পদ্মা সেতুর নাট খোলা সেই যুবকের বাড়িতে হামলা-ভাঙচুর

আগের সংবাদ

অর্ধেকে নেমে এসেছে সঞ্চয়পত্র বিক্রি

পরের সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আমাদের মানবাধিকার পরিস্থিতি অনেক ভালো: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: জুন ২৭, ২০২২ , ৯:৩৫ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ২৭, ২০২২ , ৯:৩৫ অপরাহ্ণ

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহম্মুদ বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে বিগত ৭ বছরে ৭ হাজারে ওপর মানুষ পুলিশের গুলিতে মৃত্যু বরণ করেছে। দেশটিতে চলতি বছরে এ পর্যন্ত প্রায় ২৫০টি গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। তিনি বলেন, শুধু যুক্তরাষ্ট্র কেন বিশ্বের অনেক দেশের তুলনায় আমাদের মানবাধিকার পরিস্থিতি অনেক ভালো। বিএনপির পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে শত শত মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে, তাদের মুখে মানবাধিকারের কথা মানায় না।

সোমবার (২৭ জুন) জাতীয় সংসদে বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় তথ্যমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন। এসময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করছিলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, আজকের বাংলাদেশ যেভাবে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে তা অভাবনীয়। ২০০৮-০৯ সালের তুলনায় এবারের বাজেট ৮ দশমিক ৭ গুন বড়। বাজেট বাস্তবায়নের হার ৯৫-৯৭ শতাংশ। কিন্তু প্রতি বছর কয়েকটি সংস্থা-টিআইবি, পলিসি ডায়ালগসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান এবং বিএনপি বলে আসছে এটা দরিদ্রবান্ধব বাজেট নয়, এটা বাস্তবায়ন যোগ্য নয়।

হাছান মাহমুদ বলেন, আগে যেখানে মাথা পিছু আয় ৬০০ ডলার ছিল এখন তা বেড়ে দাড়িয়েছে ২ হাজার ৮২৪ ডলারে। দারিদ্রের সংখ্যা ছিল ৪১ শতাংশ, যা নেমে এসেছে ২০ শতাংশে। বাংলাদেশ আজ বিশ্বের ৩১তম অর্থনীতির দেশ।
তিনি বলেন, পদ্মা সেতু হচ্ছে বাংলাদেশের অনুভূতি-আবেগের প্রতীক, পদ্মা সেতু হচ্ছে বাংলাদেশের সক্ষমতার প্রতীক, জাতীয় সক্ষমতার প্রতীক, আর বিশ্ব ব্যাংকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে প্রজেক্ট বাস্তবায়নের প্রতীক। তিনি বলেন, বিশ্ব ব্যাংক ভুয়া অভিযোগ করে অর্থায়ন বন্ধ করে দেয়, তারা নিজেরাই ক্যানাডার আদালতে মামলা করেন আবার হেরেও যান।

বিএনপি নেতারা বার বার বলেছে এই পদ্মা সেতু আওয়ামী লীগ সরকার কখনো নির্মাণ করতে পারবে না মন্তব্য করে তথ্যমন্ত্রী জানান, তাদের সবার মুখে চুনকালি দিয়ে প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতু বাস্তবায়ন করলেন। তখন তারা প্রশ্ন তুললো, এ সেতু ১০ হাজার কোটি টাকায় নির্মাণ করার কথা ছিল তা কেন ৩০ হাজার খরচ হলো। এর ব্যাখ্যায় তিনি বলেন, ২০১১ সালে যখন পদ্মা সেতু নির্মাণের কথা হয় তখন এর খরচ ধরা হয় ৩ বিলিয়ন ইউএস ডলার। এর মধ্যে ১ দশমিক ৪ বিলিয়ন বিশ্ব ব্যাংকের কাছে চেয়েছিলাম। অন্য দাতা সংস্থার কাছে বাকি টাকা চেয়েছিলাম। কিন্তু সময়ের ব্যবধানে ডলারের মূল্যমান বেড়ে যাওয়ায় আজকে পদ্মা সেতু তিন দশকি ২৫ বিলিয়ন ডলারে সমাপ্ত হয়েছে। তথ্যমন্ত্রী বলেন, ১৯১৫ সালে পদ্মার ওপর হার্ডিজ ব্রিজ নির্মাণ করা হয়। যার শুরু হয় ১৯১০ সালে। তখন খরচ হয়েছিল ৪ কোটি ৮৫ লাখ রুপি। ডলার বা অর্থের মূল্যমান নির্ধারণ করা হয় স্বর্ণের মূল্যের ওপর। আজকে যদি সম দৈর্ঘের হার্ডিজ ব্রিজ তৈরি করতে হতো তা হলে লাগতো ৫৮ হাজার কোটি টাকা।

হাছান মাহম্মুদ বলেন, উদ্বোধনের পদ্মা সেতুর নাট বল্টু যে খুলেছে সে কিন্তু আগে ছাত্রদল করতো, এটা বিভিন্ন পত্র পত্রিকা থেকে জানা গেছে।

মুল্যস্ফিতির বিষয়ে তিনি বলেন, ২০২২ সালে ভারতের মূল্যস্ফীতি ৭.৭৯ শতাংশ, নেপালে ৭.৮৭ , পাকিস্তানে ১৬.৮, যুক্তরাষ্ট্রে ৮.৬, যুক্তরাজ্যে ৯.৮, জার্মানী ৭.৯, রাশিয়ায় ১৭.১, তুরস্কে ৭৬. ৫, নেদারল্যান্ডসে ৯.৬, এবং ক্যানাডায় ৬.৮ আর বাংলাদেশে গত মে মাস পর্যন্ত ৫. ৯৯ শতাংশ মুদ্রাস্ফীতি ঘটেছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়