কুসিক নির্বাচনের ফল বাতিল চেয়ে আদালতে যাচ্ছেন মনিরুল

আগের সংবাদ

করোনা রোধে ৬ নির্দেশনা, মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক

পরের সংবাদ

বানভাসিদের দুর্ভোগ লাঘবে পরিকল্পনাহীন সরকার: খন্দকার মোশাররফ

প্রকাশিত: জুন ২৮, ২০২২ , ৮:১১ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ২৮, ২০২২ , ৮:১১ অপরাহ্ণ

বানভাসিদের দুর্ভোগ লাঘবে সরকারের কোনো পরিকল্পনা নেই বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেন, বন্যার্ত মানুষজন কী পরিমান মানবেতর জীবন-যাপন করছে পত্র-পত্রিকা ও মিডিয়ায় দেখলে বোঝা যায়। সরকারের পক্ষ থেকে বন্যা মোকাবিলায় যেভাবে এগিয়ে আসার কথা ছিল, সেভাবে তারা কাজ করছেনা। তারা অন্য কাজে ব্যস্ত ছিল। মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের তোফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে এক গোল টেবিল আলোচনায় সিলেট-সুনামগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতির প্রসঙ্গ টেনে এসব কথা বলেন তিনি।

সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ রিসার্চ সেন্টারের উদ্যোগে ‘বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে পানি বন্টনের ইস্যু’ শীর্ষক এই গোল টেবিল আলোচনায় মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন মোস্তফা কামাল মজুমদার। এই সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয় উল্লেখ করে খন্দকার মোশাররফ বলেন, দুর্ভাগ্য জনগণের। জনগণের ভোটের সরকার যদি না হয়, জনগণের সরকার যদি না হয়, তাহলে জনগণের কষ্ট, জনগণের দূঃখ প্রাধান্য পায় না, পায় ব্যক্তিস্বার্থ ও গোষ্ঠি স্বার্থ। বাংলাদেশের নদ-নদীর পানি প্রবাহের প্রসঙ্গ টেনে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, কিছুদিন আগের লোক দেখানো আমাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রী গিয়ে জিআরসি মিটিং করেছেন। সেই মিটিংয়ে কী করেছেন?

জয়েন্ট রিভার কমিশনের কোনো রিপোর্ট ছাড়া যে তারা লিপ সার্ভিস একটা দিলেন, এটা আসলে বাংলাদেশের মানুষকে প্রতারণা করা হযেছে। কারণ সবাই জানেন, বন্যায় যখন বাংলাদেশ তলিয়ে গেছে, মানুষ মানবেতর জীবনযাপন করছে। কী পরিমান ক্ষতি হয়েছে এখন পর্যন্ত ভালো করে এর হিসাব দেয়া হচ্ছে না। সব গেইট ভারত এই বর্ষাকালে খুলে দিয়েছে। যখন আমাদের পানির প্রয়োজন নাই তখন আমাদেরকে ভাসিয়ে দিচ্ছে। যখন আমাদের পানি প্রয়োজন, আমার জীবিকা, আমার জীবন রক্ষার জন্য তখন উজানের পানি অন্যদিকে ঘুরিয়ে দিয়ে বাংলাদেশকে মরুকরণ করে দেয়া হচ্ছে। পানি ব্যবস্থাপনার একতরফা সিদ্ধান্ত ও নতজানু পররাষ্ট্র নীতির কারণে আজকের এই পরিস্থিতি। এই অবস্থা থেকে উত্তরণে জনগণকে সচেতন করে গড়ে তোলার ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ রিসার্চ সেন্টারের চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদের সভাপতিত্বে গোল টেবিল আলোচনায় জাতিসংঘের পরিবেশবিষয়ক সাবেক উপদেষ্টা ড. এস আই খান, পানি বিশেষজ্ঞ প্রকৌশলী এম ইনামূল হক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যায়ন বিভাগের অধ্যাপক সাইফুদ্দিন আহমেদ বক্তব্য রাখেন।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়