স্ত্রীসহ মাদক সম্রাট উজ্জ্বলের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

আগের সংবাদ

সানি আজাদের হাফ সেঞ্চুরি ‘হারাতে দেবো না’

পরের সংবাদ

অভিমানে নিজের শরীরে আগুন দেয়া সেই চিকিৎসকের মৃত্যু

প্রকাশিত: জুন ২৯, ২০২২ , ১:৩৪ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ২৯, ২০২২ , ১:৫৭ অপরাহ্ণ

৫ দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে না ফেরার দেশে চলে গেলেন রাজধানীর ওয়ারী হেয়ার স্ট্রিটের বাসায় দগ্ধ হওয়া নারী চিকিৎসক অদিতি সরকার (৩৮)। চিকিৎসাধীন শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) বুধবার (২৯ জুন) সকাল ১০টার দিকে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

স্বামীর প্রতি অভিমানী এই চিকিৎসকের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইনস্টিটিউটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন। তিনি জানান, ডা. অদিতির শরীরের ৫০ শতাংশ জায়গা দগ্ধ হয়েছিল। গত শুক্রবার দগ্ধ অদিতিকে হাসপাতালে নেয়া হয়।

অদিতি নিজের গায়ে নিজেই আগুন দিয়েছিলো দাবি করে তার স্বামী মনেষ মণ্ডল ওইদিন জানান, হেয়ার স্ট্রিট ১০ নম্বর বাসার ষষ্ঠ তলার থাকেন তারা। অদিতি মিটফোর্ড হাসপাতালের শিশু বিভাগের রেজিস্ট্রার ছিলেন। তাদের ঘরে দুই সন্তান রয়েছে। আর তিনি নিজে প্রকৌশলী। তাদের বাড়ি ঢাকার নবাবগঞ্জে। দীর্ঘদিন ধরে অদিতি শারীরিকভাবে অসুস্থ ও মানসিকভাবে বিষণ্নতা ভুগছিলেন। এ ব্যাপারে চিকিৎসাও নিতে বলছিলাম তাকে। তবে তাতে অনীহা দেখাচ্ছিল অদিতি। একে কেন্দ্র করে আমাদের মধ্যে সামান্য ঝগড়াঝাটি হয়।

অদিতির স্বামী আরও বলেন, সেদিন সকালে আমি অফিসে ছিলাম। যখন অনলাইনে একটি সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলাম তখন অদিতি বারবার ফোন করছিলেন। ফোন কেটে দেয়ার পরও অদিতি আমার ফোনে কল দিচ্ছিলেন। পরে ফোন রিসিভ করে তার সাথে সামান্য রাগ করে কথা বলি। দুপুরে বাসায় ফিরে জামাকাপড় ছাড়ছিলাম। হঠাৎ পাশের রুমে অদিতির চিৎকার শুনতে পাই। দৌঁড়ে গিয়ে দেখি তার শরীরে আগুন জ্বলছে। সঙ্গে সঙ্গে বাথরুমে নিয়ে তার শরীরে পানি ঢালি। এরপর ট্রিপল নাইনের (৯৯৯) মাধ্যমে একটি অ্যাম্বুলেন্স ডেকে বার্ন ইনস্টিটিউটে নিয়ে যাই।

মনেষ মণ্ডল দাবি করে বলেন, অদিতি নিজের গায়ে নিজেই আগুন দিতে পারেন। অথবা পাশের রুমে পূজার সময় তার শরীরে আগুন লেগে যেতে পারে।

ওয়ারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কবির হোসেন হাওলাদার জানান, ডা.অদিতি নামে এক নারী চিকিৎসক আগুনে দগ্ধ হয়ে বার্ন ইনস্টিটিউটে মারা গেছেন। মৃত্যুর আগে বলে গেছেন, স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে নিজেই নিজের শরীরে আগুন দিয়েছেন তিনি। ময়নাতদন্তের জন্য তার মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে।

রি-আইআর/টিআর/ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়