বাংলাদেশ তথ্য প্রবাহের সুবর্ণ সময় অতিক্রম করছে: স্পিকার

আগের সংবাদ

দোরাইস্বামী যাচ্ছেন, আসতে পারেন সুধাকর

পরের সংবাদ

সোনারগাঁওয়ে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে গলাটিপে হত্যা

প্রকাশিত: জুলাই ২, ২০২২ , ৩:৫৬ অপরাহ্ণ আপডেট: জুলাই ২, ২০২২ , ৫:৩৮ অপরাহ্ণ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের গাজারিয়া পাড়া এলাকায় মোসা. জুনু আক্তার (২২), নামে এক কন্যা সন্তানের জননীকে যৌতুকের দাবিতে গলাটিপে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ হত্যাকাণ্ডকে আত্মহত্যা বলে এলাকায় চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেছে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন।

নিহত মোসা. জুনু আক্তার উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের মুছারচর গ্রামের আলী হোসেনের মেয়ে।

নিহতের বড় ভাই সোলেয়মান জানান, আমার ছোট বোন মোসা. জুনু আক্তারকে প্রায় ৪ বছর আগে পাশ্ববর্তী সাদিপুর ইউনিয়নের গাজারিয়াপাড়া গ্রামের দাইয়ানের ছেলে কবিরের সঙ্গে বিয়ে হয়। বিবাহর সময় নগদ ৫ লাখ টাকা, ৬ ভরি ওজনের স্বর্ণালংকার ও বিভিন্ন আসবাবপত্র যৌতুক হিসেবে দিয়ে দেয়া হয়। ঘাতক স্বামী মাদকাসক্ত ও বেকার হওয়ায় গৃহবধূ মোসা. জুনু আক্তারকে তার পিত্রালয় টাকা এনে দেয়ার জন্য প্রায় মারপিট করতো।

শনিবার ভোর রাতে স্বামী কবিরের সঙ্গে মোসা. জুনু আক্তারের ঝগড়া হয়। এ ঝগড়াকে কেন্দ্র করে স্ত্রী জুনু আক্তারকে পিটিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে লীলাফুলা জখম করে এবং গলায় গামছা পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে ঘরের ভেতরে নিহতের লাশ ফেলে ২ বছরের শিশু কন্যা রোজ মনিকে সঙ্গে নিয়ে বাড়ির সবাই পালিয়ে যায়।

এদিকে পাশের বাড়ির লোকজন ঘটনার আলামত দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পরে সোনারগাঁও তালতলা ফাঁড়ি পুলিশের ইনচার্জ পরিদর্শক মো. জাকির রব্বানীর নেতৃত্বে নিহত গৃহবধূ মোসা. জুনু আক্তারের লাশ উদ্ধার করে জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ সময় নিহতের শরীরের পিঠে ও বিভিন্ন স্থানে লীলাফুলা জখমের চিহ্ন দেখতে পায়। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়