পরিবেশবান্ধব প্রকল্পের অনুমোদন জরুরি

আগের সংবাদ

শিক্ষকদের নিরাপত্তা ও যথাযথ মূল্যায়ন হোক

পরের সংবাদ

বন্যায় দুর্বিষহ জীবন : সর্বহারা মানুষের পাশে দাঁড়ান

আলতাফ হোসেন হৃদয় খান

লেখক ও সমাজকর্মী

প্রকাশিত: জুন ৩০, ২০২২ , ১:২২ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জুন ৩০, ২০২২ , ১:২২ পূর্বাহ্ণ

ভারি বর্ষণের প্রভাবে প্রায় প্রতি বছরই আমাদের দেশে বন্যা হয়। তবে বর্তমানে সিলেটসহ দেশের কয়েকটি জায়গায় বন্যায় প্লাবিত হওয়ায় জনজীবন বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়ে পড়েছে। টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে ক্রমান্বয়ে বেড়েছে পানি। সিলেটে প্রথম দফায় বন্যায় ক্ষয়ক্ষতির দুর্ভোগের রেশ কাটতে না কাটতেই দ্বিতীয় দফায় আবার বন্যায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়ার আশঙ্কা।
স্মরণকালের এমন ভয়াবহ বন্যার নির্মম চিত্র আর কখনো দেখেনি সিলেটবাসী। সিলেটের পাশাপাশি সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা, লালমনিরহাট, নীলফামারী, রংপুর ও কুড়িগ্রাম জেলায়ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
বন্যাকবলিত এলাকায় সরকারের পাশাপাশি ব্যক্তি উদ্যোগ, সামাজিক, রাজনৈতিক, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলোর নিরলস প্রচেষ্টায় দফায় দফায় ত্রাণসামগ্রী দিয়ে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন এবং অনেক হৃদয়বান ব্যক্তি সর্বহারা বন্যাকবলিতদের বসতবাড়ি নির্মাণের প্রতিশ্রæতিও দিয়েছেন। এমন সংকটময় পরিস্থিতিতে যারা এমন মানবিক কাজে অংশগ্রহণ করেছেন সবাই প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করছেন। সিলেটসহ যেসব জেলায় বন্যা হয়েছে, বর্তমানে অধিকাংশ এলাকা থেকে পানি নেমে গিয়েছে। তবে ভয়াল বন্যার গ্রাসে বহু কষ্টের অর্জিত টাকার অনেক বসতবাড়ি এখন আর নেই। বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়া বাড়ির পরিবার এখন আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করছে। বন্যা শেষে সর্বস্বহারা এসব মানুষ কবে বসতভিটায় উঠবে তাও অনিশ্চিত। সেই সঙ্গে বন্যায় বিধ্বস্ত সড়কগুলোও প্রায় চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ঋণ নিয়ে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে হাজারো কষ্টে গড়া ফসলি জমি, মাছের খামার, পোল্ট্রি ফার্ম বন্যায় ডুবে অনেকে সর্বহারা হয়েছে। ফলে বিভিন্ন অবকাঠামো ও ব্যবসা-বাণিজ্যের ব্যাপক ক্ষতিসাধন হয়েছে। তাই সংশ্লিষ্ট পক্ষের কাছে অনুরোধ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা সংস্কার করা ও সর্বস্বহারা প্রত্যেক পরিবারকে দুর্যোগ-পরবর্তী পুনর্বাসনের আওতায় আনা হোক।

আলতাফ হোসেন হৃদয় খান
লেখক ও সমাজকর্মী।
[email protected]

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়