হলেও বিধ্বংসী ছিলেন রাজা। তিনি ১০৯ বলে ৮টি চার ও ৬ ছক্কায় ১৩৫ রান তুলে অপরাজিত ছিলেন।

এছাড়া শুক্রবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে খেলতে নেমে রেকর্ডগড়া এই অর্জন গড়েন টাইগার বা-হাতি ওপেনার। ইনিংসের ২৪তম ওভারে সিকান্দার রাজাকে চার মেরে এই মাইলফলক স্পর্শ করেন তামিম। তিনি সেই সঙ্গে ওয়ানডে ফমেটে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রানের মালিকও। এদিন ৭৯৪৩ রান নিয়ে ব্যাটিং শুরু করেন টাইগার দলপতি। বেশ দেখেশুনে কোনো ঝুঁকি না নিয়ে রান তুলতে থাকেন তিনি। কোন বাজে শট খেলার চেষ্টা করেননি। তামিম ৭টি চারের পর ৭৯ বলে ওয়ানডেতে নিজের ৫৪তম ফিফটির স্বাদ পান। এরপর যখন ৫৭ রানে পৌঁছান, তখন নিজের অর্জনটাকে আরো সমৃদ্ধ করেন তামিম।

এতোদিন বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডেতে ৭ হাজার রানের ক্লাবের সদস্য ছিলেন তিনি। এবার নিজেকে ছাড়িয়ে তামিম পৌঁছালেন ৮ হাজারি ক্লাব। যেখানে ২২৯ ইনিংস ব্যাট করা তামিমের ১৪টি সেঞ্চুরির সঙ্গে ফিফটি আছে ৫৪টি। সব মিলিয়ে বিশ্বের ৩৪তম ব্যাটসম্যান হিসেবে ৮ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করলেন এই টাইগার ড্যাশিং ওপেনার। রাজার বলে হুক করতে গিয়ে কাইয়ার হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ৯ চারে ৮৮ বলে ৬২ রান করে বিদায় নেন তামিম।

এদিকে ৩৪তম ওভারের প্রথম বলে দ্রুত সিঙ্গেল নিতে গিয়ে পেশিতে টান পড়ে লিটনের। এরপর মাটিতে লুটিয়ে পড়েন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। স্ট্রেচারে করে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় ড্রেসিংরুমে। দুর্দান্ত খেলতে থাকা লিটন ৮৯ বলে ৮১ রানে রিটায়ার্ড হার্ট হন। তার ইনিংসে চারের মার ছিল ৯টি আর ছয়ের মার ১টি। ৭৫ বলে ফিফটির পর লিটন খেলতে থাকেন দারুণ। কিন্তু চোটের কারণে মাঠ ছাড়তে হলো সেঞ্চুরি থেকে ১৯ রান দূরে থেকে। এরপর বাংলাদেশের রানের চাকা সচল রাখেন এনামুল হক বিজয়-মুশফিক।

তারা দুজন ঠান্ডা মাথায় ব্যাট চালিয়ে ৩৮ ওভারে দলীয় স্কোর ২০০ পূর্ণ করে। ৬২ বলে ৭৩ রান করেন এনামুল। তিনি ওয়ানডে ফরমেটে এই নিয়ে চতুর্থবারের মতো ফিফটির দেখা পেলেন। এনামুল তিন বছর পর ওয়ানডে দলে ফিরেছেন। এনামুল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২০১৯ সালের ৩১ জুলাই সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেন। এরপর বাজে ফর্মের কারণে দলে জায়গা হয়নি তার। তবে ডিপিএলে রেকর্ড রান করে নিজেকে আরও একবার প্রমাণ করেছেন এনামুল।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়