নিউজ ফ্ল্যাশ

আগের সংবাদ

নাসুম-মিরাজ ঘূর্ণিতে ১০৮ রানে গুটিয়ে গেল উইন্ডিজ

পরের সংবাদ

অধ্যক্ষর ওপর হামলাকারী এমপি ওমর ফারুকের বিচার দাবি সিপিবির

প্রকাশিত: জুলাই ১৩, ২০২২ , ৮:৪৩ অপরাহ্ণ আপডেট: জুলাই ১৩, ২০২২ , ৮:৪৩ অপরাহ্ণ

রাজশাহীর গোদাগাড়ীর রাজবাড়ী ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ সেলিম রেজার ওপর রাজশাহী-১ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরীর হামলা ও আহত করার ঘটনায় উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পাটি।

বুধবার (১৩ জুলাই) এক বিবৃতিতে সিপিবির সভাপতি মোহাম্মদ শাহ আলম ও সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ এবং দোষী এমপির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

বিবৃতিতে তারা বলেন, আমরা জানতে পারলাম কলেজ অধ্যক্ষকে সাংসদ সন্ত্রাসী কায়দায় বেপরোয়া লাথি, কিল-ঘুষি ও হকিস্টিক দিয়ে প্রায় ১৫ মিনিট আঘাত করা হয়েছে। কিন্তু এখবরটি প্রকাশিত হলো বেশ ক’দিন পর। ভয়ের সংস্কৃতি কোথায় পৌঁছেছে, এঘটনা সহ সম্প্রতি সময়ের অনেক ঘটনা তা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে।

বিবৃতিতে নেতারা বলেন, অতীতে সাংসদ, চেয়ারম্যান বা সরকার দলীয় নেতা-কর্মীদের দ্বারা শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনা ঘটলেও তার দৃষ্টান্তমূলক কোন বিচার হয়নি। এর ফলেও একের পর এক এধরনের ঘটনা ঘটে চলেছে। অবিলম্বে দোষী সাংসদের বিরুদ্ধে দ্রুত দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেবার দাবি জানান। সিপিবি নেতারা সংশ্লিষ্ট শিক্ষকসহ সকলের মর্যাদা ও নিরাপত্তা যথাযথ ব্যবস্থা নেবার আহ্বান জানান।

রাজশাহীতে অধ্যক্ষ নির্যাতনের তীব্র নিন্দা ছাত্র ফ্রন্টের রাজশাহী-১ আসনের এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী এক কলেজ অধ্যক্ষকে বেধড়ক মারধর করার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট। আজ এক বিবৃতিতে ফ্রন্টের নেতারা ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে এর সঙ্গে জড়িত সংসদ সদস্যের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে।

বিবৃতিতে সংগঠনের সভাপতি মুক্তা বাড়ৈ ও সাধারণ সম্পাদক শোভন রহমান বলেন, সারাদেশে অব্যাহত রয়েছে শিক্ষক নির্যাতন। এর প্রত্যেক ঘটনার সাথেই কোন না কোন ভাবে সরকারদলীয় নেতাকর্মীরা যুক্ত। তারা আইন ও বিচারের ঊর্ধ্বে, তাই তারা যখন তখন যাকে তাকে খুশি অন্যায় ভাবে মারধর করতে পারে, অপমান অপদস্ত করতে পারে।

ইতিপূর্বে যতগুলো শিক্ষক নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে, তার একটিরও কোন বিচার হয়নি। কারণ যারা এই দেশের আইন প্রণেতা, সংসদ সদস্য, তারাই এতজন অধ্যক্ষের সামনে আরেকজন অধ্যক্ষকে ১৫ মিনিট ধরে মারধর করার মত ঘৃণ্য অপরাধ করে বেড়ায় নির্দ্বিধায়। এহেন ব্যক্তির সংসদ সদস্য হয়ে থাকা তো দূরের কথা, সুস্থ স্বাভাবিক মানুষের সমাজেই তার কোন স্থান থাকতে পারে না। আমরা অবিলম্বে এই ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত চাই ও এর সাথে জড়িত ওই সংসদ সদস্যের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করি।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়