দেওয়ানগঞ্জে টিকিট কালোবাজারিকে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড

আগের সংবাদ

আমার সঙ্গে অন্যায় করা হয়েছে: হিরো আলম

পরের সংবাদ

ত্রিশালের সেই শিশুটি অবশেষে ‘ছোটমনি নিবাসে’

প্রকাশিত: জুলাই ২৮, ২০২২ , ১০:১৬ অপরাহ্ণ আপডেট: জুলাই ২৮, ২০২২ , ১০:১৬ অপরাহ্ণ

ময়মনসিংহের ত্রিশালে ট্রাকচাপায় নিহত মায়ের গর্ভ ফেটে জন্ম নেওয়া সেই শিশুটি অবশেষে ‘ছোটমনি নিবাসে’ নেওয়া হচ্ছে। নবজাতক কন্যা শিশুটিকে ঢাকার আজিমপুরে ছোটমনি শিশু নিবাসে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসন। শুক্রবার (২৯ জুলাই) সমাজসেবা অধিদপ্তরের মাধ্যমে তাকে সেখানে পাঠাবে জেলা শিশুকল্যাণ বোর্ড।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ময়মনসিংহ জেলা শিশু কল্যাণ বোর্ডের সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক।

তিনি জানান, জেলা প্রশাসন ও ত্রিশাল উপজেলা প্রশাসন এবং সমাজসেবা অধিদপ্তরের একাধিক সভা করে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। শিশুটি চিকিৎসাসহ ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে শিশুটিকে ছোটমনি নিবাসে পাঠানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সমাজসেবা অধিদপ্তরের ময়মনসিংহ কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. ওয়ালী উল্লাহ বলেন, শিশুটিকে ঢাকার আজিমপুরে ছোটমণি শিশু নিবাসে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে থেকে শিশুটিকে ছোটমণি নিবাসে পাঠানো হবে। সরকারি নিবাসে থাকলে শিশুটির থাকা খাওয়া চিকিৎসা নিয়ে কোন চিন্তা করতে হবে না।

তিনি আরো জানান, শিশু কল্যাণ বোর্ডের এক সভায় শিশুটির দাদাসহ তার স্বজনদের উপস্থিতিতে শিশুটির লালন পালনের লোকবল ও উপযুক্ত পরিবেশ না থাকায় শিশুটির অভিভাবক হিসেবে দাদা মোস্তাফিজুর রহমানের মতামত নিয়েই তাকে ছোটমণি নিবাসে পাঠানো হচ্ছে।

শিশুটির দাদা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমাদের নাতিকে নিজেদের কাছেই রেখে লালন পালন করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু আমার আর্থিক ও বাড়ির পরিবেশ ভালো না থাকায় ডিসি (জেলা প্রশাসক) সাহেব শিশুটিকে সরকারি ছোটমণি নিবাসে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্তে আমি খুশি। কারণ ছোটমণি নিবাসে আগামী ৬ মাস থাকবে আমার নাতি। এই সময়টাতে অভিভাবক হিসেবে যে কোনো সময় তাকে দেখতে যেতে পারব। আমার বাড়ির পরিবেশ ভালো না থাকায় ডিসি সাহেব দুই কক্ষ বিশিষ্ট একটি ঘর করে দিবেন বলে জানিয়েছেন। এরপর নাতনিকে বাড়ি নিয়ে আসবো।

গত ১৬ জুলাই ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ট্রাকচাপায় মায়ের পেট চিড়ে জন্ম নেয় এক শিশু। এসময় মারা যান শিশুটির বাবা জাহাঙ্গীর আলম (৪২) মা রত্না বেগম ও ছয় বছরের বোন সানজিদা।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়