নিখোঁজের ৩ দিন পর স্কুল ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার

আগের সংবাদ

শিক্ষক হত্যাকাণ্ড: মূল অভিযুক্ত জিতুর বাবাকে ৫ দিনের রিমান্ড

পরের সংবাদ

শ্রেণি কক্ষে রাবি শিক্ষিকাকে লাঞ্ছিত, শিক্ষার্থী বহিষ্কার

প্রকাশিত: জুন ২৯, ২০২২ , ৪:৫১ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ২৯, ২০২২ , ৫:০০ অপরাহ্ণ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক বেগম আসমা সিদ্দীকাকে ক্লাসরুমে হেনস্তা করার অভিযোগে এক শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। ওই শিক্ষার্থীর নাম মো. আশিক উল্লাহ। তিনি আইন বিভাগের স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী।

বুধবার (২৯ জুন) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর একাডেমিক ভবনের আইন বিভাগের ২৪৪ নম্বর কক্ষে এমন ঘটনা ঘটে। পরে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে দুপুরে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত জানায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিক্ষক ওই ছাত্রের বিরুদ্ধে মতিহার থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। আশিক উল্লাহকে ওই ঘটনার পর থেকে প্রক্টরের দপ্তরে রাখা হয়েছে।

বিভাগ সূত্রে জানা যায়, আশিক উল্লাহ নামে ওই শিক্ষার্থী বিভিন্ন সময় বিভাগের ছাত্রীদের হেনস্তাসহ বিভাগের শিক্ষকদের নামেও কটাক্ষ করে তার নিজস্ব ফেসবুক আইডির ‘আশিক নামা’ পেজ থেকে পোস্ট দিয়ে আসছিল। সকালে ক্লাস চলাকালে আশিক উল্লাহ নামে ওই শিক্ষার্থী ক্লাসে প্রবেশ করে এবং ক্লাসের দরজা বন্ধ করে শিক্ষিকাকে লাঞ্ছিত করার চেষ্টা করে। এ সময় সেই শিক্ষিকা বের হওয়ার চেষ্টা করলে বাধা দেয় আশিক। এ সময় কয়েকজন শিক্ষার্থী ওই ঘটনার প্রতিবাদ জানালে তাদেরকেও হত্যার হুমকি দেয়া হয় বলে জানা গেছে। ক্লাস শেষে শিক্ষার্থীরা আশিককে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের দাবিসহ তিন দফা দাবিতে বিভাগের সামনে অবস্থান নেয়।

এ বিষয়ে আইন বিভাগের প্রফেসর বেগম আসমা সিদ্দিকা বলেন, এই শিক্ষার্থীর সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত কোনো দ্বন্দ্ব নেই। সে আমাকে ক্লাসরুমে অবরুদ্ধ করার চেষ্টা করে। আমার প্রিয় শিক্ষার্থীরা সেখান থেকে আমাকে বের করে আনে। আমি তার বিরুদ্ধে প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছি।

এ বিষয়ে প্রক্টর আসাবুল হক বলেন, ওই শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। ভুক্তভোগী শিক্ষক ইতিমধ্যে তাঁর বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। আশিক আপাতত প্রক্টরের দপ্তরেই আছেন। পুলিশ পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়